এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগকে স্বীকৃতি দিতেই হল কেন্দ্রকে, দিদির প্রকল্পে ভর করেই এগোবে মোদির প্রকল্প!

মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগকে স্বীকৃতি দিতেই হল কেন্দ্রকে, দিদির প্রকল্পে ভর করেই এগোবে মোদির প্রকল্প!

বাংলা সারা ভারতকে পথ দেখাবে- রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই আপ্তবাক্য এবার প্রতিষ্টা পেতে চলেছে। সূত্রের খবর, রাজ্যে গরিব মানুষদের স্বাস্থ্য ব্যাবস্থায় যাতে কোনো ত্রুটি না থাকে তার কারনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে তৈরি হয়েছে স্বাস্থসাথী প্রকল্প। এবার এই স্বাস্থসাথী প্রকল্পের সাথেই যুক্ত হচ্ছে কেন্দ্রের উদ্যোগে তৈরি হওয়া আয়ুস্মান ভারত স্বাস্থসাথী প্রকল্প। তাহলে কি রাজ্য ও কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে চালু হবে এক নতুন স্বাস্থ পরিষেবা প্রকল্প?

জানা গেছে, এতদিন কেন্দ্রের যে রাস্ট্রীয় স্বাস্থবিমা যোজনা প্রকল্পটি ছিল এবার তা উঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর এই প্রকল্পের উপভোক্তা প্রায় 64 লক্ষ পরিবার এবং স্বাস্থসাথীর 52 লক্ষ পরিবারকে নিয়ে মোট সাড়ে চার কোটে গরিব মানুষের স্বাস্থ পরিষেবার সুবিধার্থে তাঁদের নিয়ে আসা হচ্ছে এই নতুন স্বাস্থসাথী প্রকল্পের আওতায়।

শুধু তাই নয়, রাজ্য সরকারের উদ্যোগে তৈরি হওয়া প্রকল্পের সুবিধাভোগী প্রায় 6 কোটি মানুষও এই রাজ্য এবং কেন্দ্রের এই নতুন প্রকল্পের আওতায় চলে আসছেন। কিন্তু কবে থেকে এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন উপভোক্তারা? জানা গেছে, আগামী 1 অক্টোবর থেকেই এই প্রকল্প চালুর কথা রয়েছে। এদিকে এই প্রকল্পে কেন্দ্র রাজ্য মৌ স্বাক্ষর প্রসঙ্গে স্বাস্থসাথীর প্যাকেজ কমিটির চেয়ারম্যান ডাঃ প্রদীপ মিত্র বলেন, “আমরা এই প্রকল্প চালু করতে প্রস্তুত। নতূন এই প্রকল্পে অনেকেই অন্তর্ভুক্তিকরনের আবেদন জানাচ্ছেন।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

জানা গেছে, কেন্দ্র এবং রাজ্যের যৌথ উদ্যোগে এই প্রকল্প চালু হলেও তাঁর নাম সেই “স্বাস্থসাথী” থাকছে। এতে কেন্দ্র 60% এবং রাজ্য 40% অর্থ দেবে। কিন্তু কত কোটি খরচ হবে এই প্রকল্পে? একাংশের মতে,  আরএসবিওয়াই এবং স্বাস্থসাথী মিলিয়ে এতদিন 450 কোটি টাকার বাজেট থাকলেও এবার আরও 50 কোটি টাকা বাক্রতি খরচ হতে পারে। তবে খরচ যাই হোক না কেন, রাজ্য এবং কেন্দ্র যদি এই স্বাস্থ্যসাথীর মত সব প্রকল্পেই হাতে হাত রেখে কাজ করে তাহলে অচিরেই এই বাংলা সর্বক্ষেত্রেই জগৎসভায় শ্রেষ্ট আসন লাভ করবে বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!