এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > চাকরি ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ, মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে মামলা রুজু কাউন্সিলরের স্বামীর বিরুদ্ধে

চাকরি ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ, মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে মামলা রুজু কাউন্সিলরের স্বামীর বিরুদ্ধে

দীর্ঘদিন ধরে  আইন বিরুদ্ধ কাজে লিপ্ত থাকার দোষে দুষ্ট হলেন রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের এক কাউন্সিলারের স্বামী। চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক নাবালিকাকে দিনের পর দিন ধর্ষণের অভিযোগ উঠল তাঁর বিরুদ্ধে। অভিযোগ জানিয়েছেন খোদ প্রতারিত ঐ নাবালিকা।

প্রসঙ্গতঃ বরানগরের ১২ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর সঞ্চিতা দে-র স্বামী রাজু ঘোষ পেশায় একজন প্রোমোটার। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তিনি এক নাবালিকাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন। একইসাথে তিনি ঐ  মেয়েটির বাবার চাকরির বন্দোবস্ত করে দেবেন বলেও কথা দিয়েছিলেন। জানা যাচ্ছে অভিযোগকারী মেয়েটির সাথে রাজু বাবু বহুদিন ধরে সারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত ছিলেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অভিযোগকারী নাবালিকার বয়ান অনুসারে ২০১৬ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০১৭-এর অক্টোবর মাস পর্যন্ত এই সম্পর্ক বজায় ছিলো। এখন নির্যাতিতা নাবালিকা তাঁর অভিযোগ মারফত জানাচ্ছে অভিযুক্ত প্রোমোটার রাজু ঘোষ তাঁর প্রতিশ্রুতি মতো কোনো কথাই পালন করেননি। উলটে তাঁর প্রতিশ্রুতির কথা তাঁকে স্মরণ করানো হলে তিনি হুমকি দিতে থাকেন । ভয় পেয়ে প্রথম কয়েক মাস চুপ করে থাকলেও এদিন মেয়েটি এই সমস্যার প্রতিকার চাইতে  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্মরণাপন্ন হয়।

একইসাথে শাসক দলের দুই প্রভাবশালী নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও মদন মিত্রের সঙ্গে যোগাযোগ করে। জানা যাচ্ছে বেলঘরিয়া থানায় অভিযোগ জানানোর পরে, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার জনৈকা নাবালিকা বারাকপুর কোর্টে গোপন জবানবন্দি দিয়েছে। অবশ্য অভিযুক্ত রাজু ঘোষ পুরো বিষয়টি মানতে অসম্মত হয়েছে। বেলঘরিয়া থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। তবে এখনও পর্যন্ত পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করেনি বলেই জানা যাচ্ছে।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!