এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরবঙ্গ সফরকালে লোডশেডিংয়ের জেরে কড়া পদক্ষেপ প্রশাসনের

মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরবঙ্গ সফরকালে লোডশেডিংয়ের জেরে কড়া পদক্ষেপ প্রশাসনের

অবশেষে নিজেদের কৃতকর্মের ফসল দিতে হল বিদ্যুৎ বন্টন সংস্থার দুই কর্মীকে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 30 শে অক্টোবর উত্তরবঙ্গের কোচবিহারের প্রশাসনিক সভা সেরে বিকেলে জলপাইগুড়ির মেটেলি ব্লকের টিলাবাড়িতে পর্যটন দপ্তরের একটি কটেজে ওঠেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এরপরই সেইখানে বার চারেক বিদ্যুৎ ব্যবস্থা প্রবলভাবে ব্যাহত হয়।

সূত্রের খবর, এই ঘটনায় প্রবলভাবে ক্ষুব্ধ হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এরপরই গত 31 অক্টোবর চাল সাটিয়া বনে জলপাইগুড়ি আলিপুরদুয়ার জেলার এক প্রশাসনিক বৈঠকে বিদ্যুৎ দপ্তর এর কাজ নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকে তিনি বলেন, “পাওয়ার ডিপার্টমেন্ট নিয়ে বহু অভিযোগ আসছে‌ আমি রাতে টিলাবাড়িতে ছিলাম। সেখানে চারবার বিদ্যুৎ গিয়েছে। জনগণকে পরিষেবা দিতে এত হয়রানি কেন? এভাবে কি ডিপার্টমেন্ট চলবে?”

আর মুখ্যমন্ত্রীর এই কড়া বার্তার পরেই পদক্ষেপ নিল জেলা প্রশাসন।ডব্লুবিএসইডিসিএল সূত্রের খবর, এই টিলাবাড়িতে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার দায়িত্বে ছিলেন মালবাজারের ডিভিশনাল ম্যানেজার এবং অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার। জানা গেছে, অবশেষে সংস্থার চেয়ারম্যান কাম এমডি রাজেশ পান্ডে সেই বিদ্যুৎ বন্টন সংস্থার মালের ডিভিশন্যাল ম্যানেজার শান্ত রায় এবং অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার শেখ আব্দুস শামিমকে সাসপেন্ড করলেন।

শুধু তাই নয়, বন্টন সংস্থার জলপাইগুড়ি রিজিওনাল ম্যানেজার কল্যান কুমার মাইতিকেও পুরুলিয়া প্রকল্পে বদলি করা হয়েছে। সূত্রে খবর, কল্যানবাবুর যায়গায় যোগ দেবেন সুশান্ত কুমার হাজরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে মালবাজারের ডিভিশন্যাল ম্যানেজার হিসেবে দক্ষিণ 24 পরগনা থেকে এসে এখানে যোগদান করবেন ডিভিশনাল ইঞ্জিনিয়ার পার্থপ্রতিম মন্ডল। তবে নতুন অফিসাররা যোগদান করলেও কেন মুখ্যমন্ত্রীর সফরকালে এই ভাবে বিদ্যুৎ বিভ্রাটে হল সম্মুখীন হতে হল তা নিয়ে আগামী সাত দিনের মধ্যে গোটা ঘটনার তদন্ত করে চিফ ইঞ্জিনিয়ারকে একটি রিপোর্ট জমা দিতে বলেছেন সংস্থার চেয়ারম্যান। সব মিলিয়ে প্রশাসনিক প্রধানের উত্তরবঙ্গ সফরকালে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের জেরে কড়া পদক্ষেপ প্রশাসনের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!