এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ দাগতে গিয়ে পুলিশকে ‘অশালীন’ আক্রমন বাম সাংসদ মহম্মদ সেলিমের

মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ দাগতে গিয়ে পুলিশকে ‘অশালীন’ আক্রমন বাম সাংসদ মহম্মদ সেলিমের

রাজ্য রাজনীতিতে এ যেন ভাষা সন্ত্রাস অব্যাহত। এবার সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিম।শনিবার কোচবিহারে বামেদের তরফ থেকে এক সভার আয়োজন করা হয়েছিল।মেখলিগঞ্জের জমাদহে তাদের দলেরই নিহত হয়েছেন কমরেড রমজান মিঞা।এদিন তাঁর স্মরনসভা তে উপস্থিত হয়েই রাজ্য পুলিশের উদ্দেশ্যে কুরুচিপূর্ন বাক্য প্রয়োগ করলেন সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিম।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিন পুলিশ কে কটাক্ষ করে মহম্মদ সেলিম বলেন, ” রমজান মাসে রমজান মিঞার খুনিদের ধরা হয়নি এখনও। কিন্তু এই প্রশ্নের উত্তর নেই কোথাও। এদিকে পুলিশের প্যান্ট খুলে আন্ডার প্যান্টে মিলবে তৃনমূলের ঝান্ডা।” এদিনের এই সভায় উপস্থিত ছিলেন সিপিএমের সুজন চক্রবর্তী, জীবেশ সরকার, প্রদীপ নাথ, অনন্ত রায়ের মত নেতারা। সভা শেষে তাঁরা নিহত দলীয় সমর্থক রমজান মিঞার কবরও পিরদর্শন করেন। জেলা বামফ্রন্ট সূত্রে জানা গেছে, মৃত রমজানের পরিবারের হাতে 20 হাজার টাকা তুলে দেওয়ার পাশাপাশি অন্যান্য আহতদের চিকিৎসার জন্যেও কিছু টাকা দেওয়া হয়।

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 3 রা জুন মেখলিগঞ্জের জামালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের হরির বাড়ি এলাকায় তৃনমূল সিপিএমের সংঘর্ষে কার্যত রনক্ষেত্রে চেহারা নেয় এলাকা। বামেদের অভিযোগ, রমজান মিঞা নামে তাদের এক কর্মীকে কুপিয়ে খুন করে তৃনমূলের আশ্রিত দুস্কৃতীরা। এরপর বামেদের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়। এখানেই এদিনের সভা থেকে সিপিএমের মহম্মদ সেলিম, সুজন চক্রবর্তীদের অভিযোগ,ঘটনার পর এক সপ্তাহ পার হলেও পুলিশ এব্যিপারে কিছুই করেনি।উল্টে অভিযুক্তরা তৃনমূলের লোক বলে তাদেরকে পুলিশ গ্রেফতার করতে ভয় পাচ্ছে। সূত্রে খবর, বামেদের এদিনের এই সভা শেষে একটি শোকমিছিল ও বের করা হয়।যেখানে গ্রামের প্রচুর মানুষও অংশ নেন।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!