এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > লোভ সংবরণ করুন – নিজের দল ও প্রশাসনকে বড়সড় বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

লোভ সংবরণ করুন – নিজের দল ও প্রশাসনকে বড়সড় বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

লোকসভা নির্বাচনে তার দলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পেছনে নেতাদের দুর্নীতি যে অনেকাংশেই দায়ী, তা বুঝতে বাকি নেই তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর তাইতো খারাপ ফলাফল নজরে আসার পরই কেউ দুর্নীতি করলে তার টাকা তাকেই ফেরত দিতে হবে বলে জানিয়ে দিতে দেখা গিয়েছিল সেই তৃনমূল নেত্রীকে।

আর প্রশাসনিক প্রধানের এই ঘোষণার পরই দিকে দিকে তৃণমূলের দুর্নীতিগ্রস্ত নেতাদের ঘিরে টাকা ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ করতে দেখা যায় সাধারণ মানুষকে। তবে তিনি দলকে যতই দুর্নীতি থেকে সরিয়ে আনার চেষ্টা করুন না কেন, যে রোগ তার দলে বাসা বেধেছে, তা যে এত সহজে সরানো যাবে না, তা বুঝতে পেরেই এবার ফের সকলকে লোভ সম্বরন করার কথা বললেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার দীঘায় আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারের উদ্বোধনী উপস্থিত হন মুখ্যমন্ত্রী। আর সেখানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, “আমাদের সকলকে নিজেদের লোভ সংযত করতে হবে। এটা কোনো দলের জন্য বলছি না, কোনো অফিসারকে বলছি না। মনে রাখবেন, সরকারি অর্থ আসলে জনগণের অর্থ।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, দলে দুর্নীতি বাসা বেঁধেছে তা আঁচ করতে পেরেই এবার কারো নাম না নিয়ে, যারা দুর্নীতি করছে তাদের লোভ সম্বরণ করার কথা বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে এদিন এই দীঘা কনভেনশন সেন্টার উদ্বোধনে এসে সাধারণ মানুষের কাছে আরও বেশি করে উন্নয়ন পৌঁছে দেওয়ার কথা তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী। দীঘার পর্যটনকে যেভাবে আধুনিক শিল্প-বাণিজ্যের মানচিত্রে তিনি যোগ করতে চান, তাও উল্লেখ করা হয়।

পাশাপাশি তাজপুর বন্দর নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের অসহযোগিতারও অভিযোগ করেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান। তিনি বলেন, “কেন্দ্রীয় সরকার কথা মত কাজ না করার জন্যই তাজপুরের প্রস্তাবিত বন্দর এবার রাজ্য সরকার তৈরি করবে। বহু প্রকল্পের জন্য কেন্দ্রীয় বরাদ্দ বন্ধ রয়েছে।”

অন্যদিকে পাহাড়ের উন্নয়ন যে অনেকটাই ব্যাহত হয়েছে, সেই কথা তুলে ধরে পরোক্ষে বিজেপির বিরুদ্ধে এদিনের সভা মঞ্চ থেকে তোপ দাগেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। সব মিলিয়ে একদিকে দুর্নীতিগ্রস্তদের লোভ সম্বরণের বার্তা দিয়ে আর আর অন্যদিকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলে দীঘার কনভেনশন সেন্টারের মঞ্চ থেকে সকলকে একযোগে উন্নয়নের কাজ করার বার্তা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Top
error: Content is protected !!