এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য ‘ঘুরপথে’ সুখবর আনলেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য ‘ঘুরপথে’ সুখবর আনলেন মুখ্যমন্ত্রী

ডিএ নিয়ে রাজ্য সরকারি কর্মীদের দীর্ঘদিনের ক্ষোভ, বিশেষ করে দপ্তম পে কমিশনের সুপারিশে যখন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের বেতন লাফিয়ে বেড়েছে, তখন রাজ্য সরকারি কর্মীদের হতাশার পরিমানও লাফিয়ে বাড়বে বলায় বাহুল্য। যদিও মুখ্যমন্ত্রী বারবার দাবী করেছেন বামফ্রন্ট আমলে হয়ে থাকা বিশাল ঋণের বোঝা মাথায় নিয়েও তিনি যথাসম্ভব চেষ্টা করছেন, কিন্তু এখনই সমস্ত বকেয়া ডিএ মেটানো সম্ভব নয়। তবুও আগামী জানুয়ারী থেকে কিছুটা বকেয়া দেবে রাজ্য সরকার। কিন্তু তাতেও রাজ্য সরকারি কর্মীদের হতাশা সবটা কাটা সম্ভব নয়, তা মেনে নিয়েছে সংশ্লিষ্ট মহল। আর তাই মুখ্যমন্ত্রী আপ্রাণ চেষ্টা করছেন অন্য্ যেভাবে সম্ভব রাজ্য সরকারি কর্মীদের খুশি করতে।
তারই ফলশ্রুতি হিসাবে এবার আইন পরিবর্তন করতে চলেছেন। তুলে দিতে চলেছেন রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য লাগু সম্পত্তি ক্রয়ের ঊর্ধসীমা। একটি জনপ্রিয় বাংলা সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, আগে যে কোনও সম্পত্তি কিনতে গেলে কর্মীদের সংশ্লিষ্ট দফতরে নিজের ও পরিবারের আয়ের পরিমাণ দাখিল করে সম্পত্তি কেনার অনুমতি নিতে হতো, বর্তমানেও অবশ্য সেই অনুমতি নিতে হবে অর্থাত্‍ কর্মীদের নিজেদের দফতরের কর্তৃপক্ষের থেকে আয়ের হিসেব দাখিল করেই নতুন সম্পত্তি কেনার অনুমতি আদায় করতে হবে। তবে জ্য সরকারের কর্মীদের জন্য আগে নিয়ম ছিল, তাঁরা ৩০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত মূল্যের সম্পত্তিই কিনতে পারতেন কিন্তু নিয়মে পরিবর্তন করে রাজ্য সরকার ঘোষণা করতে চলেছে এবার থেকে রাজ্য সরকারি কর্মীরা নিজেদের ইচ্ছেমতো মূল্যের সম্পত্তি কিনতে পারবেন। সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, শহরাঞ্চলে জমি-বাড়ির দাম এমনিতেই বেড়ে গিয়েছে, ফলে ৩০ লক্ষ টাকার ঊর্ধ্বসীমা রাখায়, অনেক সরকারি কর্মচারীই অসুবিধায় পড়ছিলেন তাই রাজ্য সরকার এই নিয়মের পরিবর্তন আনতে চলেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!