এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ক্লাস করব না, ইউনিয়ন করব – তা হবে না: শিক্ষামন্ত্রীর কড়া হুঁশিয়ারি তৃণমূলের ছাত্রনেতাদের

ক্লাস করব না, ইউনিয়ন করব – তা হবে না: শিক্ষামন্ত্রীর কড়া হুঁশিয়ারি তৃণমূলের ছাত্রনেতাদের

গত 28 আগষ্ট দলের ছাত্র সংগঠনের প্রতিষ্টা দিবসের মঞ্চ থেকেই পরবর্তী 10 দিনের মধ্যে তৃনমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি পদে নতুন মুখ আনতে দলীয় নেতাদের একটি বৈঠকের নির্দেশ দেন তৃনমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর দলের সর্বোচ্চ নেত্রীর সেই নির্দেশ পালন করতে গতকাল তৃনমূল ভবনে প্রতিটি কলেজের ছাত্র সংসদের সভাপতি, সাধারন সম্পাদক এবং প্রতিটি জেলার জেলা সভাপতিদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

বেলা সাড়ে 12 টা থেকে চলা এই বৈঠকে পার্থ চট্টোপাধ্যায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন ছাত্রনেতা তথা রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, অভিজ্ঞ তৃনমূলের প্রাক্তন ছাত্রনেতাদের মধ্যে ছিলেন বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়, অশোক দেব, বিধায়ক তাপস রায় সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা। সূত্রের খবর, রাজ্য তৃনমূল ছাত্র পরিষদের নতুন সভাপতি ঠিক করতে এই বৈঠক হলেও সেখানে এখনও অধরাই থেকে এই তৃনমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতির পদ। তবে এদিন একটি উপদেষ্টামন্ডলী তৈরি করা হয়। যেখানে চেয়ারম্যান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, কো-চেয়ারম্যান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, এবং সদস্য হিসাবে রাখা হয়েছে অশোক দেব, তাপস রায় এবং বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়কে। তবে অপসারিত তৃনমূল ছাত্র পরিষদের সভানেত্রী জয়া দত্তকে এদিন বসানো হয়েছে আহ্বায়ক পদে।

পাশাপাশি সমস্ত জেলার দলীয় ছাত্র সংগঠনের কমিটিও এদিন ভেঙে দেওয়া হয়। নতুন সভাপতি ঠিক করতে প্রত্যেক জেলা সভাপতিকে পাঁচটি করে নামও জমা দিতে বলেছে তৃনমূল শীর্ষনেতৃত্ব। এদিনের এই সভায় কলেজে উপস্থিতি এবং ভর্তি যে টাকা নেওয়া যাবে না সেই ব্যাপারে ছাত্রনেতাদের কড়া বার্তা দেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “নির্দিষ্ট শতাংশের নীচে কারও হাজিরা থাকলে সেই পড়ুয়া সংশ্লিষ্ট নম্বর পাবেন না। তাই এই ব্যাপারে সমস্ত নিয়ম মানতে হবে। ক্লাস করব অথচ ইউনিয়ন করব না এটি হবে না।”

পাশাপাশি কলেজে বহিরাগত আটকাতে এবং ছাত্র রাজনীতিতে মেয়েদের এগিয়ে আসা উচিত বলেও জানান শিক্ষামন্ত্রী। শিক্ষকদের সম্মান জানানো যে প্রতিটি ছাত্রেরই কর্তব্য এদিন সেই ব্যাপারেও দলীয় ছাত্নেতাদের বার্তা দেন তিনে। অন্যদিকে এদিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “আমরা ছাত্র আন্দোলন করেই বড় হয়েছি। কখনও  টাকা নিয়ে ভর্তি করাইনি। ছাত্র আন্দোলন নেতা তৈরি করে। তাদের কাছে নেতৃত্ব আসবে। তোমরা ভুল পথে যেও না।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে শুধু ছাত্র নয়, এদিন দলের প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠনকে ঢেলে সাজিয়ে তাঁর সভাপতি করা হয় তৃনমূল ছাত্র পরিষদের একসময়কার সভাপতি অশোক রুদ্রকে। সব মিলিয়ে এখন প্রতিটা জেলায় দলীয় ছাত্র সংগঠনের কমিটি ভেঙে দেওয়ার পর নতুন মুখ হিসাবে কারা উঠে আসে আর কেই বা হয় রাজ্য তৃনমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি সেই দিকেই তাকিয়ে সকলে।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!