এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূল নেত্রীকে বড়সড় ধাক্কা দিয়ে আড়াই ঘন্টা ম্যারাথন জেরার পরে চিটফান্ড কাণ্ডে গ্রেপ্তার ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী

তৃণমূল নেত্রীকে বড়সড় ধাক্কা দিয়ে আড়াই ঘন্টা ম্যারাথন জেরার পরে চিটফান্ড কাণ্ডে গ্রেপ্তার ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী

চিটফান্ড কাণ্ডে গ্রেপ্তার মমতা ব্যানার্জীর ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী শ্রীকান্ত মোহতা। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এদিন দীর্ঘ জেরার পর এসভিএফ কর্ণধারকে গ্রেফতার করলেন। জানা যাচ্ছে কসবার একটি অভিজাত শপিং মলে দীর্ঘ আড়াই ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে এই সংস্থা। আর এর পর উপযুক্ত জবাব না পেয়েই এই গ্রেফতার বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, সারদা গ্রুপের কর্ণধার সুদীপ্ত সেন ও রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর সঙ্গে শ্রীকান্ত মোহতার বিপুল অঙ্কের আর্থিক লেনদেন হয়েছিল আর চিটফান্ড কাণ্ডে তদন্তে নেমে সেই নিয়েই জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। আর সেই নিয়েই তাঁকে সারদা কাণ্ডে একটি মামলায় নোটিস পাঠানো হয়েছিল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অভিযোগ জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য বার বার তলব করা হলেও একবার হাজিরা দিয়েছিলেন কিন্তু তারপর আরও ৩ থেকে ৪ বার তাঁকে তলব করা হয়েছিল। কিন্তু প্রতিবার-ই হাজিরা এড়িয়ে গিয়েছিলেন ,যে কারণে এদিন তদন্তকারী অফিসাররা
কোনো প্রকার ফাক না রেখেই আইনজীবী নিয়েএবার এসভিএফ-এর অফিসে গিয়ে শ্রীকান্ত মোহতাকে জিজ্ঞাসাবাদকরেন।
সেখানে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুলিসের আধিকারিকরাও।

এরপর প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে জেরা করা হয় তাঁকে। সিবিআই এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে , বহু প্রশ্নের সদুত্তর দিতে পারেননি সাথেই আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত বহু নথিপত্রও দেখাতে পারেননি তিনি। যে কারণে সন্তুষ্ট নন তদন্তকারী অফিসাররা। তাদের দাবি তাঁর বয়ানেও প্রচুর অসঙ্গতি ছিল। আর তাই তাঁকে সিজিও কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে জেরা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তদন্তকারী অফিসাররা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!