এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > চীন ও পাকিস্তানের ঘুম উড়িয়ে ভারতীয় বায়ুসেনাকে আরও শক্তিশালী করার প্রক্রিয়া শুরু মোদী সরকারের

চীন ও পাকিস্তানের ঘুম উড়িয়ে ভারতীয় বায়ুসেনাকে আরও শক্তিশালী করার প্রক্রিয়া শুরু মোদী সরকারের

ফ্রান্স থেকে রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার প্রক্রিয়ায় অনেকটাই দেরি হয়েছে। যেখানে প্রায় ১০ বছরেরও বেশি সময় লেগেছে। তাই এবার নতুন করে ১১৪টি ফাইটার জেট কেনার প্রক্রিয়া শুরু করেছে বায়ুসেনা। আর এমত একটা পরিস্থিতিতে এই অবস্থায় এটাতে রাফালের মতে যাতে কোনো বিলম্ব না হয়, তা নিশ্চিত করা একমাত্র লক্ষ্য বায়ুসেনার।

বস্তুত,
রাফাল চুক্তি শেষ পর্যন্ত 126 টির পরিবর্তে ৩৬টি যুদ্ধবিমান সরবরাহে নেমে এসেছিল। পরবর্তী সময়ে নতুন করে 114 টি যুদ্ধবিমান কেনার লক্ষ্যে বায়ুসেনা বিশ্ব বাজারের দ্বারস্থ হয়। যার জন্য আনুমানিক খরচ ধরা হয় ১ হাজার ৫০০ কোটি ডলার। এদিকে ইতিমধ্যেই এর বরাত পেয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে বোয়িং, লকহিড মার্টিন, ইউরোফাইটার, রাশিয়ান ইউনাইটেড এয়ারক্র্যাফ্ট কর্পোরেশন ও সাবের মতো প্রথম সারির সংস্থাগুলো।

চুক্তি আদায়ে যে প্রতিযোগিতা চলছে, তার মধ্যেই এই সংস্থাগুলির তরফে ভারতকে বিভিন্ন প্রস্তাব দিতে দেখা যাচ্ছে। যেখানে চুক্তির প্রক্রিয়া আরও মসৃণ করা যায়। আর এরই মাঝে এবার মার্কিন সংস্থার কাছ থেকে ভারতের মাটিতেই এফ-১৬ যুদ্ধবিমান তৈরি করা হবে বলে প্রস্তাব আসতে শুরু করেছে। শুধু তাই নয়, নতুন করে আরও ৩৬টি রাফাল বিমান কেনা যায় কি না, তা নিয়েও নয়াদিল্লি ও প্যারিসের মধ্যে আলাপ-আলোচনা শুরু হয়েছে বলে খবর। এছাড়াও আরও অনেক প্রস্তাব সাথে রয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে নয়া জমানার যুদ্ধবিমান হাতে পেতে দেরি হওয়ায় বায়ুসেনার তরফে প্রস্তুতি প্রবল ধাক্কা খাচ্ছে। যেখানে ঠিক হয়েছে যে, ধাপে ধাপে এই বাহিনী থেকে মিগ-29 বামানকে সরিয়ে ফেলা হবে। আর বিকল্প বিমান হাতে পেতে বিভিন্ন কারণে প্রচুর সময় লেগে যাচ্ছে।

সূত্রের খবর, গত পাঁচ বছরে দুর্ঘটনায় ২৬টি যুদ্ধবিমান ভেঙে পড়েছে। যেখানে প্রায় ১২ জন পাইলটের মৃত্যু এবং সাতজন বিমানকর্মী মারা গিয়েছেন। আগামী মাসেই বায়ুসেনার হাতে প্রথম রাফাল বিমান আসতে চলেছে। কিন্তু এই 36 টি রাফাল বিমান বায়ুসেনার অন্তর্ভুক্ত হতে প্রায় চার বছর সময় লেগে যাবে বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের। ফলে রাশিয়ার কাছ থেকে আধুনিক মানের মিগ-29 বিমান কেনার ভাবনা চিন্তা শুরু হয়েছে। তার সাথে সাথেই জাগুয়িয়ার বিমানবন্দরের আধুনিকীকরণের কথাও ভাবা হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!