এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > চন্দ্রবাবুর পথে হেটে বিজ্ঞপ্তি জারি করে কেন্দ্রকে মোক্ষম ফাঁদে ফেললেন মমতা

চন্দ্রবাবুর পথে হেটে বিজ্ঞপ্তি জারি করে কেন্দ্রকে মোক্ষম ফাঁদে ফেললেন মমতা

অনেকদিন ধরেই দ্বন্দ্ব চলছিল। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার রাজনৈতিকভাবে বিরোধীদেরকে সিবিআই দিয়ে দমিয়ে দিচ্ছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে যখন তখন রাজ্যে সিবিআই প্রবেশ করায় বিভিন্ন সময় অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে সেই শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে। গ্রেপ্তার হয়েছেন একাধিক নেতা মন্ত্রী।

কিন্তু লোকসভা ভোটের আগে এবার সেই সিবিআইয়ের রাজ্যে প্রবেশ আটকাতে উদ্যোগী হল নবান্ন। তবে নবান্নর এই সিদ্ধান্ত অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর সিদ্ধান্তকে দেখেই তা আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি অন্ধপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু একটি বিজ্ঞপ্তি করে জানিয়ে দিয়েছেন যে, “এখন থেকে আযর রাজ্যে সিবিআই কোনো তল্লাশি চালাতে পারবে না। সিবিআই তদন্তের জন্য রাজ্যের অনুমতি নিতে হবে।” আর এরপরই গতকাল নেতাজি ইন্ডোরে দলের কোর কমিটির বর্ধিত সভায় সেই চন্দ্রবাবু নাইডুর সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়।

সভায় তিনি বলেন, “অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ঠিক কাজ করেছে। উনি সিবিআইকে রাজ্য ঢোকার অনুমতি দেবেন না। আমিও আইনটা দেখে নেব। আগে প্রয়োজন ছিল না, কিন্তু এখন করতে হবে। তার কারণ বিজেপি এখন পার্টি অফিস থেকেই সব নির্দেশ দেয়।”

এদিকে যেমন বলা তেমনি কাজ। নবান্নে একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে সেই রাজ্যের সিবিআই ঢোকার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। সূত্রের খবর, এদিনের এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুখ্যসচিব মলয় দে, স্বরাষ্ট্র সচিব অত্রি ভট্টাচার্য্য ও নিরাপত্তা উপদেষ্টা মন্ডলী।

জানা যায়, বিগত বাম সরকারের আমলেই 1989 সালে কেন্দ্রকে দিল্লি স্পেশাল পুলিশ এস্টাবলিসমেন্ট অ্যাক্টে একটি সাধারণ অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এদিনের বৈঠক থেকে সেই বিগত বাম আমলের অনুমতিকেই প্রত্যাহার করে দিল বর্তমান তৃণমূল সরকার। যার জেরে এখন থেকে রাজ্যের অনুমতি না নিয়ে কার্যত কোনো সিবিআই অফিসার কোনো তদন্ত চালাতে পারবেন না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক মহলের মতে, বিগত বেশ কয়েক বছরে এই রাজ্যে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই প্রবেশ করে তদন্ত চালানোয় অনেকটাই অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছিল রাজ্যের শাসকদলকে। কিন্তু লোকসভা ভোটের আগে সেই অস্বস্তি যাতে আর তৃণমূল কংগ্রেসকে গ্রাস না করে সেইজন্য এবার অন্ধপ্রদেশের দেখানো পথে হেঁটেই সিবিআই রাজ্যে ঢুকতে গেলে আগে অনুমতি নিতে হবে বলে বিজ্ঞপ্তি জারি করল বাংলার সরকার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!