এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দলীয় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এবার এই পৌরসভায়, প্রবল অস্বস্তিতে শাসক দল

দলীয় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এবার এই পৌরসভায়, প্রবল অস্বস্তিতে শাসক দল

লোকসভা নির্বাচনে সারারাজ্যে তৃনমূলের ফলাফল খারাপ হওয়ার পেছনে সেই দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রধানভাবে দায়ী ছিল। যা নিয়ে সেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব রোধ করতে একাধিকবার কড়া দাওয়াই দিতেও দেখা গিয়েছিল তৃণমূল নেত্রীকে। কিন্তু তাতেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের অনেক আসনেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণেই দলের প্রার্থীকে হেরে যেতে হয়েছে।

যা পরবর্তীতে ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে উঠে এসেছে। আর লোকসভা নির্বাচনের পর যখন তৃণমূলের একের পর এক জনপ্রতিনিধি বিজেপিতে যোগদান করে শাসকদলের অস্বস্তিকে বাড়িয়ে তুলছেন, ঠিক তখনই একের পর এক পৌরসভায় তৃণমূল কাউন্সিলররাই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনছেন। আর এবার বসিরহাট পৌরসভায় দলের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনতে দেখা গেল তৃণমূলের কাউন্সিলরদের।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, সোমবার এই পৌরসভার তৃণমূলের চেয়ারম্যান তপন সরকারের অপসারণের দাবিতে 12 জন তৃণমূল কাউন্সিলর মহকুমা শাসকের কাছে তাদের অনাস্থা পেশ করে। কিন্তু হঠাৎ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কাউন্সিলাররা এই অনাস্থা প্রস্তাব আনলেন কেন!

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলেছেন, বসিরহাট দক্ষিণের বিধায়ক দিপেন্দু বিশ্বাসের সঙ্গে বসিরহাট পৌরসভার চেয়ারম্যান তপন সরকারের দীর্ঘদিনের বিবাদ রয়েছে। তপনবাবুর দলে এবং এলাকায় যথেষ্ট সুনাম থাকলেও বিধায়কের সঙ্গে তার দ্বন্দ্ব প্রবল সমস্যা তৈরি করেছিল।

এদিকে লোকসভা ভোটে এই দ্বন্দ্ব মেটানোর জন্য বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হিসেবে তৃতীয় ব্যক্তি তথা বিশিষ্ট অভিনেত্রী নুসরাত জাহানকে দাড় করান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর লোকসভা ভোটে নুসরাত জাহান জয়যুক্ত হওয়ার পরই ফের এদিন বসিরহাট পৌরসভায় দলের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কাউন্সিলরদের অনাস্থা প্রস্তাব গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকেই আরও একবার উসকে দিল বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

জানা গেছে, 23 আসন বিশিষ্ট এই পৌরসভায় তৃণমূলের 16, বিজেপি এবং কংগ্রেসের সাতজন কাউন্সিলর রয়েছে। ফলে তৃণমূলের 16 জন কাউন্সিলরের মধ্যে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে 12 জন কাউন্সিলর অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আসায় এখন এই বসিরহাট পৌরসভার ভবিষ্যৎ ঠিক কোন পথে এগোয়, সেই দিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top