এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইস্তফা পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন দিলীপ, জেনে নিন বিস্তারিত

দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইস্তফা পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন দিলীপ, জেনে নিন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনের পর তৃনমূলের ঘর ভাঙতে শুরু করেছে। একের পর এক জনপ্রতিনিধিরা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাচ্ছেন। যার জেরে প্রবল অস্বস্তিতে পড়েছে শাসক দল। এদিকে দলের এই ভাঙান রুখবার জন্য গোষ্ঠী কোন্দল বন্ধ করার বার্তা দিয়েছে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। কিন্তু তাতেও অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি।

সূত্রের খবর, এবার বাঁকুড়া পৌরসভার পুর প্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করে নিজের পদ থেকেই ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন সেই পৌরসভার উপ পৌরপ্রধান দিলীপ আগরওয়াল। বস্তুত, দীর্ঘদিন ধরেই এই তৃণমূল পরিচালিত বাঁকুড়া পৌরসভায় চেয়ারম্যান বনাম ভাইস চেয়ারম্যানের দ্বন্দ্ব চলছিল।

দলের তরফে বারবার সেই দ্বন্দ্ব বন্ধ করার চেষ্টা হলেও তা ব্যর্থ হয়েছে।আর এবার রীতিমতো সাংবাদিক সম্মেলন করে পুর প্রধানের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে নিজের পদ ছাড়ার কথা ঘোষণা করলেন বাঁকুড়া পৌরসভার উপ পৌরপ্রধান। জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে পুরভবনে একটি সাংবাদিক সম্মেলনে বাঁকুড়া পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান দিলীপ আগরওয়াল বলেন, “দু’বছর ধরে আমাকে কোনো কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে না। পুরপ্রধান আমাকে সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখে পুরসভা পরিচালনা করছেন।”

আর এরপরই বাঁকুড়া পৌরসভার চেয়ারম্যান মহাপ্রসাদ সেনগুপ্তের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে দিলীপ আগরওয়াল বলেন, “কিছুদিন আগেই পৌরসভার ট্রাক্টর মেরামতির জন্য একটি সংস্থাকে বরাত দেওয়া হয়েছিল। আইন মেনে সেই কাজ হলেও চেয়ারম্যান সেই সংস্থার টাকা আটকে রেখেছেন। আমাকে বাদ দিয়ে পুরসভার অধিকাংশ বৈঠক করা হয়।”

কিন্তু এই ব্যাপারে তাহলে কি তিনি দলের কোনো শীর্ষ নেতাকে কিছু জানাননি। এদিন এই প্রসঙ্গে দীলিপবাবু বলেন, “আমি তৎকালীন জেলা পর্যবেক্ষক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানিয়েছি। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি। আর তাই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে এদিন জেলার পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী ও জেলা সভাপতির কাছে আমি আমার ইস্তফা পত্র পাঠিয়ে দিয়েছি।”

তবে তার কাছে এই ধরনের কোনো অভিযোগ বা কোনো পদত্যাগপত্র আসেনি বলে জানিয়েছেন বাঁকুড়া পৌরসভার পৌরপ্রধান মহাপ্রসাদ সেনগুপ্ত। অন্যদিকে পুরপ্রধানের বিরুদ্ধে উপ পুরপ্রধান দুর্নীতি নিয়ে সরব হওয়ায় পাল্টা এই ব্যাপারে সেই পুরপ্রধানের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিজেপি। তাহলে কি এবার এই বাঁকুড়া পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান দিলীপ আগরওয়াল বিজেপির দিকে পা বাড়াচ্ছেন!

এদিন এই প্রসঙ্গে দীলিপবাবু বলেন, “আমি তৃণমূলেই আছি।” কিন্তু কথায় আছে “আজকে যিনি দক্ষিণেতে, কালকে তিনি বামে” বর্তমানে বঙ্গ রাজনীতিতে দলবদল এই ই হিড়িকে কে কখন কিভাবে দলবদল করবেন, তা নিশ্চিত করে বলতে পারবেন না কেউই। আর তাই শেষ পর্যন্ত ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা জানানোর পর এবার দিলীপ আগরওয়াল নিজের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ সুনিশ্চিত করতে তৃণমূলেই থাকেন, নাকি দলবদল করেন এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!