এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কেন্দ্রীয় প্রকল্প আটকে কিভাবে বাংলার মানুষকে বঞ্চিত করছে তৃণমূল – তা তুলে ধরে জোরদার প্রচারের নির্দেশ অমিত শাহের

কেন্দ্রীয় প্রকল্প আটকে কিভাবে বাংলার মানুষকে বঞ্চিত করছে তৃণমূল – তা তুলে ধরে জোরদার প্রচারের নির্দেশ অমিত শাহের

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলাই যে তাঁদের পাখির চোখ তা বারে বারেই নিজের বক্তব্য তুলে ধরেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। আর এবার সেই বাংলায় 42 টি লোকসভা আসনের মধ্যে 22 টি আসন দখল করবার জন্য এখন থেকেই বঙ্গের বিজেপি নেতাদের মাঠে নামার পরামর্শ দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সেনাপতি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নয়াদিল্লিতে বিজেপির দুদিনের জাতীয় পরিষদের বৈঠকের পর বাংলার বিজেপি নেতাদের থেকে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। যা বঙ্গ বিজেপির নেতা কর্মীদের মনেও বাড়তি অক্সিজেন যুগিয়েছিল। অনেকেই ভেবেছিলেন, দুদিনের বৈঠক শেষে পৃথকভাবে বাংলার নেতাদের দিল্লিতে থেকে যাওয়ার নির্দেশনামা আসা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

কেননা বাংলাকে যে বিজেপির শেষ কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব প্রবল ভাবে গুরুত্ব দিচ্ছেন তাই নির্দেশনামা থেকেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল। অবশেষে এদিন নয়াদিল্লির দীনদয়াল উপাধ্যায় মার্গে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিজেপির বাংলার নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে রাজ্যে দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করার নির্দেশ দিলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

পাশাপাশি বাংলায় দলের সমস্ত বুথ কমিটির কাজ সম্পন্ন হয়েছে কিনা সেই ব্যাপারেও রাজ্য নেতৃত্বের কাছে খোঁজ খবর নেন অমিত শাহ। আর এর উত্তরেই বৈঠকে উপস্থিত বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং রাহুল সিনহারা বলেন, “100% বুথ কমিটি তৈরির কাজ এখনও সম্পন্ন হয়নি। প্রায় 10 থেকে 15 শতাংশর মত কাজ এখনও বাকি রয়েছে।”

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজ্য নেতৃত্বের মুখ থেকে এই কথা শুনেই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি বলেন, “আর সময় নষ্ট করবেন না। অবিলম্বে বুথ কমিটি এবং শক্তি কেন্দ্র তৈরীর কাজ শেষ করুন। এখন থেকেই লোকসভা নির্বাচনের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।” আর অমিত শাহের এহেন কথা থেকেই এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলা যে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে চলেছে তা নিঃসন্দেহেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

অন্যদিকে সম্প্রতি কেন্দ্রের “আয়ুষ্মান ভারত” প্রকল্পের সাহায্য দেওয়া নিয়ে নিজের অবস্থান জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। “আয়ুষ্মান ভারত” প্রকল্পে রাজ্য কোনো টাকা দেবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। আর এই পরিস্থিতিতে লোকসভা নির্বাচনের আগে বাংলায় কেন্দ্রের বর্তমান বিজেপি সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প যাতে সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরা যায় সেই ব্যাপারে দলের রাজ্য নেতাদের নির্দেশ দিলেন অমিত শাহ।

এদিনই প্রসঙ্গে দলের রাজ্য নেতাদের জনসংযোগ করার পরামর্শ দিয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি বলেন, “শুধু আয়ুষ্মান ভারত নয়, কেন্দ্রের অনেক প্রকল্প আছে যেগুলির সফল বাস্তবায়ন পশ্চিমবঙ্গে হচ্ছে না। এগুলি নিয়ে বাংলায় ব্যাপক প্রচার করতে হবে। মানুষের কাছে গিয়ে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুফল ব্যাখ্যা করতে হবে।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বর্তমানে বিভিন্ন প্রকল্প নিয়ে প্রবল তরজা বেধেছে কেন্দ্র বনাম রাজ্য শাসকদলের মধ্যে। আর এই পরিস্থিতিতে রাজ্য যখন সমস্ত প্রকল্প তাঁদের বলে প্রচার করতে মরিয়া, ঠিক তখনই কেন্দ্রের সমস্ত প্রকল্প রাজ্যের সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরার জন্য বিজেপির বঙ্গ ব্রিগেডকে নির্দেশ দিলেন অমিত শাহ।

এদিন এই বৈঠকের পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “মূলত লোকসভা ভোটের নির্বাচনী প্রস্তুতি নিয়েই দলের সর্বভারতীয় সভাপতির সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে।” অন্যদিকে আগামী রথযাত্রার নিয়ে রায় বেরোনোর পড়ে এবং সেই রথযাত্রা চূড়ান্ত হওয়ার পরই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ আসবেন বলে জানালেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক তথা রাজ্যের প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি রাহুল সিনহা।

সবমিলিয়ে লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যে নিজেদের দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করতে এবার বঙ্গ ব্রিগেডকে একগুচ্ছ নির্দেশ দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!