এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ভোটের কাজে তো দূরের কথা, কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহলদারি সময়ও এলাকাছাড়া হবে সিভিক পুলিশ! কমিশনের কড়া নির্দেশ

ভোটের কাজে তো দূরের কথা, কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহলদারি সময়ও এলাকাছাড়া হবে সিভিক পুলিশ! কমিশনের কড়া নির্দেশ

বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের সিভিক পুলিশদের দিয়ে অনেক নির্বাচনকে সম্পন্ন করে গণতন্ত্রকে প্রহসনে পরিণত করেছে শাসক দল বলে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ তুলতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যের বিরোধী দলগুলোকে। কিন্তু এবার আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের সেই সমস্ত সিভিক ভলেন্টিয়ারদের ভোটের কোনো কাজে যুক্ত করা যাবে না বলে এবার স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন।

সূত্রের খবর, নির্বাচন কমিশন মারফত রাজ্যের প্রতিটি জেলার পুলিশ সুপারদের কাছে এই নির্দেশ পাঠিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, সিভিক ভলান্টিয়াররা ভোটের কোনো কাজে যেমন থাকতে পারবেন না, ঠিক তেমনই যখন কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহলদারি হবে তখনও তারা থাকতে পারবেন না। শুধুমাত্র থানার কাজেই তারা থাকবেন। এদিকে ইতিমধ্যেই আগামী শুক্রবার রাজ্যে 10 কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আসার কথা রয়েছে।

তবে একাংশের প্রশ্ন, বিগত 2014 সালের লোকসভা ও 2016 সালের বিধানসভা নির্বাচন ঘোষণার পর ভোটের অনেক আগে থেকেই রাজ্যে 100 কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী চলে এসেছিল। ফলে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মাত্র 10 কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী কেন?

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞ মহলের মতে, বর্তমানে জম্মু-কাশ্মীরে প্রচুর পরিমাণে কেন্দ্রীয় বাহিনী রয়েছে। তাই এই মুহূর্তে অতটা আধা সামরিক বাহিনী না দিয়ে ভোটের আগেই তা বিভিন্ন জায়গায় পাঠিয়ে দেওয়ার চিন্তাভাবনা রয়েছে।অন্যদিকে রাজ্যে কোনো অতিরিক্ত স্পর্শকাতর কেন্দ্র আছে কিনা সেই ব্যাপারে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দপ্তরের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল।

তবে এমন কোনো অতিরিক্ত স্পর্শকাতর কেন্দ্র নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক। সব মিলিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের সিভিক ভলান্টিয়ারদের কার্যত ভোটের কাজে যুক্ত হতে কষ্ট ভাষায় “না” জানিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!