এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সিবিআই প্রতিনিধিদের সঙ্গে রবিবার ‘অসৌজন্যমূলক’ আচরণ, ক্ষুব্ধ সিবিআই শীর্ষ কর্তারা – রিপোর্ট যাচ্ছে দিল্লিতে – জেনে নিন বিস্তারিত

সিবিআই প্রতিনিধিদের সঙ্গে রবিবার ‘অসৌজন্যমূলক’ আচরণ, ক্ষুব্ধ সিবিআই শীর্ষ কর্তারা – রিপোর্ট যাচ্ছে দিল্লিতে – জেনে নিন বিস্তারিত

Priyo Bandhu Media

গত শুক্রবার রাজীব কুমার এর উপর থেকে হাইকোর্টের নির্দেশে গ্রেফতারি রক্ষাকবচ উঠে যাওয়ার পর সিবিআই তাঁকে তলব করে। কিন্তু রাজীব কুমার সেই তলবে হাজির হন না। উপরন্তু, সিবিআই তাঁর বাড়িতে হানা দিয়েও তাঁকে পায় না। পরিবর্তে রাজীব কুমার এর পক্ষ থেকে একটি ইমেল মারফত সিবিআইয়ের কাছে একমাস সময় চাওয়া হয়। এই ঘটনার তদন্তে রবিবার সিবিআই প্রতিনিধিরা নবান্নে যান।

নবান্নে সিবিআই প্রতিনিধিদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে সিবিআই এর তরফ থেকে। যার ফলে, সিবিআই শীর্ষ কর্তারা তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এবং এই ঘটনার রিপোর্ট দিল্লিতে পেশ করতে চলেছেন।

উল্লেখ‍্য, রাজীব কুমার ইমেইল মারফত সিবিআইকে জানিয়েছিলেন তার স্ত্রীর অসুস্থতার জন্য তিনি ছুটিতে আছেন তাই সিবিআইয়ের কাছে হাজিরার জন্য তিনি সময় চেয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী, রাজ্যের কোন আইপিএস অফিসার যদি ছুটিতে থাকেন, তাহলে রাজ্য পুলিশের শীর্ষ কর্তা বা ডিজির সেটা জানা থাকবে। এই পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার নবান্নে সিবিআইয়ের প্রতিনিধিদল চারটি চিঠি নিয়ে যান যার দুটি চিঠি ডিজিকে দেওয়া হয়। নিয়মরক্ষার্থে সিবিআই প্রতিনিধিদল নবান্নে গেলে তাদের ভিডিওগ্রাফি করা হয় তীব্র আপত্তি সত্ত্বেও।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

সিবিআই এর তরফ থেকে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলা হয়েছে, বারবার বারণ করা সত্ত্বেও তাদের ভিডিওগ্রাফি বন্ধ করা হয়নি। প্রসঙ্গত, সিবিআই এর নিয়ম অনুযায়ী তাদের কাজকর্মে গোপনীয়তা বজায় রাখতে হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে সিবিআই এর জন্য সেইটুকু সৌজন্যতাবোধ কেউ দেখায়নি নবান্নে।

তাই এবার নবান্নের ভিতরে নিয়ম লঙ্ঘন ও অসৌজন্যমূলক আচরণের ফলে, রাজ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে দিল্লিতে সিবিআইয়ের শীর্ষ কর্তারা রিপোর্ট করলেন।

রাজ্য প্রশাসনের তরফ থেকে এই ঘটনা সম্পর্কে এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে, বিরোধীদের দাবি অনুযায়ী রাজীব কুমারকে নিয়ে সিবিআই এর তৎপরতাই রাজ্য প্রশাসনের ক্ষোভের কারণ আর তাই এই দুর্ব্যবহার বলে মনে করা হচ্ছে। সিবিআই এর তরফ থেকে রাজীব কুমার এবং রাজ্য প্রশাসনের জন্য পরবর্তী পদক্ষেপ কি হতে চলেছে, তার দিকে তাকিয়ে এখন রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!