এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দলদাসে পরিণত করা হয়েছে সিবিআইকে – বড়সড় অভিযোগ রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্ট্যোপাধ্যায়ের

দলদাসে পরিণত করা হয়েছে সিবিআইকে – বড়সড় অভিযোগ রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্ট্যোপাধ্যায়ের

দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের তৃণমূল সরকারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে যে, কেন্দ্রের বিজেপি সরকার উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে সিবিআইকে লেলিয়ে দিয়ে বিরোধীদের কণ্ঠরোধ করছে। এমনকি এই ব্যাপারে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষনা করে সরব হতে দেখা গেছে তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও।

রাজ্যের শাসক দলের একাধিক নেতা থেকে মন্ত্রী-সাংসদরা গ্রেপ্তার হলে একসময় তীব্র অস্বস্তিতে পড়তে হয় ঘাসফুল শিবিরকে। আর এবারে মুখ্যমন্ত্রীরই ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত প্রযোজক শ্রীকান্ত মোহতাকে সিবিআইয়ের গ্রেপ্তারি নিয়ে তীব্র সোরগোলের সৃষ্টি হল রাজ্য রাজনীতিতে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গতকালই দীর্ঘক্ষন জেরার পর গ্রেপ্তার করা হয়েছে এই শ্রীকান্ত মোহতাকে। আর এরপরই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার এহেন বাড়বাড়ন্ত নিয়ে সরব হতে দেখা যায় রাজ্যের ঘাসফুল শিবিরকে। এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “শুধু রাজনীতিবিদদেরই নয়, সাহিত্যিক, সমাজকর্মী থেকে রাজনীতিক- কেন্দ্রের শাসকদলের সুরে কথা না বললেই তাদের কেন্দ্রীয় সংস্থা দিয়ে হেনস্থা করা হচ্ছে। যেভাবে কেন্দ্রের শাসক দল সিবিআইকে কাজে লাগাচ্ছে তা গণতন্ত্রের পক্ষে অশুভ লক্ষণ।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, শ্রীকান্ত মোহতাকে সিবিআইয়ের গ্রেপ্তারি নিয়ে তৃনমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় তেমন ভাবে মুখ না খুললেও লোকসভা নির্বাচনের আগে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কেন্দ্র তাদের তদন্তকারী সংস্থাকে দিয়ে যে বিরোধীদের কণ্ঠরোধ করছে এদিন সেই কথাটাই তুলে ধরে গেরুয়া শিবিরের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চাইলেন তিনি।

অন্যদিকে এই শ্রীকান্ত মোহতাকে সিবিআইয়ের গ্রেপ্তারি নিয়ে এদিন মাঠে নেমে পড়েছে বামেরাও। এদিন এই প্রসঙ্গে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর পাশে যে সমস্ত তারকাদের দেখা যায় তাদের ডিরেক্টর হলেন শ্রীকান্ত মোহতা। তাঁকে অনেক আগেই গ্রেপ্তার করা উচিত ছিল।”

অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ বলয়ে থাকা সংস্কৃতি জগতের সঙ্গে যুক্ত লোকেরা যেভাবে চিটফান্ড কাণ্ডে গ্রেফতার হচ্ছেন তার জবাব মুখ্যমন্ত্রীকেই দিতে হবে। বাংলার পক্ষে এটা অত্যন্ত লজ্জার বিষয়।” সব মিলিয়ে এবার প্রযোজক শ্রীকান্ত মোহতাকে সিবিআই গ্রেফতার করায় তোলপাড় হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!