এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ভোটের আগে চিটফান্ড কান্ডে সিবিআই আগ্রাসন – প্রভাবশালীরা কি ধরা পড়বেন?

ভোটের আগে চিটফান্ড কান্ডে সিবিআই আগ্রাসন – প্রভাবশালীরা কি ধরা পড়বেন?

সম্প্রতি রাজ্যের চিটফান্ড কেলেঙ্কারির ব্যাপারে তদন্তের জন্য নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। কিছুদিন আগেই কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই হানা নিয়ে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। আর লোকসভা নির্বাচনের আগে চিটফান্ড কেলেঙ্কারি নিয়ে সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে এই তদন্তে তোড়জোড় নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন রাজ্যের শাসকদলের নেতা মন্ত্রীরা।

এদিকে ইতিমধ্যেই কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে শিলংয়ে জেরা করতে শুরু করেছে সিবিআই কর্তারা। পাশাপাশি রাজীব কুমারের কাছ থেকে চিটফান্ড তদন্তে কোনো এক প্রভাবশালীর নাম বের করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বলে খবর।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

আর এখানেই অনেকের মনে জল্পনা সৃষ্টি হয়েছে যে, তাহলে কি লোকসভা নির্বাচনের আগে চিটফান্ড কাণ্ডে হেভিওয়েট কোনো প্রভাবশালী ব্যক্তিকে আটক করবে সিবিআই? শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, ভোটের মুখে চক্রান্ত করে কেন্দ্রীয় এজেন্সি লাগিয়ে দিয়ে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপি রাজ্যের উপর চাপ সৃষ্টি করছে।

এমনকি রাজ্যের কোনো হেভিওয়েট ব্যক্তিকে বা কোনো রাজনৈতিক প্রভাবশালী ব্যক্তিকেও তাঁরা চিটফান্ড কাণ্ডে হেনস্থা করতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করতে শুরু করেছে রাজ্যের শাসক দল। তবে বিজেপির তরফে অবশ্য এই সমস্ত অভিযোগকে অস্বীকার করা হয়েছে।

গেরুয়া শিবিরের মতে, যে চিটফান্ড কাণ্ডে রাজ্যের লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষ সর্বস্বান্ত হয়েছেন এবং তাঁরা নিজেদের অর্থ ফেরত পেতে যখন সরকারের দ্বারস্থ হচ্ছেন, তখন কেন্দ্রের সিবিআই তদন্ত নিয়ে এত আপত্তি কেন রাজ্যের? তাহলে কি গোড়াতেই কোনো গলদ রয়েছে!

তবে সিবিআই তদন্ত নিয়ে রাজ্য বনাম কেন্দ্রের এহেন দ্বৈরথে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের ধারণা, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই রাজ্যের চিটফান্ড কেলেঙ্কারির ব্যাপারে বেশ কিছু হেভিওয়েটকে জেরা করতে পারে। আর তাদের জেরাপর্বে সিবিআই কোনো সদুত্তর না পেলে সেই হেভিওয়েটদের অনেকেই যে আটক হতে পারেন সেই ব্যাপারে সম্পূর্ণ আশঙ্কা এখনই উড়িয়ে দিচ্ছে না ওয়াকিবহাল মহলের বিশেষজ্ঞরা। তবে এই সমস্ত জল্পনা-কল্পনা বাস্তবে ঠিক কতটা কার্যকর হয় তার জন্য তাকিয়ে থাকতেই হবে সময়ের দিকে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!