এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > সিবিআই তদন্তের দাবিতে ইসলামপুরের স্কুলের গেটে ধর্নায় মৃতদের মা, ফিরে গেলেন শিক্ষকেরা

সিবিআই তদন্তের দাবিতে ইসলামপুরের স্কুলের গেটে ধর্নায় মৃতদের মা, ফিরে গেলেন শিক্ষকেরা

গত 20 সেপ্টেম্বর ইসলামপুরের দাড়িভিট স্কুলে গন্ডগোলের ঘটনায় গুলিতে মৃত্যু হয় রাজেশ সরকার এবং তাপস বর্ম নামে দুই ছাত্রের। আর তার পর থেকেই সেই মৃত্যুর তদন্তের জন্য সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব হয়েছে মৃত ছাত্রদের পরিবার। পুলিশের গুলিতেই ছেলের মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবারের তরফে দাবি করা হলেও পুলিশ এবং সরকারের তরফ থেকে সেই সমস্ত দাবি অস্বীকার করে সিআইডি তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই এই ঘটনা নিয়ে দিল্লিতে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনে গিয়ে অভিযোগ জানান সমাজকর্মী শ্রীরুপা মিত্র চৌধুরী ও মৃত দুই ছাত্রের পরিবার। কিন্তু ঘটনার এতদিন পেরিয়ে গেলেও মানবাধিকার কমিশনের পক্ষ থেকে কাউকে ডাকা হয়নি বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

পাশাপাশি ছেলের মৃত্যুর জন্য সিবিআই তদন্তের দাবিতে গতকাল ফের সেই দাড়িভিট স্কুলের গেটে ধর্নায় বসেন নিহত ছাত্র তাপস বর্মন এবং রাজেশ সরকারের মা। সূত্রের খবর, এদিন সেই ধর্না চলাকালীন দুপুর 12 টার সময় স্কুলে যোগ দিতে আসেন পাঁচ শিক্ষক। কিন্তু ধর্না দেখে মাঠ থেকেই ফিরে যান তারা। এদিকে গন্ডগোলের এতদিন পরেও স্কুল এখনও না খোলায় আতঙ্কে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা। কারন সামনে পরীক্ষার কারনে অবিলম্বে তাঁদের রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। কিন্তু এদিন ঠিক স্কুল খুলতে এসেও কেন ফিরে গেলেন তাঁরা? এই প্রশ্নের উত্তরে দাড়িভিট স্কুলেরই এক শিক্ষক অনিল মন্ডল বলেন, “ডিআই এবং এআই স্কুলে আসতে বলেছিলেন। তাই এসেছি। কিন্তু স্থানীয়রা নিষেধ করায় আর স্কুলে ঢুকিনি।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে এইভাবে আর কতদিন নিজেদের ছেলের মৃত্যুর তদন্তের দাবিতে স্কুল গেটের বাইরে বসে ধর্না দেবেন তাঁরা? এদিন এই প্রসঙ্গে পুত্রশোকে আচ্ছন্ন মৃত তাপস বর্মনের মা মঞ্জু বর্মন এবং রাজেশ সরকারের মা ঝর্না সরকার বলেন, “সিবিআই তদন্ত শুরু না হওয়া পর্যন্ত এইভাবেই প্রতিদিন ধর্না দেব।” অন্যদিকে স্কুল খোলার ব্যাপারে কোনোও উদ্যোগ নিলে এখানে এসে তাদের সাথে আলোচনা করতে হবে প্রশাসনকে বলে দাবি জানান মৃত ছাত্রদের পরিবার। সব মিলিয়ে এখন কবে স্বাভাবিক হয় ইসলামপুরের দাড়িভিট স্কুল সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!