এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া (Page 2)

সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা খেলেন বাংলার এই বিজেপি সাংসদ, জেনে নিন

সর্বোচ্চ আদালতে বড়সড় ধাক্কা খেলেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। এইদিন তাঁর দাখিল করা পিটিশন খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন বাঁকুড়ার এই নেতা। বিজেপি থেকে তাঁকে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী ও করা হয়। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরেই সৌমিত্রের বিরুদ্ধে টেট পরীক্ষায় চাকরি

নিজেরই ১৫ মাসের ছেলেকে চুরির অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে, ঝাড়গ্রামের ঘটনায় রাজ্যজুড়ে চাঞ্চল্য

শ্বশুরবাড়িতে ঢুকে নিজের ছেলেকে চুরি করার অভিযোগ খোদ উঠল বাবার বিরুদ্ধেই। থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন 'চুরি যাওয়া' ছেলেটির মা। শনিবার দুপুরে ঝাড়গ্রাম শহরের কেশবডিহি এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। বাবা অনুমিত্র দত্ত ওরফে চন্দনের বাড়ি ঝাড়খণ্ড রাজ্যের জামশেদপুরে। ২০১৭ সালে ঝাড়গ্রাম শহরের কেশবডিহির বাসিন্দা ভাগ্যশ্রী প্রামাণিকের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল তাঁর। বিয়ের সময় অনুমিত্র

দলীয় বৈঠকে দলবদল নিয়ে হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কি বার্তা দিলেন তিনি

লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান দিলেও নিজের টার্গেট পূরণ করতে পারেননি। উল্টে বিজেপি বাংলা থেকে 18 টি আসন নিজেদের দখলে নিয়ে 22 টি আসন পাওয়া তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করে। আর এই পরিস্থিতিতে দলের খারাপ ফলাফলের পর দলের নেতাকর্মীদের একাংশ যে তলায় তলায় বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ

ঝাড়গ্রাম পুনরুদ্ধারে দলের এই নেতার ওপরই ভরসা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, জানুন বিস্তারিত

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই জঙ্গলমহলের উন্নয়নে বাড়তি জোর দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেইমতো প্রথমদিকে সেই জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে নির্বাচনে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছিল তৃণমূল। কিন্তু গত পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে এই জঙ্গলমহলে তৃণমূলের ভিত আলগা হতে শুরু করে। যেখানে প্রবল উত্থান ঘটে গেরুয়া শিবিরের। আর এবার লোকসভা নির্বাচনে সেই জঙ্গলমহলের ঝাড়গ্রাম লোকসভা কেন্দ্র হাতছাড়া হয়

সকলে বিজেপিতে কেন চলে যাচ্ছে!মন্ত্রী নেতাকে ধমক দিয়ে আসরে হাজির খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

লোকসভা ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এ শ্লোগান তুলেছিলেন। কিন্তু তার সেই স্লোগান পরিপূর্ণতা পায়নি। উল্টে মোটে 22 টি আসন দখল করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে রাজ্যের শাসক দলকে। অপরদিকে বিজেপি নিজেদের দখলে 18 টি আসন নিয়ে তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে দলের সংগঠনের হাল ফেরাতে

কাটমানি বিক্ষোভের জেরে মহাদেব শরণে তৃণমূল নেত্রী, চাঞ্চল্য এলাকায়

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবির পরই দুর্নীতি যে তার দলকে অনেকটাই গ্রাস করেছে তা বুঝতে বাকি ছিল না তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর তাই তো গত 18 ই জুন নজরুল মঞ্চে দলীয় কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে কেউ যদি কাটমানি নিয়ে থাকেন, তাহলে তিনি অতিসত্বর তা ফেরত দিয়ে দিন বলে জানিয়ে

উন্নয়ন তহবিল থেকে বিজেপির সাংসদের পাঠানো টাকা ফেরত পাঠালেন শাসক ঘনিষ্ঠ অধ্যক্ষা, তুমুল রাজনৈতিক চাপানউতোর

লোকসভা ভোটে বিজেপি বহু আসনে জয়লাভ করলেও বিভিন্ন সরকারি অনুষ্ঠানে তাদের সাংসদদের সেই ভাবে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে না বলে সম্প্রতি অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে। যে ঘটনায় শাসকের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলতেও দেখা যাচ্ছে গেরুয়া শিবিরকে। আর এবার বিষ্ণুপুরের রামানন্দ কলেজের 75 বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে কলেজের অনুষ্ঠান মঞ্চে উঠতেই দেওয়া হল

রাজ্যে ফের তৃণমূলের ঘর ভাঙলো, বিজেপিতে যোগ দিলেন নেত্রী,জেনে নিন

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই ভাঙ্গন অব্যাহত তৃণমূল কংগ্রেসে। প্রায় প্রত্যেকদিনই ছোট বড় নেতা ও কর্মী সমর্থক শাসকদল থেকে পাড়ি জমাচ্ছেন বিজেপিতে।সেই ধারা বজায় রেখে সোমবার জোড়া ফুল ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখালেন বাঁকুড়ার ওন্দার কল্যানী গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধান রীণা শর্মা সহ ছয় সদস্য। ফলে ৯ সদস্যের এই গ্রাম পঞ্চায়েতটি

“করে খাওয়ার দল, শৃঙ্খলাহীন” বলে তৃণমূলকে তোপ দেগে বিজেপিতে যোগ সংখ্যালঘু হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার, জোর চাঞ্চল্য রাজ্যে

এবারের লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার টার্গেট পূরণ করতে পারেননি। 42 এ 42 এর শ্লোগান দিলেও তৃণমূলের দখলে এসেছে মোটে 22 টি আসন। আর রাজ্যে তৃণমূলের এই ভরাডুবির পরই দিকে দিকে শাসক দলের একাধিক জনপ্রতিনিধিরা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেছেন। আর এবার শাসকদলের অস্বস্তিকে আরও দ্বিগুনভাবে বাড়িয়ে দিয়ে বাঁকুড়ার সোনামুখী

ঘরের ছেলেরা ফিরছে ঘরে, মন্ত্রীর হাত ধরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ, খুশির হাওয়া শাসক শিবিরে

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ভালো ফল করার পরই দিকে দিকে শাসক দলের সংগঠনে ভাঙ্গন ধরতে শুরু করে। তৃণমূল ছেড়ে প্রচুর নেতা, কর্মী এমনকি বিধায়করাও বিজেপিতে নাম লেখান। কিন্তু এবার যেন পরিস্থিতির পরিবর্তন হতে শুরু করল। তাদের ছেড়ে চলে যাওয়া তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা ফের তৃণমূলে ফিরে আসতে শুরু করল বলে দাবি শাসক

Top
error: Content is protected !!