এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া (Page 2)

বাঁকুড়ায় গেরুয়া মাটিতে পদের দাবিদার একাধিক! গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ক্রমশ তীব্র হওয়ার আশঙ্কায় বিজেপি

  লোকসভায় লাল মাটিতে বিজেপি পদ্ম ফোটাতে সক্ষম হয়েছিল। কিন্তু দল সাফল্য পাওয়ার পরই বিজেপির অন্দরে পদ পাওয়া নিয়ে যেভাবে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে, তাতে গেরুয়া শিবির কতটা কুসুমাস্তীর্ণ পথে চলতে পারবে, তা নিয়ে সংশয় রয়েই যাচ্ছে। জানা গেছে, শারদ উৎসবের আগেই বাঁকুড়া জেলায় বুথ সভাপতি এবং শক্তি কেন্দ্রের নির্বাচন প্রক্রিয়া শেষ

সব ঝামেলা মেটাতে অবশেষে মদনকেই বেছে নিয়ে দায়িত্ব দিল তৃণমূল! খুশির হাওয়া অনুগামীদের

  দলের কাউন্সিলরদের তার প্রতি অনাস্থার জেরে প্রবল সমস্যা তৈরি হয়েছিল তৃণমূল পরিচালিত রঘুনাথপুর পৌরসভায়। চেয়ারম্যান ভবেশ চট্টোপাধ্যায়কে তাঁর পদ থেকে সরানোর জন্য নাছোড়বান্দা হয়ে পড়েছিলেন তৃণমূল কাউন্সিলররা। যার পরিপ্রেক্ষিতে গত 7 নভেম্বর শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে পদ থেকে ইস্তফা দেন সেই ভবেশ চট্টোপাধ্যায়। পরবর্তীতে গত 15 নভেম্বর এই রঘুনাথপুর পৌরসভার

বিজেপি সাংসদের রাজনৈতিক হুমকির জেরে বিতর্ক, সমালোচনায় মুখর রাজনৈতিক মহল

লোকসভা নির্বাচনের প্রাক পর্ব থেকেই পশ্চিমবঙ্গের দুই যুযুধান রাজনৈতিক শিবির তৃণমূল ও বিজেপির মহাযুদ্ধ দেখে চলেছে রাজনৈতিক মহল। একে অপরের বিরুদ্ধে বিষোদগার এর মাত্রা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। এর সাথে চলছে প্রবলভাবে হুমকি হুঁশিয়ারি দুই পক্ষেই। সম্প্রতি বীরভূম দলের বিজেপির জেলা সম্পাদক ও বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সহ-সভাপতিকে বিস্ফোরণের ঘটনায় পুলিশ

বিজেপি সাংসদ স্বামীর সরকারি গাড়ি ব্যবহার করে বিতর্কে জড়ালেন বিজেপি সাংসদ পত্নী

সাধারণত এমপিদের জন্য বরাদ্দ গাড়িতে এমপিরাই চড়তে পারেন। প্রয়োজনে অফিশিয়ালি কাউকে সাথে নিতে পারেন। কিন্তু এমপির গাড়িটি যদি নিজস্ব কাজের জন্য কেউ ব্যবহার করেন, তাহলে তা আইন যোগ্য অপরাধ বলেই ধরা হবে। সম্প্রতি এমপির গাড়ি ব্যবহার করার জন্য বিতর্কে জড়ালেন সাংসদ পত্নী। বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের গাড়ি নিজস্ব কর্মসূচিতে

ট্যাগড

এবার বিজেপির জেলা কার্যালয় তৈরীর কাজ বন্ধ করে দিল প্রশাসন! শুরু তীব্র জল্পনা

  এবার বিজেপিকে চাপে রাখতে তাদের দলীয় কার্যালয় নির্মাণ বন্ধ করে দিল পৌরসভা। যে ঘটনায় এখন ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বাঁকুড়া এলাকায়। লোকসভা নির্বাচনের পর দিনকে দিন বিজেপির উত্থান বাড়তে শুরু করেছে। সারা রাজ্যের পাশাপাশি জঙ্গলমহলের সন্নিবিষ্ট এলাকাগুলিতেও বিজেপির দাপট চোখে পড়ার মত। আর এই পরিস্থিতিতে প্রায় প্রতিদিনই নিজেদের সংগঠন বাড়াতে নানা পরিকল্পনা

এবার চাকরির সুযোগ পুরুলিয়াবাসীর কাছে, জেনে নিন বিস্তারিত

রাজ্য সরকার আবার এনে দিচ্ছে চাকরির সুযোগ। এবার বেকারত্ব থেকে মুক্তি দিয়ে কর্মসংস্থানের পথে এগিয়ে চলেছে রাজ্য সরকার। আবারও একবার কাজের সুযোগ পেতে চলেছে রাজ্যের বেকার যুবক যুবতীরা। 2021 এর বিধানসভা ভোটের দিকে তাকিয়ে রাজ্যের মন পেতে আরো একবার জনমোহিনী সিদ্ধান্ত তৃণমূল সরকারের। এবার বিজ্ঞপ্তি জারি করে পুরুলিয়া প্রশাসনিক দপ্তর

ট্যাগড

হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার পদত্যাগপত্র গৃহীত! জল্পনা সর্বস্তরে

  দীর্ঘদিন ধরেই জল্পনা চলছিল। অবশেষে শুক্রবার বোর্ড অফ কাউন্সিলের বৈঠকে পদত্যাগপত্র গৃহীত হল পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান ভবেশ চট্টোপাধ্যায়ের। বস্তুত, এই রঘুনাথপুর পৌরসভার তৃণমূলের অধিকাংশ কাউন্সিলার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে দলের শৃঙ্খলা নষ্ট যাতে না হয়, তার জন্য তড়িঘড়ি চেয়ারম্যান এবং কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে বসেন জেলা এবং রাজ্য

জঙ্গলমহলের ভোটব্যাঙ্ক ফিরিয়ে আনতে এবার উৎসবেই 6 কোটি টাকা খরচ রাজ্য সরকারের

  2011 সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় আসার পরই জঙ্গলমহলে শান্তি স্থাপন করতে উদ্যোগী হন। মাওবাদী উপদ্রুব এলাকায় বিভিন্ন রকম প্রকল্প এনে সেখানকার মানুষদের মন জয় করেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান। যে জঙ্গলমহলের মানুষ এককালে সকালে চোখ খুললেই রক্ত দেখতে পেতেন, সেই জঙ্গলমহলে শান্তি ফিরিয়ে এনেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে সেখানে

ছাত্র নির্বাচন নিয়ে এবার মাঠে নামল তৃণমূল, জেনে নিন

দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ছাত্র সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় না। যার ফলে বিরোধী ছাত্র সংগঠনগুলোর তরফে কলেজ ক্যাম্পাসে নানা সময় নানা অভিযোগ তুলে আন্দোলন করতে দেখা গেছে। তবে তিন বছর ধরে রাজ্যের কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ছাত্র সংসদ নির্বাচন না হলেও অবশেষে এই নির্বাচন প্রক্রিয়া করানোর ব্যাপারে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছে রাজ্য

প্রশাসন মনোভাব না পাল্টালে তাহলে বাংলায় আন্দোলনের আগুন জ্বলবে – তীব্র হুঁশিয়ারি বিজেপি সাংসদের

  রাজ্যের প্রশাসন তৃণমূল কংগ্রেসের দলদাসে পরিণত হয়ে গিয়েছে বলে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ করতে দেখা যায় বিজেপিকে। এমনকি এই অভিযোগ তুলে মাঝেমধ্যেই প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করতেও দেখা যায় বিজেপির রাজ্য নেতাদের। যা নিয়ে শাসক-বিরোধী তরজায় মাঝেমধ্যেই উত্তাল হয়েছে রাজ্য রাজনীতি। তবে এবার পুরুলিয়া জেলা প্রশাসনের বিরুদ্ধে সরব হয়ে জেলা এবং রাজ্য

Top
error: Content is protected !!