এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ

পায়ের তলায় হারিয়ে যাওয়া মাটি ফেরাতে দলীয় কর্মীদের বড়সড় নির্দেশ সুব্রত বক্সীর

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে বাংলায় অনেকটাই বেগ পেতে হয়েছে। 2014 তারা 34 টা আসন পেলেও 2019-এ এসে তৃণমূলের আসন সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে 22 টিতে। অপরদিকে বিজেপি বাংলা থেকে 18 টা আসন নিজেদের দখলে রেখেছে। যার পরে আগামী 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির বাড়বাড়ন্ত ঠেকাতে এবং আরও একবার রাজ্যের ক্ষমতা দখল

বিজেপিতে যোগ দিতেই প্রশাসনিকভাবে যে অবস্থা হল হেভিওয়েট তৃণমূল নেত্রীর, জানলে চমকে যাবেন

লোকসভা নির্বাচনে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল পরাজিত হওয়ার পরই জেলা সভাপতি পদ থেকে বিপ্লব মিত্রকে সরিয়ে দেওয়া হলে তিনি দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি সহ 10 জন সদস্যকে নিয়ে বিজেপিতে নাম লেখান। আর এরপরই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ তৃণমূল থেকে বিজেপির দখলে চলে আসে। তারপর আত্রেয়ী দিয়ে অনেক জল গড়িয়ে

উত্তরবঙ্গের উন্নয়নের জন্য বিজেপি সাংসদ আসরে নামতেই, রাজনীতির অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গ থেকে একটি আসনও তৃনমূল নিজেদের দখলে রাখতে পারেনি। সেখানকার আটটির মধ্যে সাতটি আসনই দখল করেছে বিজেপি। যার পরেই সেই উত্তরবঙ্গের যে সমস্ত জায়গায় বিজেপি সাংসদরা জয়লাভ করেছে, সেই সমস্ত জায়গার উন্নয়নের মাধ্যমে মানুষের কাছে আরও বেশি করে পৌঁছতে উদ্যোগী হয়েছে বিজেপি সাংসদরা। সূত্রের খবর, আলিপুরদুয়ার লোকসভা

সংগঠনে বদল আনতেই ভেঙে তছনছ সব কমিটি! বিদ্রোহীদের মান ভাঙাতে আসরে হেভিওয়েট মন্ত্রী

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় তৃণমূল পর্যুদস্ত হওয়ার পর বিভিন্ন জেলার সংগঠনের পরিবর্তন আনেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে জেলা সভাপতি পদে তৃণমূল নেত্রী বদল আনলে বিভিন্ন জেলার সংগঠনে নতুন মুখদের দেখতে পাওয়া যায়। যার ফলে দলের অন্দরে তৈরি হয় বিভ্রান্তি। সম্প্রতি জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন কিষাণ কুমার কল্যাণী। আর

হেভিওয়েট পুরসভায় চরমে শাসক দলের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব – চূড়ান্ত অস্বস্তিতে তৃণমূল

যত সময় যাচ্ছে, ততই যেন জটিল পরিস্থিতি হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত মালদহের ইংরেজবাজার পৌরসভার। লোকসভা নির্বাচনের খারাপ ফলাফলের পর দলীয় স্তরে দ্বন্দ্ব কমানোর নির্দেশ দেওয়া হলেও এই পৌরসভায় শাসকদলের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব যেন কমছে না কিছুতেই। জানা গেছে, বর্তমানে এই পৌরসভার চেয়ারম্যান নীহার রঞ্জন ঘোষের সঙ্গে একাধিক কাউন্সিলরের দূরত্ব তৈরি হয়েছে। আর

এবার ছাত্র সমাবেশে জেলা নেতাদের জমায়েত করানোর লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিল তৃণমূল, জেনে নিন

কিছুদিন আগেই তৃণমূলের শহীদ সমাবেশ একুশে জুলাই সমাপ্ত হয়েছে। লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে সেই একুশে জুলাই উত্তরবঙ্গ থেকে খুব একটা ভালো জনসমাগম করতে পারেনি শাসকদল। তবে এবার একুশে জুলাই যেতে না যেতেই তৃণমূলের ছাত্র সংগঠন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের আগামী 28 আগস্ট প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মেয়ো রোডে ছাত্র সমাবেশকে বড় আকার

নেত্রীর নির্দেশ অমান্য করে ‘বদলা’র ডাক দিলেন তৃণমূল বিধায়ক, জল্পনা তুঙ্গে

2011 সালে বামেদেরকে সরিয়ে ক্ষমতায় বসে তৃণমূল কংগ্রেস। দীর্ঘদিন ধরে বিরোধী আসনে থাকা তৃণমূলের নেতারা তখন বামেদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার আগুনে ফুঁসছিল। কিন্তু সেই সময় তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর দলের সমস্ত নেতাকর্মীদের হাত বেঁধে রেখেছিলেন। "বদলা নয়, বদল চাই" স্লোগান দিয়ে বিরোধীরা যদি কোন রকম অশান্তিও করে, তাহলে

গোষ্ঠীকোন্দল মেটাতে নেতা-মন্ত্রীকে ডেকে বৈঠকের পরেও সমাধান সূত্র মিলল কি তৃণমূলে?

কিছুদিন আগেই জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূল সভাপতি পদে বদল ঘটায় তৃনমূল। কৃষ্ণকুমার কল্যানীকে নতুন সভাপতি পদে নিয়োগ করা হয়। আর তারপরই এই ব্যাপারে কিছুটা উষ্মা প্রকাশ করতে দেখা যায় জলপাইগুড়ি পৌরসভার চেয়ারম্যান মোহন বসুকে। যেখানে তিনি বলেছিলেন, "দল যখন সিদ্ধান্ত নিয়েছে তখন নিশ্চয়ই ভালো হবে। তবে জলপাইগুড়ি জেলার চা শ্রমিকদের মধ্যে

বিজেপির পুরোনো কর্মীদের জন্য সুখবর, জেনে নিন

লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপি ভালো ফলাফল করার পরই দিকে দিকে তৃণমূল থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা-কর্মীরা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেন। যার ফলে বিজেপি বহরে বাড়তে শুরু করলেও দলে অনেক বেনোজল ঢুকছে বলে সোচ্চার হয়েছিলেন আদি বিজেপি নেতা কর্মীরা। সম্প্রতি দু'দিনব্যাপী রাজ্য বিজেপির চিন্তন বৈঠক শেষ হয়েছে। যেখানে বিজেপিতে আসবার জন্য

ট্যাগড

খুশির ঈদের অনুষ্ঠান মঞ্চে নামাজ! জলপাইগুড়ির ঘটনা শুনলে আপনার চোখেও জল আসবে

ভারত বর্ষ ধর্মনিরপেক্ষ দেশ। এখানে নানা ধর্ম, নানা বর্ণের মানুষ একত্রে বসবাস করে। হিন্দুরা যেমন দুর্গাপুজোতে আনন্দ করে, ঠিক তেমনই মুসলমানরা ঈদে তাদের উৎসব পালন করে। নিজ ধর্মকে সম্মান করেন না এমন ব্যক্তি খুব কমই খুঁজে পাওয়া যাবে এই ভারতভূমিতে। গতকাল সারা দেশ জুড়ে মহাসমারোহে ঈদ পালিত হয়েছে। আর এই ঈদ

Top
error: Content is protected !!