এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ

দার্জিলিং লোকসভা ধরে রাখতে বিজেপির এখনো ভরসা বিমল গুরুং, তাঁকে ঘিরে অভিনব পরিকল্পনাতেই বাজিমাতের চেষ্টা

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বিমল গুরুংয়ের ভাবমূর্তিকে সামনে রেখেই পাহাড়ে পদ্মফুল ফোটাতে মরিয়া বিজেপি। আর সেজন্যেই বিমল গুরুংয়ের সঙ্গে অডিও এবং ভিডিও নিয়ে দার্জিলিং আসনের জন্যে প্রচারে নামার পরিকল্পনা করেছে বিজেপি,এমনকি বিমল গুরুংকে সশরীরে পাহাড়ে প্রচারের জন্যে আনার চেষ্টাও চালিয়ে যাচ্ছে তাঁরা,এমনটাই খবর বিজেপি সূত্রের। অবশ্য এ নিয়ে আগ বাড়িয়ে এখনই কিছু

মানুষের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিনতে আর বাকি নেই! ওঁর খুব তাড়াতাড়ি চিকিৎসা করানো প্রয়োজন: লকেট চট্টোপাধ্যায়

বরবারই তৃণমূল কংগ্রেস এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের সুর চড়া করে রাজ্যরাজনীতিতে শোরগোল ফেলেছেন বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে তাঁর বিষ্ফোরক মন্তব্য সবসময়ই নজর কেড়েছে সমালোচকমহলের। পুলওয়ামার মর্মান্তিক হামলার ঘটনার প্রেক্ষিতেও সরাসরি তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিঁধতে ছাড়লেন না তিনি। "পুলওয়ামার ঘটনায় গোটা

জেতার সম্ভাবনা অত্যন্ত উজ্জ্বল বলেই কি বালুরঘাট নিয়ে দড়ি টানাটানি শুরু হেভিওয়েট বিজেপি নেতাদের মধ্যে?

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বালুরঘাট কেন্দ্রে বিজেপির তরফ থেকে প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে সামিল হতে চান অনেকেই। বেনজিরভাবে এব্যাপারে ১০০ টিরও বেশি আবেদন জমা পড়েছে বিজেপি দপ্তরে। রাজ্যস্তরে পাঠানো সেইসব আবেদনকারীর তথ্য দিল্লিতে পাঠানো হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে বিজেপি সূত্র থেকে। এইসব আবেদনকারীদের তথ্য সংগ্রহের পাশাপাশি জেলায় তাঁদের প্রভাব কতটা তা খতিয়ে দেখে

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশকে উপেক্ষা করেই মাধ্যমিকের মাঝেই হেভিওয়েট মন্ত্রীর সভায় তারস্বরে মাইক! তীব্র সমালোচনা বিরোধীদের

নিয়মের তোয়াক্কা না করে মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন ধুপগুড়িতে অডিটোরিয়ামের জমির শিলান্যাস অনুষ্ঠানে জোরে মাইক বাজানোর অভিযোগ উঠল ধুপগুড়ি পৌরসভার বিরুদ্ধে। ওদিকে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। গতকাল দুপুর দুটো নাগাদ ধুপগুড়ি ২ নম্বর ব্রিজ সংলগ্ন পৌরসভার জমি তথা অডিটোরিয়ামের প্রস্তাবিত জমির আনুষ্ঠানিকভাবে শিলান্যাসের পাশাপাশি ভূমিপুজোও করেন।

জেলার পদস্থ নেতৃত্বদের উদেশ্যে একাধিক প্রশ্ন করতেই মেজাজ হারিয়ে সভাপতিকে ধমক মন্ত্রীর

ফের একবার জেলা তৃণমূলের পদস্থ নেতৃত্বরা রাজ্য নেতৃত্বের ধমকের মুখে পড়লেন। দার্জিলিং জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের ৪২ নম্বর বুথভিত্তিক সাধারণ সভা চলাকালীন জেলা নেতৃত্বদের প্রশ্নের বহর শুনে মেজাজ ধরে রাখতে পারলেন না জেলা সভাপতি গৌতম দেব। ধৈর্য্য হারিয়ে ধমক দিতে শুরু করেন বুথ সভাপতি শ্যামল বর্মনকে। পাশাপাশি কড়া ভাষায় এই সভায় আর

কুচবিহার লোকসভা আসনে বিজেপির প্রার্থী হিসাবে শিকে ছিঁড়বে কার ভাগ্যে? শুরু চূড়ান্ত জল্পনা

কোচবিহারে সংরক্ষিত আসনে কে হবে লোকসভা ভোটের যোগ্য প্রার্থী? আপাতত এই প্রশ্নই রাতের ঘুম কাড়ছে উত্তরবঙ্গের গেরুয়াশিবিরের। যোগ্য প্রার্থী তালিকায় একাধিক নাম উঠে এলেও কাকে নির্বাচন করা হবে তা নিয়ে কার্যত নাস্তানাবুদ অবস্থা জেলা বিজেপি শিবিরের। দলের নীচু তলার নেতা-কর্মীদের বক্তব্য,বহুবার এমনটা হয়েছে শেষ মুহূর্তে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের চেনা মুখকেই প্রার্থী হিসাবে

লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপির ‘নিশ্চিত’ আসনে প্রার্থী কে? তীব্র জল্পনা দলের অন্দরেই

লোকসভা ভোটের ঢাকে কাঠি পড়তেই প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে হুলুস্থুল কাণ্ড বেঁধে গেল গেরুয়াশিবিরে। নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর অনুযায়ী,ভোটের আর তিন-চার মাস বাকি। এই অবস্থায় প্রার্থী নির্বাচন করেই শেষ পর্বের প্রস্তুতি নিতে ময়দানে ঝাঁপিয়ে পড়তে চাইছে বিজেপি। আর সেজন্যেই আসন্ন লোকসভা ভোটে আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী কে তা নিয়ে জল্পনা শুরু

শুভেন্দু অধিকারীর পরিকল্পনায় ভর করে শাসকদলের অন্দরে লোকসভা ভোটের চূড়ান্ত প্রস্তুতি শুরু হয়েই গেল

লোকসভা ভোটকে টার্গেট করেই উত্তরবঙ্গে সংগঠন মজবুত করার কর্মসূচিতে কোমর বেঁধে আসরে নেমেছে তৃনমূল। দলের জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারীর পরিকল্পনামতোই ব্লকে ব্লকে নির্বাচনী প্রচার সভা শুরু করেছে শাসকদলের কর্মী সমর্থকরা। আর সেজন্যে এদিন রায়গঞ্জে ব্লকে শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বেই প্রথম নির্বাচনী প্রস্তুতি সভা হল এদিন। জেলা ও ব্লক স্তরের নেতাদের পাশাপাশি

উন্নয়ন নয়, গুলি-খুনের সন্ত্রাস আর ভয় – লোকসভা নির্বাচনের আগে মূল কথা এই আসনে!

বিগত পঞ্চায়েত ভোটে গুলি, খুন ও সন্ত্রাসের ঘটনার আতঙ্ক এখনও ভুলতে পারেননি আলিপুরদুয়ার বিধানসভা এলাকার বাসিন্দারা। আর তাই বিগত পঞ্চায়েতের সেই আতঙ্কের রেশ আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে এই এলাকার মানুষদের মধ্যে জাঁকিয়ে বসেছে। বিরোধী দলগুলোর তরফে কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে নির্বাচন করানোর দাবি তোলা হলেও শেষ পর্যন্ত সেই কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকা সত্ত্বেও

আজকের মতো রাজীবের জেরা সমাপ্তি হলেও কাল ফের তলব, শেষ হয়েও হচ্ছে না শেষ

এ যেন একটা ছোটগল্প হয়ে যাচ্ছে রাজীবের জীবনে কবি এর হানা। কিছুতেই শেষ হয়েও শেষ হচ্ছে না। জানা যাচ্ছে যে আজকের মতো যাত্রা শেষ আর তাই আজ সন্ধে সাতটা নাগাদ সিবিআই অফিস থেকে বের হন রাজীব বাবু। কিন্তু ছাড় নেই এখনই কালকেও জেরার মুখোমুখি হতে চলেছেন তিনি। সিবিআই কালকেও তাঁকে

Top
Close
error: Content is protected !!