এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর

ফের বিজেপিতে বড় ভাঙ্গন, জোর অস্বস্তি গেরুয়া শিবিরে !

  লোকসভা নির্বাচনের পর বিজেপিতে অন্য দল থেকে যোগদানের হিড়িক পরে গিয়েছিল। কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি পাল্টাতে শুরু করেছে। এবার বিজেপি ছেড়ে প্রচুর কর্মীর তৃণমূলে যোগদানে চরম অস্বস্তিতে পড়ল গেরুয়া শিবির। সূত্রের খবর, সোমবার মেদিনীপুর শহরের কেশিয়াড়ির একাধিক বিজেপি নেতা ঘাসফুল শিবিরে নাম লেখান। যাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন জেলা তৃণমূল

বিজেপির বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা,রাজ্য রাজনীতিতে চাঞ্চল্য

ইসলাম সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জী নিয়ে দেশজুড়ে তুমুল আন্দোলন চলছে। এ রাজ্যে প্রথম দিন থেকেই তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নাগরিকত্ব ইস্যুতে রাজপথে নেমেছেন আন্দোলন করতে। আন্দোলনের পর্ব বাড়াবাড়ি পর্যায়ে পৌঁছাতেই বিজেপির পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষকে নাগরিকত্ব আইন সম্পর্কে বোঝানোর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে এনআরসি, সিএএ নিয়ে  বিজেপির

 নন্দীগ্রামে শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ দিলীপের, পাল্টা তৃণমূল! জোর শোরগোল

  তৃণমূল শুভেন্দু অধিকারীকে দিলীপ ঘোষের কেন্দ্র বলে পরিচিত খড়গপুর পুনরুদ্ধারে দায়িত্ব দেওয়ার পর থেকেই দিলীপ ঘোষ বনাম শুভেন্দু অধিকারীর লড়াই চরম আকার ধারণ করে। আর খড়্গপুরের দায়িত্ব নেওয়ার পরই দিলীপ ঘোষকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কিছুদিন আগেই অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া বিধানসভা উপনির্বাচনে সেই খড়গপুর তৃণমূলের দখলে আনতে সক্ষম হন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু

নন্দীগ্রামে উলটপুরান, এবার প্রচার করতে গিয়ে জোর বাধা পেলেন দিলীপ ঘোষ!

  বর্তমানে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের আমলে বিরোধীরা মিটিং-মিছিল করার কোনো সুযোগ পায় না বলে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ করতে দেখা যায় বিরোধী দল বিজেপিকে। শুধু তাই নয়, রাজ্যে গণতান্ত্রিক পরিবেশ ধুলুন্ঠিত বলেও অভিযোগ করে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু একসময় যে নন্দীগ্রামে গণতান্ত্রিক অধিকারের আন্দোলন বিগত বাম সরকারের সময় করে এসেছিল তৃণমূল

তৃণমূলের দুই প্রবীণ নেতা তথা সংসদ ও বিধায়কের চাপানউতোরে, এবার বড়সড় অস্বস্তিতে শাসক শিবির

তৃণমূলের দুই প্রবীণ নেতা এগরার তৃণমূল বিধায়ক সমরেশ দাস ও শিশির অধিকারীর চাপানউতোরে, এবার বড়সড় অস্বস্তিতে শাসক শিবির। জানা যাচ্ছে , তাদের মধ্যে দুরুত্ত্ব এতটাই বেড়েছে যে নিমন্ত্রিত অনুষ্ঠানেও আর একসঙ্গে দেখা যাচ্ছে না। এগরা-২ ব্লক কৃষি মেলার উদ্বোধক হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন শিশির অধিকারী ও বিধায়ক সমরেশ দাস । সেদিন মেলার

রাজ্য বিজেপি সভাপতিকে তীব্র আক্রমণ পরিবণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর,ভোট তরজায় মুখর কাঁথি

রাজ্য বিজেপির আগামী লক্ষ্য হচ্ছে 2021 এর পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা দখল। আর সেই লক্ষ্য পূরণ করতে গিয়ে রাজ্য বিজেপি বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যে হয়ে গেছে অবশ্য উপনির্বাচন। কিন্তু উপনির্বাচনে রাজ্যের তিনটি জায়গা থেকে বিজেপি অনেকটাই পিছিয়ে পড়ে। কিন্তু উপনির্বাচনে হারলেও সামনের বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কিছুদিন আগেই মেদিনীপুরের

এবার এই পৌরসভা এল তৃণমূলের দখলে? অস্বস্তি বিজেপির অন্দরে!

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই বিজেপির প্রভাব-প্রতিপত্তি রাজ্যে বেড়ে ওঠায় অনেক পৌরসভার তৃণমূলের কাউন্সিলররা বিজেপিতে যোগ দেন। যার ফলে অনেক পৌরসভা তৃণমূলের দখলে থাকলেও, তা গেরুয়া শিবিরের দখলে ধীরে ধীরে চলে যায়। তবে সম্প্রতি অবস্থার পরিবর্তন হতে শুরু করেছে। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া কাউন্সিলররা ফের ফিরে আসতে চলেছেন তৃণমূল কংগ্রেস। হাত থেকে

নেতাই নিয়ে অস্বস্তি তৃনমূলের! জেনে নিন বিস্তারিত

  নেতাই দিবসের দিন শহীদ স্মরণ মঞ্চে কার্যত কোনরকম আসন ছাড়াই দাঁড়িয়ে থাকতে হল তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদেরকে। পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের ক্ষমতায় আসার পিছনে সিঙ্গুর-নন্দীগ্রামের যতটা গুরুত্ব রয়েছে, অনেকটা সেই রকমই গুরুত্ব রয়েছে নেতাই গ্রামের। বামফ্রন্ট আমলে সেই সময়কার নেতাই গণহত্যা রীতিমত আলোড়ন সৃষ্টি করে দিয়েছিল রাজ্য তথা দেশীয় রাজনীতিতে। বস্তুত,

পুরভোটে তৃণমূলকে হারাতে অতীতের কথা ধরলেন দিলীপ ঘোষ

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় ভালো ফল করলেও, যত দিন যাচ্ছে ততই তাদের অবস্থা খারাপ হতে শুরু করেছে। বর্তমানে নাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যু নিয়ে তৃণমূলের প্রচারে বিজেপি কিছুটা হলেও ব্যাকফুটে চলে গিয়েছে। আর এই পরিস্থিতিতে 2021 এ বাংলাকে দখল করার টার্গেট নেওয়া বিজেপিকে পৌরসভা নির্বাচনে ভালো ফল করতেই হবে, তা বুঝতে পেরেছে

এবার আবার বিজেপি শিবিরে বিশাল ভাঙন, নেতাদের কপালে চিন্তার ভাঁজ

2019 এর লোকসভা নির্বাচনের পরে বিজেপি দলে যোগ দেওয়ার প্রবণতা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেয়েছিল। অন্যান্য দল ও তৃণমূল থেকে বহুল পরিমাণে সদস্যরা এসে বিজেপিতে যোগদান করেন। ফলে রাজ্যের বহু পুরসভা, পঞ্চায়েতের রং বদলে যায়। তবে বর্তমানে বেশ কিছুদিন ধরেই বিজেপি থেকে শাসক দলে ফিরতে শুরু করেছে দলবদলকারী  নেতা-নেত্রীরা। এর ফলে বিজেপি

Top
error: Content is protected !!