এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর

  সিপিএমের হাত ধরে তৃনমূলকে “উৎখাত” করল বিজেপি! তীব্র চাঞ্চল্য রাজ্য – রাজনীতিতে

এবার তৃণমূলকে সরাতে সিপিএমের সাহায্য নিল গেরুয়া শিবির। বামেদেরকে সঙ্গে নিয়ে দাঁতন বিধানসভা কেন্দ্রের মোহনপুরে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক দলীয় কার্যালয় দখল করার অভিযোগ উঠতে শুরু করল বিজেপির বিরুদ্ধে।তবে দলীয় কার্যালয় দখলের পাশাপাশি তৃণমূলের কর্মীদের এলাকায় চাষও করতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। যে ঘটনায় এখন তীব্র

বিধানসভার ওপিনিয়ন – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হতে পারে পশ্চিম-মেদিনীপুর জেলার চিত্র?

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ - সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর - আরও জমজমাট বঙ্গভূমির রাজনৈতিক লড়াই। একদিকে, লোকসভায় ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়ে গেরুয়া শিবির তাল ঠুকছে, এবার তাদের লক্ষ্য নবান্নের অধিকার ছিনিয়ে নেওয়া। অন্যদিকে, স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধরেছেন দলের সাংগঠনিক হাল, সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রশান্ত কিশোরের মস্তিস্ক। এই পরিস্থিতিতে নিঃসন্দেহে

মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠকেও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চরমে, শিশির-সোমনাথের ঠান্ডা লড়াইয়ে জল্পনা

লোকসভা নির্বাচনে দুর্নীতি এবং জনসংযোগের অভাবের জন্য তৃণমূলের ফলাফল অনেকটাই এরাজ্যে খারাপ হয়েছে। যার ফলে বিভিন্ন জায়গায় উত্থান ঘটেছে গেরুয়া শিবিরের। তবে তৃণমূলের শক্ত গড় হিসেবে পরিচিত অধিকারী গড়ে জয়লাভ করেছে শাসকদল। অনেকে বলছেন, দুর্নীতি এবং জনসংযোগের অভাবের পাশাপাশি দলীয় স্তরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বও এবার তৃণমূলকে অনেকটাই ডুবিয়ে দিয়েছে। আর এবার সেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের

বিধানসভার ওপিনিয়ন – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হতে পারে পূর্ব-মেদিনীপুর জেলার চিত্র?

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ - সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর - আরও জমজমাট বঙ্গভূমির রাজনৈতিক লড়াই। একদিকে, লোকসভায় ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়ে গেরুয়া শিবির তাল ঠুকছে, এবার তাদের লক্ষ্য নবান্নের অধিকার ছিনিয়ে নেওয়া। অন্যদিকে, স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধরেছেন দলের সাংগঠনিক হাল, সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রশান্ত কিশোরের মস্তিস্ক। এই পরিস্থিতিতে নিঃসন্দেহে

কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে এবার গণপিটুনির শিকার তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার ভাই, জোর চাঞ্চল্য

"জনতার মার কেওড়াতলা পার" - এই শব্দটা অনেক ক্ষেত্রেই নানা সিনেমার দৌলতে আমরা শুনেছি। কিন্তু কখনও তা পরখ করা হয়ে ওঠেনি। কিন্তু এবার কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে সেই জনতার হাতে বেধড়ক মার খেতে হল তৃণমূল নেতার ভাইকে। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই দুর্নীতিই যে এই খারাপ ফলাফলের পেছনে

গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমেই আবার ঘুরে দাঁড়াবে তৃণমূল, আশায় বিভোর শুভেন্দু অধিকারী

লোকসভা ভোটের ফলাফলের নিরিখে তৃণমূল এরাজ্যে কিছুটা খারাপ ফল করলেও তৃণমূল রাজনৈতিক ভাবে ঘুরে দাঁড়াবে। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই এই ঘুরে দাঁড়ানোর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে বলে জানান রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। ১৯৪২-এ সারা দেশের মানুষ আওয়াজ তুলেছিলেন ব্রিটিশ ভারত ছাড়ো। আর তারই অনুকরণে গতবছর ৯-ই আগষ্ট বিপ্লবীদের তীর্থভূমি মেদিনীপুর

চূড়ান্ত জোট-রফা লড়াই ভুলে বিধানসভা উপনির্বাচনের ফর্মূলা “রেডি” বামফ্রন্ট – কংগ্রেসের

জোটের ব্যাপারে এখনও বাম-কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের মধ্যে বৈঠক সম্পন্ন হয়নি। তবে গত লোকসভা নির্বাচনে জোট না করে যে ভুল তারা করেছিল, তা থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার পরবর্তী নির্বাচনগুলিতে যাতে সমঝোতা করে এগোনো যায়, সেই ব্যাপারে একপ্রকার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পথে এগিয়ে গেল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট এবং বিধান ভবন। সূত্রের খবর, সামনেই রাজ্যের যে

উলটপুরান রাজ্যে, এবার কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে

লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনুধাবন করতে পেরেছিলেন যে দলের রন্ধ্রে রন্ধ্রে দুর্নীতি জাঁকিয়ে বসেছে। আর তাই তো সেই দুর্নীতিকে বন্ধ করবার জন্য নজরুল মঞ্চে দলের কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকের পর যে বা যারা কাটমানি খেয়েছে, তার টাকা তাদেরকেই ফেরত দিতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। আর

পশ্চিম মেদিনীপুরে বিজেপির আইন অমান্য ঘিরে রণক্ষেত্র , পুলিশের লাঠিচার্জ

পশ্চিম মেদিনীপুর,কার্তিক গুহা :- পুলিশের সন্ত্রাস ও অত্যাচার এর বিরুদ্ধে বিজেপির আইন অমান্য কর্মসূচি ঘিরে রনক্ষেত্র মেদিনীপুর শহর। বিজেপি কর্মীদের হঠাতে পুলিশ ব্যাপক লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের শেল।জেলায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতির অভিযোগে সোমবার পুলিশ সুপারের কার্যালয় ঘেরাওয়ের ডাক দিয়েছিল বিজেপি। কর্মসূচিতে অংশ নেন বিজেপির রাজ্য সম্পাদক

ফের বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, জোর শোরগোল রাজ্যে

বেশ কিছুদিন আগে পুরুলিয়ায় বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে ঘিরে রাজ্য রাজনীতি তোলপাড় হয়ে উঠেছিল। শাসকদলের বিরুদ্ধে গোটা ঘটনায় অভিযোগ করে প্রতিবাদে সরব হতে দেখা গিয়েছিল গেরুয়া শিবিরকে। এখনও মাঝে মধ্যে এই ঘটনা তুলে ধরে রাজ্যের শাসকদলের হিংসার কথা প্রকাশ্যে আনতে দেখা যায় বিজেপি নেতাদের। আর এরই মাঝে এবার ফের

Top
error: Content is protected !!