এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম (Page 2)

ভাঙ্গন রুখতে তৃণমূল ভবনে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক, আদৌ রফাসূত্র বেরোলো কি! জল্পনা তুঙ্গে

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে বিজেপির উত্থান ঘটার পরই বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক পড়ে যায়। বিভিন্ন পঞ্চায়েতের প্রধান, উপপ্রধান থেকে শুরু করে বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিরা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেন। যার জেরে প্রবল অস্বস্তিতে পড়ে রাজ্যের শাসক দল। কিন্তু এবার সেই ভাঙ্গন রুখতে বুধবার বিকেলে রাজ্যের মন্ত্রী জাকির হোসেনের এলাকার

বিজেপির উত্থান ঠেকাতে বাম- তৃণমূলের সমঝোতা! জোর চাঞ্চল্য রাজ্যে

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির উত্থানের পরেই আতঙ্কিত হয়েছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দিকে দিকে শক্তি বৃদ্ধি হতে শুরু করে গেরুয়া শিবিরের। আর এরপরই কিছুদিন আগে বিধানসভায় বাম এবং কংগ্রেসের উদ্দেশ্যে জোট বার্তা দিতে দেখা যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যা নিয়ে ব্যাপক আলোড়ন পড়ে যায় রাজ্য রাজনীতিতে। তবে এখনও পর্যন্ত তৃণমূলের সঙ্গে

অব্যাহত অনুব্রত ম্যাজিক, বীরভূমে বিজেপি ছেড়ে দলে দলে কর্মীরা যোগ দিলেন তৃণমূলে

দলবদলের পাল্টাহাওয়া বীরভূমে।শুক্রবার পুনর্দখল হয়েছিল সিউড়ির কোমা গ্রাম পঞ্চায়েত।শনিবার বোলপুরে বিজেপি থেকে প্রায় ৮০০ কর্মী যোগদান করলেন তৃণমূলে। নেপথ্যে সেই অনুব্রত মন্ডল। লোকসভা নির্বাচনের পরে রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছিল দলবদলের ঝড়। দলে দলে তৃণমূলের নেতা কর্মীরা যোগ দিচ্ছিলেন বিজেপিতে।ভাঙন ধরতে থাকে জোড়াফুলের সংগঠনে। রাজ্য জুড়ে একের পর এক পঞ্চায়েত, পুরসভার দখল

কেষ্ট গড়ের অসুখ সেরেও কি সারছে না ?দোলাচলে তৃণমূল

প্রকৃত অর্থে নিরাময় হয়েছে নাকি অমন মনে হচ্ছে! আসলে রোগ বাসা বেধেছে অস্থি মজ্জায়। যার কারণস্বরূপ বলা যায়, ক্রমান্বয়ে দেহের বিভিন্ন ভাগ প্রায় অসাড় হয়ে পড়ছে। বাংলার রাজনীতিতে বেশ কিছু মুখরোচক শব্দের জন্মস্থান বর্তমান রাজনীতির প্রেক্ষাপটে কেষ্টগর( বীরভূম)। যেমন, পাচন, ঢাকের চরাম চড়াম বোল, বিখ্যাত নকুলদানা, ইঁদুরের বাচ্চা ইত্যাদি। কিন্তু

হেভিওয়েট মন্ত্রীর খাসতালুকের পঞ্চায়েতেও এবার ফুটল পদ্ম, শোরগোল রাজ্য-রাজনীতিতে

লোকসভা নির্বাচনে বঙ্গ বিজেপির নেতারা স্লোগান তুলেছিলেন - উনিশে হাফ আর একুশে সাফ! অর্থাৎ লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় তৃণমূলের আসন ২১ টি নামিয়ে আনা হবে আর তারপরেই বিধানসভা নির্বাচনে নবান্নের দখল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত থেকে যাবে গেরুয়া শিবিরের কাছে। তৃণমূল সমর্থকরা সেই স্লোগান শুনে হেসেছিলেন, কেননা তাঁদের চোখে তখন স্বপ্ন ৪২

দলের এই হেভিওয়েট নেতার শারীরিক অবস্থার খবর নিতে তড়িঘড়ি এসএসকেএম পৌঁছলেন মুখ‍্যমন্ত্রী

কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে আজ অস্ত্রোপচার হল বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মন্ডলের। অস্ত্রোপচারের পর আজ সন্ধ্যায় অনুব্রত মণ্ডলকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হাসপাতাল সূত্রের খবর অপারেশনের পর বীরভূমের এই নেতার শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার ফিস্টুলা সংক্রান্ত সমস‍্যা নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি হন অনুব্রত ওরফে কেষ্ট মণ্ডল।

ফের অনুব্রত গড়ে বড়সড় ভাঙ্গন, চাপ বাড়ছে বীরভূমের কেষ্টার

লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান তুললেও তার সৈনিকেরা সেই দায়িত্ব পালন করতে পারেননি। নির্বাচনের মরসুমে বারবারই খবরের শিরোনামে উঠে আসা বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল দাপটের সঙ্গে নকুলদানা দিয়ে ভোট করানোর কথা বললেও তার জেলার দুটি লোকসভা আসনে তিনি দলকে জিতিয়েছেন ঠিকই, কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে ভোট

কাটমানির বস্তা দিদির খুব প্রিয়, বিস্ফোরক দাবি প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদের

মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পর থেকে রাজ্য রাজনীতিতে তীব্র উত্তেজনা বজায় রয়েছে কাটমানি ফেরত কে কেন্দ্র করে। জেলায় জেলায় সাধারণ মানুষের বিক্ষোভের মুখে পড়ছেন তৃণমূলের ছোটো ও মাঝারি নেতা কর্মীরা ।আবার বিজেপির পক্ষ থেকে কাটমানি প্রসঙ্গে বারবার তৃণমূলের শীর্ষনেতৃত্বের বিরুদ্ধে আঙ্গুল তোলা হয়েছে। এই বিতর্ক নতুন মোড় নিল অধুনা বিজেপি নেতা, প্রাক্তন তৃণমূল

big breaking সারদা কাণ্ডে এবার এই তৃণমূল সংসদকে তলব, বড়সড় অস্বস্তিতে শাসকদল

ফের বড়সড় অস্বস্তিতে তৃণমূল সংসদ শতাব্দী রায়। জানা গেছে সারদা-কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে আগামী ১২ জুলাই হাজিরা দেবার নির্দেশ দিয়ে নোটিশ দিল কেন্দ্রীয় সংস্থা ইডি। জানা গেছে আর্থিক কেলেঙ্কারি সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য তাঁকে তলব করা হয়েছে।জিজ্ঞাসাবাদে উঠে আসতে পারে সারদা থেকে শতাব্দীকে কত টাকা দেওয়া হয়েছিল, কেন ওই টাকা দেওয়া

big breaking, গুরুতর অসুস্থ নেত্রী ঘনিষ্ঠ তৃণমূলের দোর্দণ্ডপ্রতাপ হেভিওয়েট নেতা, ভর্তি হাসপাতালে

গুরুতর অসুস্থ মমতা বান্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় ভাই 'কেষ্টা'। জানা যাচ্ছে যে,হাইপারটেনশনে ভুগছেন অনুব্রত মণ্ডল।সুগার রয়েছে তাঁর। এদিকে আবার দেখা দিয়েছে কার্বোঙ্কল ,ফলে সব মিলিয়ে বেশ কাবু তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা। লোকসভা ভোটের পর থেকেই শরীর ভালো যাচ্ছিলো না বলে সূত্রের খবর। উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।এই নিয়ে রাজনৈতিকমহলের ধারণা তাঁর কারণ অবশ্যই তৃণমূলের

Top
error: Content is protected !!