এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম

জয়ের সম্ভাবনা যত নিশ্চিত হচ্ছে মৌসম নূরের উপর ততই আস্থা বাড়ছে শাসকদলের – এবার পেলেন বড়সড় ‘দায়িত্ব’

মালদার হেভিওয়েট সাংসদ মৌসম নূর লোকসভা ভোটের আগে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে এসেই স্বস্তি দিয়েছে জোড়াফুল শিবিরকে। মৌসমের নেতৃত্বেই এবার জেলায় জয় পাবে তৃণমূল,এই কথায় ভরসা রেখেই উত্তর মালদা লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী করা হল তাকে। দলের পদাধীকারীদের সঙ্গে সাম্প্রতিক বৈঠকে এমনটাই জানিয়ে দিলেন মালদহের তৃণমূল পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী। পাশাপাশি দক্ষিণ মালদায় কাকে

অধীর চৌধুরীকে লোকসভায় মাত দিতে তাঁর বিরুদ্ধে প্রার্থী তালিকায় চূড়ান্ত চমক দিতে চলেছে তৃণমূল

এবার বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রে অধীর চৌধুরীকে ঘায়েল করতে তাঁর শ্যালক অরিৎ মজুমদারকেই অস্ত্র হিসাবে ব্যবহার করতে উদ্যোগী তৃণমূল কংগ্রেস,এমনটাই জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিকমহলে। মুর্শিদাবাদে তৃণমূল এবং প্রদেশ কংগ্রেসের জোট বাঁধা সম্ভাবনা একেবারেই নেই। কাজেই এই কেন্দ্র কংগ্রেসের থেকে ছিনিয়ে নিতে চেষ্টায় কোনো খামতি রাখতে চায় না তৃণমূল। সেজন্যে প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস

প্রাণ যেতে পারে যে কোনো মুহূর্তে বলেই কি শাসকদলের নেতারা এখন একে অপরকে বিশ্বাস করতে পারছেন না! অনুব্রতর কর্মীসভা ঘিরে জল্পনা!

অনুব্রত মণ্ডলের সভাপতিত্বে তৃণমূলের দলীয় কর্মীসভা সম্পন্ন হল কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে বজায় রেখেই। সভার আগে জেলাপুলিশের পাশাপাশি অনুব্রতর দেহরক্ষীরা মেটাল এবং বম ডিটেক্টর দিয়ে সভাস্থল দফায় দফায় পরীক্ষা করে দেখেন। মাসকয়েক আগেও অনুব্রতবাবুর সুরক্ষার জন্যে মহিলা নিরাপত্তারক্ষী দেওয়া হয়েছিল। এবার আরো একধাপ এগিয়ে বম ডিটেক্টর ব্যবহার করা হল। এখন থেকেই

কর্মী সভায় মেজাজ হারিয়ে অনুব্রত মন্ডলের হুমকি – জোর গলায় কথা বলবে না, তোমার থেকে আমার গলার জোর বেশি

ফের লোকসভা ভোটের মুখে অনুব্রত মণ্ডলের কোপের শিকার হলেন বুথকর্মীরা। লোকসভা নির্বাচন পরিচালনার স্বার্থেই বীরভূমের প্রতিটি বুথ কর্মী সম্মেলন করছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি। এদিন নলহাটিতে বাইপাস রাস্তার ধারে একটি রাইস মিলে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে হাজির ছিলেন তিনি। সেখানেই কয়থা-১ অঞ্চলের এক বুথের সভাপতি নজরুল ইসলাম গত নির্বাচনে দলের খারাপ ফলের জন্যে

লক্ষ্য 42-এ 42, আর তাই অধীরকে হঠাতে মুর্শিদাবাদে মিনি ব্রিগেডের ডাক শুভেন্দুর

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় 42 টি আসনের মধ্যে 42 টি লোকসভা আসনই নিজেদের দখলে রাখতে মরিয়া হয়ে উঠেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। তবে রাজ্যের শাসক দল তাদের এই ইচ্ছা পূরণে একদিকে যেমন বিজেপিকে নিজেদের পথের কাঁটা হিসেবে ভাবতে শুরু করেছে, ঠিক তেমনই মুর্শিদাবাদ জেলায় লোকসভা আসনে বিরোধীশূন্য করতে তাদের

লাভপুরে বিজেপি নেতার কন্যা অপহরণ কাণ্ডে এবার বিস্ফোরক অভিযোগে সরব হলেন বিজেপি সভাপতি

লাভপুরের বিজেপি নেতার অপহৃত কন্যা প্রথমা বটব্যালকে খুঁজে পাওয়া গেলেও তাঁর অপহরণ কাণ্ড নিয়ে রাজনীতি করা ছাড়ছে না তৃণমূল-বিজেপি। আর এই রাজনীতির প্রেক্ষিতকে উস্কে দিয়েছে অপহরণ কাণ্ডে অপহৃতার বাবা অর্থাৎ বিজেপি নেতা সুপ্রভাত বটব্যালের গ্রেফতারির খবর। গতকালই নদীয়ায় দাঁড়িয়ে বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেছিলেন, "এটা পুরোপুরি পরিকল্পিত ঘটনা।

অনুব্রত মণ্ডলের “ভোট চুরির” বার্তা কি নির্বাচনের আগে তৃণমূলের ভাবমূর্তি খারাপ করবে?

2011 সালে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর থেকে যতগুলো নির্বাচন হয়েছে, প্রায় সব নির্বাচনের আগেই একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে উঠে আসছে বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় অনুব্রত মণ্ডল ওরফে কেষ্টকে। কখনও পুলিশকে বোম মারা, তো কখনও বা গুড় বাতাসা খাইয়ে দেওয়া

বিজেপি নেতার কন্যার অপহরণের পর উদ্ধার কান্ড নিয়ে মুখ খুললেন অনুব্রত মন্ডল

বীরভূমে বিজেপি নেতার কন্যা অপহরণ কাণ্ডে অপহৃতের বাবাকেই গ্রেফতার করল পুলিশ। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে অনুব্রত গড়ে। আর অপহরণের ঘটনায় সেই অপহৃতের বাবা অর্থাৎ বিজেপি নেতা সুপ্রভাত বাবুই গ্রেফতার হওয়ায় গোটা ঘটনাটাকেই সাজানো বলে দাবী করলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। এদিন নদীয়ায় তিনি

মৌসমের নামে বড়সড় অভিযোগ করলেন কংগ্রেস সভাপতি, বিতর্ক তুঙ্গে

লোকসভা ভোটের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে মৌসেমের কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে রীতিমতো ক্ষোভে ফুঁসছে মালদার জেলা কংগ্রেস। মৌসমের দলত্যাগের পরে সদ্যই জেলা কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্বে এসে মৌসম বিরোধী সুর চড়া করলেন মোস্তাক সাহেব। সভাপতি হওয়ার পর এদিন প্রথমবার দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। বৈঠক শেষে মৌসমের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে

নতুন দলে পা রেখেও মৌসম নূর নিশ্চিত করলেন মালদায় মূল প্রতিপক্ষের নাম বিজেপিই

লোকসভা ভোটে বিজেপিই যে জেলার একমাত্র প্রতিপক্ষ তৃণমূলে নাম লিখিয়েও সেটাই নিশ্চিত করলেন সাংসদ মৌসম নূর। গতকাল পুরাতন মালদহ ব্লকের জলঙ্গার সংবর্ধনা সভায় এসে মালদহের দুটো লোকসভা কেন্দ্র থেকেই বিজেপিকে ধরাশায়ী করার ডাক দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক তথা সংসদ সদস্য মৌসম বেনজির নুর। নতুন দলের কর্মী সমর্থকদের আপ্যায়ণ দেখে বেজায়

Top
Close
error: Content is protected !!