এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা

বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী মুখ হওয়ার ‘শর্তেই’ বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ? ক্রমশ তীব্র হচ্ছে জল্পনা

পৃথিবীর সবথেকে ধনী ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআইয়ের সর্বোচ্চ পদে বসেছেন বাংলার গর্ব সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। জগমোহন ডালমিয়ার পর আরেক বাঙালি প্রশাসক হিসাবে ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ পদে। কিন্তু, এই দুর্দান্ত আনন্দের অবহেও প্রবলভাবে ভেসে উঠছে রাজনীতি। সৌরভ গাঙ্গুলি বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হতেই জল্পনা চলছে যে - বাংলার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী মুখ হিসাবে বিজেপিকে সবুজ সঙ্কেত

হেভিওয়েট তৃনমূল মন্ত্রীর বিরুদ্ধে একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ! পাল্টা দিলেন মন্ত্রীমশাইও

পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক ইতিহাসে বামফ্রন্ট বনাম তৃণমূলের লড়াই অত্যন্ত স্বাভাবিক বিষয়। কিন্তু বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় থেকে শুরু করে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের সামগ্রিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি যে পরিমাণ পাল্টে গেছে, তাতে একদিকে যেমন রাজ্যের প্রধান বিরোধীদলের জায়গা দখল করে নিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি, অন্যদিকে তেমনই কার্যত অস্তিত্ব সংকটে ভুগতে

ভাতৃশোক ভুলে শুভেন্দু অধিকারীর অনুরোধে দলের কঠিন সময়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব এগিয়ে এলেন দাদা

পুরানে দাদা-ভাইয়ের নীতিকথা আমরা রামায়ণে পড়েছিলাম। দাদা রামের প্রতি ভাই ভরত কিংবা লক্ষণের নিবেদন প্রায় সকলেরই জানা। হয়ত বাস্তবেও এরকম কিছু দাদা ভাইয়ের সম্পর্ক রয়েছে। আর সেরকমই একটা আভাস পাওয়া গেল ভাই কুরবান শার মৃত্যুতে শোকসন্তপ্ত অবস্থাতেও সেই ভাইয়ের পূরণ না করা দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন তারই দাদা আফজল

লোকসভায় পিছিয়ে থাকলেও বুথস্তর থেকে সংগঠনকে ঝাঁকুনি দিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে আসরে হেভিওয়েট মন্ত্রী

লোকসভায় রাজ্যে তৃণমূলের ফলাফল ভালো হয়নি। যার মূল কারণ হিসেবে জনসংযোগের অভাব এবং দুর্নীতিকেই দায়ী করা হয়েছে। কিন্তু লোকসভায় সেই খারাপ ফলাফলের পর বিভিন্ন জেলায় সংগঠনকে চাঙ্গা করতে নেতৃত্ব পরিবর্তন করে দক্ষ নেতাদের দায়িত্ব দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্বল জেলাগুলোর দায়িত্ব দলের নেতাদের দেওয়ার পরই সেই সমস্ত নেতারা সেই

পুজো মিটতেই নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা! টালমাটাল শাসকদলের অন্দরমহল

উত্তরবঙ্গে 2019 সালের লোকসভা ভোটের ফলাফল শুভকর হয়নি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে। উত্তরবঙ্গের আটটি লোকসভা সিটের মধ্যে একটি আসনেও জয়লাভ করতে পারেনি ঘাসফুল শিবির। মালদা জেলার চিত্রটিও একই। সেখানে দুটি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে একটিতে ভারতীয় জনতা পার্টির প্রার্থী জয় যুক্ত হয়েছেন, অন্যটিতে জিতেছেন জাতীয় কংগ্রেসের প্রার্থী। শূন্য হাতেই

শিক্ষক নিয়োগের নিয়মে আসতে চলেছে বড়সড় পরিবর্তন, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি

ইতিপূর্বে রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে কম জল ঘোলা হয়নি। এসএসসি থেকে শুরু করে প্রাইমারি টেট, সর্বত্রই চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন, অনশন ইত্যাদির জেরে জেরবার হতে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। তার উপরে সমস্যা অনেকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে আদালতের হস্তক্ষেপ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এসএসসি বা প্রাইমারি টেট পরীক্ষায় মেধা তালিকা প্রকাশ নিয়ে একাধিকবার রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতের

বিজেপির পরবর্তী কর্মসূচিতে রাজ্যজুড়ে ঝড় তুলতে বড়সড় দায়িত্ব পাচ্ছেন এই দুই নেতা

পশ্চিমবঙ্গের 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে এ রাজ্যে পদ্ম শিবির আঁটঘাট বেধে রাজনৈতিক মঞ্চে নামছে। 2021 এর বিধানসভা দখল করে শাসক দলে্য শিকড় উপড়ে ফেলাই যে পদ্ম শিবিরের লক্ষ্য, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। এই লক্ষ্য পূরণ করতে এবং 2019 এর লোকসভা ভোটে উল্লেখযোগ্য ভালো ফলের দরুণ কেন্দ্রীয়

ভোটের আগেই এই পুরসভা নিয়ে এবার বড়সড় সিদ্ধান্ত তৃণমূল নেত্রীর – জানুন বিস্তারিত

নাম নিয়ে বিরম্বনায় এবার বিধানসভা পুরসভা। তৃণমূল নেতৃত্বের বিভিন্ন কাজ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে আগেই, এবার আবার নতুন করে বিতর্কের জন্ম দিতে চলেছে তৃণমূল নেত্রীর নতুন সিদ্ধান্ত। রাজনৈতিক ক্ষমতায় থাকাকালীন এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তথা তৃণমূল নেত্রী বিধাননগর পুরসভার নাম বদল করতে চলেছেন। এ নিয়ে ইতিমধ্যেই কথা শুরু হয়ে গেছে

ট্যাগড

সংগঠনকে আরও চনমনে করতে 15 তারিখ বড়সড় পদক্ষেপ তৃণমূল নেত্রীর

লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির পর দফায় দফায় সমস্ত জেলা নেতৃত্বকে নিয়ে বসে সংগঠনকে সাজানোর চেষ্টা করেছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোটগুরু প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনামাফিক "দিদিকে বলো" কর্মসূচি করে দলের সমস্ত জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে পদাধিকারীদের সাধারণ মানুষের সঙ্গে জনসংযোগ করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি। সেইমত রাজ্যের প্রতিটি জেলাতেই "দিদিকে

মিড ডে মিল নিয়ে এবার বড়সড় আন্দোলনের পথে বিজেপির শিক্ষক সংগঠন

রাজ্যের অস্বস্তি বাড়িয়ে এবার মিড ডে মিলের বরাদ্দ বাড়াতে ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইমারি ট্রেইনড টিচার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে আদালতে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করা হল। সূত্রের খবর, আদালত খুললেই এই ব্যাপারে জনস্বার্থ মামলা করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি পিন্টু পাড়ুই। তাদের দাবি, রাজ্যের পাশাপাশি কেন্দ্রও যেন এই মিড ডে মিলের পরিমাণ বৃদ্ধি

Top
error: Content is protected !!