এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > হাওড়া-হুগলি (Page 2)

জল্পনা বাড়িয়ে মমতা-ঘনিষ্ঠ আমলার ডানা আরও ছাঁটল নবান্ন! জানুন বিস্তারিত

রাজ্য সারদা-কাণ্ড নিয়ে ইতিমধ্যে প্রচুর জল ঘোলা হয়েছে। শাসকদলের অনেক হেভিওয়েট নেতা নেত্রীর নাম সারদা-কাণ্ডে জড়িয়েছে। সিবিআই দপ্তরে নিয়মিত হাজিরা দিতে হয় এখনও তাঁদের। তবে এদিন যার নাম নিয়ে রাজ্য রাজনীতি সরগরম রইল তিনি হলেন রাজ্যের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্বরাষ্ট্র দপ্তরের সচিব অত্রি ভট্টাচার্য। জল্পনা আগেই ছিল। আর এদিন জল্পনাকে উসকে

চিদাম্বরমের জেলযাত্রা প্রসঙ্গ টেনে “দিদিকে” জেলে পোড়ার জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন স্বয়ং দিলীপ ঘোষ

  সারদা থেকে নারদা বিভিন্ন চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে তৃণমূলের একাধিক সাংসদ, মন্ত্রীকে একসময় জেলে যেতে হয়েছিল। যে ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে সিবিআইকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে সরব হতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। তারপর রাজ্য রাজনীতিতে অনেক উত্থান-পতন ঘটেছে। মাঝেমধ্যেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুর্নীতিতে সরব হয়ে বিজেপির পক্ষ থেকে "অ্যাকশন" নেওয়ার মত

মুখ্যমন্ত্রীকে অশালীন আক্রমণ করে গ্রেফতার প্রাক্তন তৃণমূল মন্ত্রীর “ভাইপো”

  বঙ্গ রাজনীতিতে শালীনতার মাত্রা প্রতিমুহূর্তে ছাড়িয়ে গেছে। রাজনৈতিক কৌশলে একে অপরকে চাপে রাখার পরিবর্তে বিভিন্ন ব্যক্তি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে হাতিয়ার করেছেন বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীদেরকে। যেখানে তাদের প্রধান অস্ত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য। আর এবার তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করে গ্রেফতার হতে হল চন্দন ভট্টাচার্য নামে

দলীয় কর্মী খুনে ফুঁসছে বিজেপি! তৃণমূল কাউন্সিলরের বাইকই পুড়িয়ে দিল প্রতিবাদে!

  প্রায় তিন দিন পেরিয়ে গিয়েছে। কিন্তু এখনও বিজেপি কর্মী আমির আলি খানের খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে আরামবাগ। বস্তুত, গত রবিবার সকালে আরামবাগের কালিপুর চৌমাথায় আমীর আলি খান নামে এক বিজেপি কর্মীকে পিটিয়ে খুন করা হয়। যার পর থেকেই এলাকা থমথমে হয়ে রয়েছে। আর এই খুনের ঘটনার পর থেকেই বিজেপির

মুখ্যমন্ত্রী সবুজসংকেত দিলেই হাওড়া পুরনিগম নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে প্রশাসন

  হাওড়া পৌরসভা নিয়ে এবার মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছেন পুর কর্তারা। সূত্রের খবর, উৎসবের আবহ শেষ হলেই সেই হাওড়া পৌরসভায় ডিলিমিটেশন হওয়ার কথা শুরু হয়েছে। যা নিয়ে পৌর দপ্তরে ইতিমধ্যেই একটি প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। আর ওই দপ্তর থেকে সেই প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য তা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। তবে মুখ্যমন্ত্রী তা

বিজেপি করার অপরাধে চায়ের দোকান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে হাতুড়ি দিয়ে মেরে হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ

রাজ্যে বিজেপির ভোটব্যাংক বৃদ্ধি হওয়ার পরই বিভিন্ন এলাকায় তৃনমূলের বিরুদ্ধে বিজেপির প্রতি হামলার অভিযোগ উঠতে শুরু করে। যে ঘটনায় ব্যাপক রাজনৈতিক তরজা লক্ষ্য করা যায়। আর এবার বিজেপি করার অপরাধে চায়ের দোকান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে হাতুড়ি দিয়ে মেরে হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃনমূলের বিরুদ্ধে। সূত্রের খবর, তারকেশ্বর থানার পিয়াসারা

ডেঙ্গুতে মৃত্যু হলেও লিখতে নারাজ চিকিৎসক! তুলকালাম শ্রীরামপুরে

রাজ্য স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সংকট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করতে দেখা যাচ্ছে বিরোধীদের। তবে বিরোধীদের সমস্ত অভিযোগের মাঝে প্রকট হয়ে উঠছে ডেঙ্গু সমস্যা। এর আগে বর্ষার সময় রাজ্যে ডেঙ্গুর বাড়বাড়ন্ত দেখা দিলে এবং অনেক মানুষের মৃত্যু হলে অনেক জায়গায় বিরোধীদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, রোগীরা ডেঙ্গুতে রোগী মারা যাচ্ছে না,

এনআরসি আটকাতে প্রয়োজনে ‘জঙ্গি রাজনীতি’! স্পষ্ট করলেন সূর্য্যকান্ত মিশ্র

লোকসভা ভোটের পর থেকেই কেন্দ্রে বিজেপি নেতৃত্ব এনআরসি নিয়ে তৎপর হয়েছে। এনআরসি বা নাগরিক পঞ্জিকার প্রথম পর্ব শুরু হয়েছিল আসাম থেকে। এনআরসি হওয়ার পর দেখা যায়, আসাম থেকে 19 লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছে। যার মধ্যে 11 লক্ষ হিন্দু বলে দাবি করা হয়েছে। এই ঘটনায় সারা দেশজুড়ে তুমুল বিতর্ক শুরু

আবার খবরের শিরোনামে সিঙ্গুর! আন্দোলনকারীদের ইটের ঘায়ে জখম পুলিশ! উত্তপ্ত পরিস্থিতি

এককালে বিগত বাম সরকারের আমলে প্রবল আন্দোলন গড়ে কৃষকদের পাশে থেকে সিঙ্গুরে অনশন, আন্দোলন গড়ে তুলেছিলেন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে আন্দোলন সারা রাজ্য তথা দেশকে আলোড়িত করে তুলেছিল। এখন সিঙ্গুরে সেইভাবে আর কোনো আন্দোলন হতে দেখা যায় না। কিন্তু এবার ফের অশান্ত হয়ে উঠল সিঙ্গুর। পুলিশের

বিজেপি করার “অপরাধে” এবার ভাড়াটিয়াকে উচ্ছেদের নিদান তৃণমূলের, তীব্র চাঞ্চল্য হাওড়ায়

তৃণমূল করলেই সাতখুন মাপ, আর বিজেপি করলেই দোষে দুষ্ট! এখন এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজ্য রাজনীতিতে। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনের পর আরও বেশি করে যখন তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে বিজেপি, ঠিক তখনই প্রায় প্রতি ক্ষেত্রেই বেছে বেছে বিজেপির কর্মী সমর্থকদের প্রতি দুর্ব্যবহার এবং বঞ্চনা করা হচ্ছে বলে দাবি

Top
error: Content is protected !!