এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > হাওড়া-হুগলি

ডেঙ্গুতে মৃত্যু হলেও লিখতে নারাজ চিকিৎসক! তুলকালাম শ্রীরামপুরে

রাজ্য স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সংকট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করতে দেখা যাচ্ছে বিরোধীদের। তবে বিরোধীদের সমস্ত অভিযোগের মাঝে প্রকট হয়ে উঠছে ডেঙ্গু সমস্যা। এর আগে বর্ষার সময় রাজ্যে ডেঙ্গুর বাড়বাড়ন্ত দেখা দিলে এবং অনেক মানুষের মৃত্যু হলে অনেক জায়গায় বিরোধীদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, রোগীরা ডেঙ্গুতে রোগী মারা যাচ্ছে না,

এনআরসি আটকাতে প্রয়োজনে ‘জঙ্গি রাজনীতি’! স্পষ্ট করলেন সূর্য্যকান্ত মিশ্র

লোকসভা ভোটের পর থেকেই কেন্দ্রে বিজেপি নেতৃত্ব এনআরসি নিয়ে তৎপর হয়েছে। এনআরসি বা নাগরিক পঞ্জিকার প্রথম পর্ব শুরু হয়েছিল আসাম থেকে। এনআরসি হওয়ার পর দেখা যায়, আসাম থেকে 19 লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছে। যার মধ্যে 11 লক্ষ হিন্দু বলে দাবি করা হয়েছে। এই ঘটনায় সারা দেশজুড়ে তুমুল বিতর্ক শুরু

আবার খবরের শিরোনামে সিঙ্গুর! আন্দোলনকারীদের ইটের ঘায়ে জখম পুলিশ! উত্তপ্ত পরিস্থিতি

এককালে বিগত বাম সরকারের আমলে প্রবল আন্দোলন গড়ে কৃষকদের পাশে থেকে সিঙ্গুরে অনশন, আন্দোলন গড়ে তুলেছিলেন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে আন্দোলন সারা রাজ্য তথা দেশকে আলোড়িত করে তুলেছিল। এখন সিঙ্গুরে সেইভাবে আর কোনো আন্দোলন হতে দেখা যায় না। কিন্তু এবার ফের অশান্ত হয়ে উঠল সিঙ্গুর। পুলিশের

বিজেপি করার “অপরাধে” এবার ভাড়াটিয়াকে উচ্ছেদের নিদান তৃণমূলের, তীব্র চাঞ্চল্য হাওড়ায়

তৃণমূল করলেই সাতখুন মাপ, আর বিজেপি করলেই দোষে দুষ্ট! এখন এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজ্য রাজনীতিতে। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনের পর আরও বেশি করে যখন তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে বিজেপি, ঠিক তখনই প্রায় প্রতি ক্ষেত্রেই বেছে বেছে বিজেপির কর্মী সমর্থকদের প্রতি দুর্ব্যবহার এবং বঞ্চনা করা হচ্ছে বলে দাবি

বাংলার বুকে হেভিওয়েট বিজেপি সাংসদের ‘যাত্রা’ আটকাল কংগ্রেস! তীব্র শোরগোল রাজনৈতিক মহলে

2019 এর লোকসভা ভোটে রাজ্যে বিজেপি তুলনামূলকভাবে যথেষ্ট ভালো ফল করে তৃণমূলের থেকে। তৃণমূল যেখানে পশ্চিমবঙ্গের 42 টি আসনের মধ্যে 22 টি আসন দখল করে, সেখানে বিজেপি 18 টি আসন দখল করে। উল্লেখ্য, 5 বছর আগে লোকসভা ভোটে বিজেপির আসন সংখ্যা পশ্চিমবঙ্গের ছিল দুই। সাংগঠনিক ক্ষমতার উপর ভিত্তি করে বিজেপি

বিজেপি সাংসদ কেন করছেন না? প্রশ্ন তুলে উন্নয়ন নিয়ে হাত গুটিয়ে বসে তৃণমূল জেলা পরিষদ!

কথায় বলে, 'রাজায় রাজায় যুদ্ধ হয়, উলুখাগড়ার প্রাণ যায়'- সেই কথাটা আরেকবার প্রমাণ হলো বলাগড়ে। যেখানে মানুষ রাজনীতির শিকার হয়, সেখানে রাজনীতির লজ্জা। এ বিষয়ে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের দাবি, সাধারণ মানুষ কষ্টে পড়লে সে সময়ে রাজনৈতিক প্রতিনিধিরা যদি মুখ ঘুরিয়ে থাকেন, তাহলে সাধারণ মানুষও সময়ে রাজনৈতিক দলগুলির থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবে।

মন্ত্রীর সিদ্ধান্তে রূপনারায়ণের চরে এলাকাবাসীদের বাড়ছে ক্ষোভ, চাপানউতোর রাজ্যে

এবার এক অন্য রকম বিতর্ক তৈরি হয়েছে রাজ‍্যে। রাজ্যের শাসকদলের মন্ত্রীর বক্তব্যে এক অন্য রকম বিতর্ক তৈরি হয়েছে মায়াচরে। রাজনীতির টানাপোড়েন হামেশাই দেখতে পাই আমরা। কিন্তু মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনা নিয়েও যে বিতর্ক তৈরি হতে পারে, সে সম্পর্কে কোন ধারণাই ছিলনা রাজ্যবাসীর। আর এই ঘটনাই ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরে। এই

ফের তৃণমূলের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেটের অভিযোগ- বাতিলই হয়ে গেল নির্বাচন!

মাঝে এক বছর নির্বাচন হয়নি। কথা ছিল 31 অক্টোবর তারকেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত মন্ডলীর কার্যকরী সমিতির সেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু প্রথম থেকেই এই নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অশনিসংকেত দেখতে পাওয়ায় অনেকের মনেই সেই নির্বাচন হওয়া নিয়ে তীব্র জল্পনার সৃষ্টি হয়। দেখা যায়, নির্বাচনে যে সমস্ত প্রার্থীরা অংশগ্রহণ করছেন, তাদের অনেকেই বিভিন্ন রকম কারণ

হাওড়া পুরসভা বড়সড় সিদ্ধান্ত মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদনের অপেক্ষায়- জানুন বিস্তারিত?

সকলেই তাকিয়ে রয়েছেন, এন হাওড়া পৌরসভার পুনর্বিন্যাসের জন্য ঠিক কি সিদ্ধান্ত নেয় সরকার! বস্তুত, গত বছর 10 ডিসেম্বর এই হাওড়া পৌরসভার বিগত বোর্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে সেখানকার কমিশনারকে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ করে পুরসভা চালানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়। পরবর্তীতে রাজ্যের পুর দপ্তরের পক্ষ থেকে জেলার তিন মন্ত্রী, কমিশনার, বিদায়ী বোর্ডের মেয়র

তারকেশ্বরের নির্বাচনে তৃণমূল নেতার প্রভাব? মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার ঘিরে ক্রমশ বাড়ছে জল্পনা

প্রবল জটিলতা তারকেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত মন্ডলের কার্যকরী সমিতির নির্বাচনে। জানা গেছে, এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন ঠিকই। কিন্তু ইতিমধ্যেই তা চারজন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। যা নিয়ে বিভিন্ন মহলে ছড়াতে শুরু করেছে জল্পনা। বস্তুত, বর্তমানে এই তারকেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত মন্ডলীর সদস্য রয়েছেন 98 জন। বিগত বেশ কয়েক বছর আগে

Top
error: Content is protected !!