এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান (Page 2)

“তুমি বিশ্বাসঘাতক” বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে পোস্টকার্ড, চাঞ্চল্য রাজ্যে

আবার পোস্টকার্ড পাঠিয়ে প্রতিবাদের রেওয়াজ ফিরল রাজ্যে। এইবার পোস্টকার্ডের প্রেরক পশ্চিম বর্ধমান জেলা সিপিআই(এম)।কার্ড প্রাপকের ঠিকানা- প্রকাশ নিবাস, বি সি রোড(পশ্চিম), পটনা।পোস্টকার্ডের বয়ান, "সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া তুমি বিশ্বাসঘাতক।" একটা দুটো নয় ,প্রায় ২৫০০০ এমন পোস্টকার্ড পেতে চলেছেন দুর্গাপুর-বর্ধমান কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ। প্রসঙ্গত, কেন্দ্রে দ্বিতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় আসার পরেই বিজেপি সরকার গোটা

উলটপুরাণ বাংলায়! হেভিওয়েট বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে কাটমানির অভিযোগ! উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া

লোকসভা নির্বাচনে এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর ডাক দিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর সেই স্লোগান পূর্ণ হয়নি। উল্টে বিজেপি বাংলা থেকে 18 টি আসন নিজেদের দখলে নিয়ে তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে। আর দলের এই খারাপ ফলাফলের পরই ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে কি কারণে এই খারাপ ফলাফল হল, তা নিয়ে

ফের বিজেপিতে যোগ, তৃণমূলের ঘর ভাঙলেন বিজেপির হেভিওয়েট নেতা

দলবদলের ঝড় অব‍্যাহত পশ্চিমবঙ্গে। লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই তৃণমূল ভেঙে একের পর নেতা কর্মী বিজেপিতে যোগদান করে চলেছেন । শনিবার বর্ধমানের কার্জনগেট চত্বরে বহু অনুগামীসহ বিজেপি তে যোগদান করেন গুসকরা পুরসভার বিদায়ী তৃণমূল কংগ্রেস কাউন্সিলর এবং প্রাক্তন চেয়ারম্যান চঞ্চল গড়াই। গতকাল শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের জন্মদিবস পালন উপলক্ষ‍্যে রাজ‍্য বিজেপির তরফ থেকে সদস‍্য

বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করতে দিচ্ছে না বিজেপি, বিস্ফোরক দাবি বিজেপির মন্ত্রীর

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই রাজ্যে ঘটে চলেছে লাগাতার হিংসার ঘটনা। একের পর এক হিংসা এবং সংঘর্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কর্মীরা প্রাণ হারাতে শুরু করেছেন। যার ফলে রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা অবনতির অভিযোগ তুলে সোচ্চার হতে দেখা যাচ্ছে বিরোধী দল বিজেপিকে। যে ঘটনায় সম্প্রতি জল্পনা ছড়িয়েছিল যে, বাংলায় অভূতপূর্বভাবে উত্থান ঘটা 18 টি

সর্বসমক্ষে নব নির্বাচিত সাংসদকে ধমক মমতার, চাঞ্চল্য রাজ্যে

লোকসভা ভোটে ৪২ এ ৪২ টি আসনের দাবি তুলেছিল তৃণমূল। কিন্তু সে স্বপ্ন পূরণ হওয়া তো দূরে থাক। রাজী মাত্র ২২ টি আসন পেয়েছে শাসকদল। আর ১৮ টি আসন নিয়ে ঘরের কাছে নিঃস্বাস ফেলছে বিজেপি। ফলে চাপ বেড়ে গেছে শাসকদলের। সাথেই হু হু করে ভাঙছে দল, যা নিয়ে বড়সড় অস্বস্তিতে

ফের বড়সড় ভাঙ্গন তৃণমূলে সৌজন্যে বিজেপি, চিন্তার ভাজ শাসকশিবিরে

লোকসভা ভোটের আগে বিজেপিতে যোগদানের পক্রিয়া শুরু হলেও তেমন বেশি কিছু দেখা যায়নি। আগের দিন বিজেপিতে যোগ দিয়েই পরের দিন ফের তৃণমূলে ফিরে যেতে দেখা গেছে শাসকদলের কর্মীদের।যদিও এই নিয়ে বিজেপির দাবি ছিল যে তাদের ভয় দেখিয়ে নিয়ে গেছে তৃণমূল।যদিও সে অন্য প্রসঙ্গ, তবে তার জেরে কিছুটা হলেও ঘর ভাঙ্গায়

বিরোধীদের দাবিকে সীলমোহর দিয়ে বাংলায় জঙ্গিদের উপদ্রব নিয়ে সতর্কবার্তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে

বাংলায় জঙ্গিদের উপদ্রব দিনকে দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে বিভিন্ন সময়েই রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলার ব্যাপারে সরব হতে দেখা গেছে বিরোধীদের। আর এবার বিরোধীদের এই দাবিকে কিছুটা হলেও সীলমোহর দিয়ে রাজ্যের মুর্শিদাবাদ এবং বর্ধমান জেলার মাদ্রাসা নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে সতর্কবার্তা জারি করা হল। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে,

অনুব্রতর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে দল ছাড়ার পোস্ট, হেভিওয়েট নেত্রীর, পরে ডিলিট, জোর জল্পনা

একটি ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ালো বর্ধমানের গুসকরায়।এই পোস্টটি করেন গুসকরা পৌরসভার প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর মল্লিকা চোঙদার।ফেসবুকে করা সেই পোস্টের সঙ্গে তিনি জড়িয়ে দিলেন বীরভূমের বিতর্কিত তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলের নাম। সরাসরি অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় দল ছাড়ার বার্তা দিয়ে মল্লিকা চোঙদার লেখেন- "অনুব্রত মণ্ডলের দুর্ব্যবহারে

দিদির অন্যতম সেরা সৈনিক যে তিনিই বিজেপির ঘরে ভাঙ্গন ধরিয়ে ফের প্রমান অনুব্রতর

লোকসভা ভোটের পর থেকে 'ঘর ভাঙা'র পর্ব ক্রমশ দীর্ঘ হচ্ছে তৃণমূল শিবিরে। প্রায় প্রতিদিনই জোড়াফুল ছেড়ে পদ্মে যোগাদান করছেন দলের নেতা কর্মীরা। এই ধারাবাহিক ভাঙনের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে উলটপুরান ঘটালেন বীরভূম তৃণমূল কংগ্রেসের অবিসংবাদিত নেতা অনুব্রত মণ্ডল। অনুব্রত ম‍্যাজিকের জোরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন সহস্রাধিক নেতা-কর্মী। গতকাল বর্ধমানের আউশগ্রামে তৃণমূলের একটি কর্মীসভার

বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে মামলা, অভিযোগ প্রমাণে হতে পারে সর্বোচ্চ সাত বছর কারাদণ্ড

লোকসভা নির্বাচনের অনেক আগে থেকেই বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল যে, রাজ্যের পুলিশ ও শাসকদল একত্রিত হয়ে বিজেপির নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করছে। তবে বারে বারেই শাসকদলের পক্ষ থেকে অবশ্য তা ভিত্তিহীন বলেও উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এবার লোকসভা ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের

Top
error: Content is protected !!