এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান (Page 2)

উর্মিমালা বসুকে নিয়ে ফের চড়ল পারদ, এবার বাচিক শিল্পীর রাজনৈতিক মতাদর্শ নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বাবুল

রাজ্য রাজনীতিতে এখন বিতর্কের শিরোনামে বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। যাদবপুর কান্ড থেকে তাকে নিয়ে বিতর্ক বহুগুণে বেড়ে গিয়েছে। আর এপর গত মঙ্গলবারই বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী উর্মিমালা বসুকে নিয়ে কুরুচিকর পোস্টের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে দেখা গিয়েছিল বাংলার বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে। আর এবার নিজের সংসদীয় এলাকায় গিয়ে সাংবাদিকদের

সরকারি জমিতে খেলার মাঠই বিক্রি করে দিলেন তৃণমূল নেতারা! বিক্ষোভে উত্তাল দুর্গাপুর

অদৃষ্টের কি নিষ্ঠুর পরিহাস! শাসকের রোষানলে পড়ে এবার সরকারি খেলার মাঠও বিক্রি হয়ে যেতে বসেছে। সূত্রের খবর, দুর্গাপুরের 16 নম্বর ওয়ার্ডের ধান্দাবাগ এলাকায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরকারি জায়গা বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। যে ঘটনায় এখন প্রবল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়। জানা গেছে, এদিন এই গোটা ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় বাসিন্দারা প্রবল বিক্ষোভ দেখান।

সেতু উদ্বোধনে রেলমন্ত্রীর আসা চূড়ান্ত হতেই যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগে উদ্বোধনে ঝাঁপাল রাজ্য!

সেতু তুমি কার! এই নিয়েই যেন এবার প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজ্য রাজনীতিতে। যে কোনো প্রকল্পের উদ্বোধন যে দলের নেতা বা মন্ত্রী করেন, তারাই সেই কাজের পেছনে মূল উদ্যোক্তা ছিলেন বলে মনে করেন সকলে। কিন্তু কেন্দ্র এবং রাজ্যের যৌথ উদ্যোগে যদি কোনো প্রকল্প হয়, তাহলে তা রাজ্য এবং কেন্দ্রের মন্ত্রী

‘সারদার সম্পত্তি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন রাজীবকুমার।’ বিস্ফোরক উক্তি বিজেপি সাংসদের – জেনে নিন বিস্তারিত

সারদা চিটফান্ড মামলায় প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার আবারও একবার সিবিআইয়ের তলব এড়ালেন। সম্প্রতি রাজীব কুমার হাইকোর্টে সিবিআই এর বিরুদ্ধে মামলা করেন এবং গ্রেফতারি এড়াতে বারেবারে আদালতের কাছে সময় চান। কিন্তু গত শুক্রবার হাইকোর্ট মামলার রায় দান সম্পন্ন করেছে। আর তার পর থেকেই রাজীব কুমার উধাও হয়ে গেছে বলে মনে

হেভিওয়েট তৃণমূল নেতার “অসম্মানে” পাশে দাঁড়াচ্ছে বিজেপি! বাড়ছে ক্রমশ জল্পনা

রাজনীতি আর ক্রিকেট খেলায় সবই সম্ভব শেষ মুহূর্তে গোটা খেলা পাল্টে যেতে পারে এই কথা অনেক আগে থেকেই চলছিল। কিন্তু বাংলার রাজনীতিতে তৃণমূলের পাশে বিজেপি দাঁড়াতে পারে একথা এখন অসম্ভব বলে মনে হলেও কিন্তু এরকম একটি কঠিন ঘটনা নিদর্শন পাওয়া গেল দুর্গাপুরে। সম্প্রতি দুর্গাপুরের একটি কলেজে বাংলা ভাষা ব্যবহারকে কেন্দ্র করে

কাটমানি নিয়ে অবৈধ নির্মাণ ও চাকরির প্রতিশ্রুতি! হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে পোস্টার

লোকসভা নির্বাচনে, দলের খারাপ ফলাফলের পরে, ঘুরে দাঁড়াতে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 'কাটমানি' ফেরতের নিদান দেন। কিন্তু বর্তমানে, নিত্যদিন কাটমানির অভিযোগে দল হিসাবে তৃণমূলকে বেশ বিপাকে পড়তে হচ্ছে। বারবার সাবধান করেও কাঠমানি প্রসঙ্গকে এড়ানো যাচ্ছে না। প্রতিদিন উঠে আসছে একের পর এক নিত্য-নতুন অভিযোগ। শুধুমাত্র যে বিরোধী দলের অভিযোগ এই

দলের সাংগঠনিক বিন্যাস ঠিক করে দেবে টীম-পিকে! বায়োডাটা জমা নিয়ে জল্পনা শাসকদলের অন্দরে

লোকসভা নির্বাচনে দলের খারাপ ফলাফলের পরই দলকে নতুন করে তৈরি করতে তৃনমূল নেত্রী ভরসা রাখেন ভোটগুরু বলে পরিচিত প্রশান্ত কিশোরের ওপর। আর রননীতিকার হিসেবে তৃনমূলের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই ঘাসফুল শিবিরকে চাঙ্গা করার চেষ্টা করছেন তিনি। এতদিন তৃনমূলের জনপ্রতিনিধিদের দিদিকে বলো প্রকল্পের মাধ্যমে জনসংযোগে পাঠানো হয়েছে। তবে এবার ‘ইন্টারভিউ’ নিয়ে বুথস্তরে

এবার বাংলার বুকেই প্রকাশ্যে শৌচ করায় বন্ধ রেশন, জরিমানা ৫০ হাজার!

অস্বচ্ছতা বন্ধ করতে নেওয়া হল কড়া পদক্ষেপ। মাঠে-ঘাটে প্রকাশ্যে শৌচক্রিয়া বন্ধ করতে বহুদিন আগে থেকেই কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও প্রকাশ্যে শৌচকর্ম করা থেকে বিরত থাকতে দেখা যায়নি অনেককেই। আর এবার মুক্ত প্রকৃতিতে প্রাতঃকৃত্য করার অভিযোগে এক দিনমজুর পরিবারের প্রাপ্য রেশন স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান ডিলারকে লিখিত নির্দেশ দিয়ে

আবার দিলীপ ঘোষকে ঘিরে কালোপতাকা ও গো- ব্যাক স্লোগান – ধুন্ধুমার বর্ধমানে

রাজ্য বিজেপির সভাপতি হিসেবে দিলীপ ঘোষ দায়িত্ব পাওয়ার পরই রাজ্যে বিজেপির প্রভাব অনেকটাই বাড়তে শুরু করেছে। যার ফলে 2016 বিধানসভা নির্বাচন এবং সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় অভূতপূর্ব ফলাফল করেছে। আর যার নেতৃত্বে ঘাসফুলকে কিছুটা রুখে দিয়ে পদ্মফুলের এই অভূতপূর্ব ফলাফল হয়েছে, সেই দিলীপ ঘোষের প্রতি বিভিন্ন জায়গায় রাজ্যের

অবশেষে সাজা ঘোষণা খাগড়াগড় কাণ্ডের ১৯ দোষীর – একনজরে দেখে নিন কে কি শাস্তি পেলেন

অবশেষে রাজ্যের অন্যতম হাই-প্রোফাইল মামলা খাগড়াগড়-কাণ্ডের সাজা ঘোষণা হল কলকাতার নগর ও দায়রা আদালতে। বিচারপতি সিদ্ধার্থ কাঞ্জিলাল আজ ঘোষণা করেন। আগেই অভিযুক্ত ১৯ জন নিজেদের দশ স্বীকার করে নিয়েছিলেন, কিন্তু যেহেতু তাদের সন্তান-সন্ততি রয়েছে, তাই আদালতের কাছে সর্বনিম্ন সাজা দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন তারা। যদিও, তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে সকলের সর্বোচ্চ

Top
error: Content is protected !!