এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য

মুখ্যমন্ত্রী প্রশাসন দেখুন, বিজেপিকে তৃণমূলের ছাত্র-যুবরাই মোকাবিলা করতে পারবে: অভিষেক

  লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় 18 আসন পাওয়ার পরই রাজ্যে গেরুয়া ঝড় দেখা দিতে শুরু করে। 42 এ 42 এর স্লোগান তুলেও তৃণমূলকে আটকে যেতে হয় 22 টি আসন দখল করেই। আর এরপর থেকেই নিজেদের সংগঠনকে চাঙ্গা করতে দলীয় স্তরে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করে তৃণমূল কংগ্রেস। পাশাপাশি বিজেপি বিরোধিতায় সুর চড়াতেও শুরু

তীব্র উত্থান হচ্ছে বিজেপির, পুরভোটের আগে মুখ থুবড়ে পড়বে বাম- কংগ্রেস জোট? সংশয়ে একাধিক জোটপন্থীই

  লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির উত্থান এবং নিজেদের ভোট বিজেপি দিকে চলে যাওয়া। এই দুই কারণে দিনকে দিন অস্তিত্ব সংকট হতে দেখা যাচ্ছে বাম এবং কংগ্রেসের। 2016 সালে শেষবার তারা জোট করে লড়াই করলেও তেমন সাফল্য পায়নি। তারপর বহুবার একসাথে লড়াইয়ের কথা হলেও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। কিন্তু 2019 এর লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির

মুখ্যমন্ত্রীর রোষানলে একাধিক নেতা? শীঘ্রই রাজ্য মন্ত্রীসভায় ব্যাপক রদবদল? বাড়ছে জল্পনা

2021 এ লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামছে রাজ্যের শাসক শিবির তৃণমূল। লোকসভা ভোটের পর কার্যত ভরাডুবির পর প্রশান্তির সমস্ত দায়িত্ব তুলে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তৃণমূলকে বাঁচাতে প্রশান্ত কিশোর একের পর এক কর্মসূচি নিয়ে চলেছেন। দল সরকারের সমন্বয়ে দিদিকে বল কর্মসূচিতে কাজ শুরু হয়ে গেছে আর সামনে উপনির্বাচন সেখানেও দলের

জয়প্রকাশ মজুমদারই কি করিমপুর উপনির্বাচনে ‘ফ্যাক্টর’ হতে চলেছেন? ক্রমশ তীব্র হচ্ছে জল্পনা

আগামী 25 শে নভেম্বর খড়গপুর, করিমগঞ্জ এর সাথে সাথে করিমপুরেও বিধানসভা উপনির্বাচন হতে চলেছে। করিমপুর গড় অবশ্য তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি। গত লোকসভা ভোটে করিমপুরের কেন্দ্রটি তৃণমূলের দখলে ছিল। এই কেন্দ্রে লোকসভা ভোটে তৃণমূল 14 হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে ছিল বিজেপি প্রার্থীর থেকে। যদিও লোকসভা নির্বাচনের পর এ রাজ্যে বিজেপি পায়ের

ট্যাগড

দিদিমণির পুলিশ আছে, ভোট লুটের চেষ্টা হলে খাটিয়া না অ্যাম্বুলেন্সে যাবেন আমরা দেখব: দিলীপ

  কখনও গরুর দুধের সোনা, কখনও রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বারেবারেই খবরের শিরোনামে এসেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর এবার ফের করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের প্রচারে এগিয়ে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকে কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দিলেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ। বস্তুত, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকেই রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস

এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিশ্ব হিন্দু পরিষদ?

রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের মধ্যে বহু বিষয়ে মতভেদ থাকলেও অযোধ্যা মামলার মতন সংবেদনশীল ব্যাপারে প্রত্যেকে একই পথ অবলম্বন করেছে। দেশের কোনো রাজনৈতিক দলই অযোধ্যা মামলার রায় নিয়ে কোনো বিতর্কিত মন্তব্যের দিকে যাননি। পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের পক্ষ থেকে মুখ্যমন্ত্রী পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছিলেন, অযোধ্যা মামলার রায় নিয়ে কোনো বক্তব্য রাখা চলবে না। যা

উপনির্বাচনের আগে নাগরিক পরিষেবা নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন এলাকাবাসী, ঘুম উড়তে চলেছে তৃণমূলের?

লোকসভা নির্বাচনের তীব্র রাজনৈতিক উত্তাপের রেশ মিটতে না মিটতেই, আবার বাংলার বুকে নির্বাচনী দামামা। রাজ্যের ৩ প্রান্তের ৩ আসনে উপনির্বাচন হতে চলেছে আগামী ২৫ শে নভেম্বর। লোকসভায় ৪২-এ-৪২ দাবি করে কার্যত মুখ থুবড়ে পড়তে হয়েছে, রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে। আর তারপরেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেওয়া হয়েছে একাধিক পদক্ষেপ। ভোট বিশেষজ্ঞ প্রশান্ত

নজর শিল্পায়ন, শিল্পপতিদের সাহায্যার্থে নতুন জমি খুঁজে তা সরকারের করতে মরিয়া রাজ্য প্রশাসন

  2011 সালে রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পরই বড় শিল্প অপেক্ষা ছোট শিল্পের ওপর বেশি জোর দিতে দেখা যায় মমতা বন্দোপাধ্যায়কে। যা নিয়ে নানা মহলে সমালোচনারও শিকার হয়েছিলেন তিনি। অনেকে ভেবেছিলেন, ছোট এবং মাঝারি শিল্প থেকে যেহেতু বেশি পরিমাণে কর্মসংস্থানের দিক খুলে যায়, তাই তার ওপর জোর দিতে চাইছে রাজ্য সরকার। তবে

নিমন্ত্রিত হয়েও জেলার ঐতিহ্যবাদী অনুষ্ঠানে গরহাজির থেকে জল্পনা বাড়ালেন হেভিওয়েট মন্ত্রী

  রাস পূর্ণিমায় প্রতিবছর অনুষ্ঠিত হয় কোচবিহারের ঐতিহ্যবাহী রাসমেলা। যে মেলা কোচবিহারের সাহিত্য এবং সংস্কৃতির অন্যতম কেন্দ্র বলেও পরিচিত। এবার সেই রাসমেলায় তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা, মন্ত্রীরা উপস্থিত থাকলেও সেখানে অনুপস্থিত থাকতে দেখা গেল জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি তথা মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে। সূত্রের খবর, এদিন কোচবিহারের রাসমেলায় গৌতম দেব থেকে শুরু করে পার্থ

জল্পনা বাড়িয়ে এবার নিরাপত্তারক্ষী ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী

  মন্ত্রী হলেই যে কেউ নিরাপত্তারক্ষী পান। সাইরেন বাজানো গাড়ি, পুলিশ প্রহরায় পথ চলতে কার না ভালো লাগে! তবে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরও সেইভাবে নিরাপত্তারক্ষী নিতে দেখা যায়নি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। মানুষের মাঝে মিশে নিরাপত্তার বেড়াজালকে দূরে সরিয়ে রেখেছিলেন তিনি। আর এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেখানো পথেই হাঁটলেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। বস্তুত, কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল

Top
error: Content is protected !!