এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয়

এবার রাজ্য সরকারের সঙ্গে রাজ্যপালের বিরোধ সংসদে তুলতে চলেছে তৃণমূল! বাড়ছে জল্পনা

  জাগদীপ ধনকার বাংলার রাজ্যপাল হওয়ার পর থেকেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে তার বিভিন্ন ক্ষেত্রে দূরত্ব তৈরি হয়েছে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে জিয়াগঞ্জের ঘটনা, দুর্গাপুজোর কার্নিভাল থেকে শুরু করে প্রশাসনিক বৈঠক, বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে শোরগোল তুলে দিয়েছিলেন তিনি। যার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময়ে সেই রাজ্যপালকে "পদ্মপাল"

সরকার গঠন নিয়ে টালমাটাল পরিস্থিতি, বিজেপির বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ শিবসেনার

  বর্তমানে মহারাষ্ট্র সরকার গঠন নিয়ে চলছে জোর চাপানউতোর। প্রথম থেকেই এই রাজ্যের ক্ষমতা দখল করতে উদগ্রীব হয়ে পড়েছিল গেরুয়া শিবির। তবে ফলাফলে তাদের ম্যাজিক ফিগার না থাকায় শিবসেনাকে বাগে পেতে চেষ্টা করেছিল তারা। কিন্তু শিবসেনা বিজেপিকে ফিফটি- ফিফটি ফর্মুলা দেওয়ায় তাতে রাজি হয়নি গেরুয়া শিবির। আর এতেই তৈরি হয় জটিলতা। যার

বিজেপির হাতে 119 বিধায়ক, বিস্ফোরক তথ্য দিলেন রাজ্য সভাপতি

  মহারাষ্ট্রের ফলাফল ঘোষণার পর থেকেই কে সেখানে সরকার গড়বে, তা নিয়ে প্রবল জল্পনা তৈরি হয়েছিল। বিজেপি শিবসেনা সঙ্গে জোট করে সরকার গড়তে চাইলেও শিবসেনার শর্তে তারা সেইভাবে রাজি হয়নি যার কারণে সরকার গড়ার দিন পেরিয়ে গিয়েছিল। বর্তমানে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হয়েছে। তবে এই পরিস্থিতিতে এনসিপি কংগ্রেস এবং শিবসেনা জোট

বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্ত 35 লক্ষ মানুষ! কেন্দ্রের কাছে 24 হাজার কোটি টাকা চাইল মমতা-সরকার

  সম্প্রতি রাজ্যের উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। যার প্রভাবে রাজ্যের অনেক এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রথম দিকে এই বুলবুলের ভয়ংকরতা অনুভব করে রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হয়েছিল। আর পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে এই বুলবুল বয়ে যেতে পারে এবং তার প্রভাব ভয়ংকর হতে পারে, তা অনুধাবন করে রাজ্যের

সদ্য-সমাপ্ত হওয়া ভোটের ফলাফলে কি প্রভাব পড়বে আগামী পৌরসভা নির্বাচনে! জোর গুঞ্জন

  কিছুদিন আগেই মহারাষ্ট্রে ফলাফল ঘোষণা হয়েছে। যেখানে বিজেপি সরকার গড়ার ব্যাপারে আত্মপ্রত্যয়ী থাকলেও ম্যাজিক ফিগার দখল করতে পারেনি তারা। যার ফলে বিজেপির সাথে শিবসেনা জোট গড়ে সরকার গঠন করতে পারে বলে মনে করেছিল একাংশ। কিন্তু শিবসেনার পক্ষ থেকে বিজেপিকে ক্ষমতা দখলের ব্যাপারে ফিফটি-ফিফটি ফর্মুলা দেওয়ায় বিজেপি তা মানতে রাজি হয়নি।

জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আরেকটি রাজ্যে বিজেপিকে চরম ধাক্কা দিতে চলেছে সম্মিলিত বিরোধীরা

  লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিকে আটকাতে বিরোধী মহাজোটের ডাক দিয়েছিলেন বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিজেদের মধ্যে মতানৈক্যের জন্য সেই জোট কার্যকর হয়নি। যার ফলে 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনে আরও বেশি করে মোদি ঝড় বইতে দেখা গেছে। তবে লোকসভা নির্বাচনে বিরোধীদের যখন কার্যত অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যেতে বসেছে, তখন

উদ্ধব ঠাকরেকে মুখ্যমন্ত্রী করে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের ফর্মুলা প্রায় করে ফেলল সেনা- এনসিপি-কংগ্রেস

  কথা ছিল, বিজেপি-শিবসেনাই জোট করে সরকার গঠন করবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত যেভাবে নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হল, তাতে তা সম্ভব হয়নি। আর এবার মহারাষ্ট্রে অভিন্ন ন্যূনতম কর্মসূচির ভিত্তিতে তিন রাজনৈতিক দলের বৈঠক তীব্র জল্পনা বাড়িয়ে দিল। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই শরদ পাওয়ারের দল এনসিপি, কংগ্রেস এবং শিবসেনা এক সঙ্গে বৈঠক সেরে নিয়েছে।

ফের কি নতুন করে শুরু হবে অযোধ্যা মামলা?থমকে যাবে অযোধ্যায় মন্দির তৈরির কাজ -জল্পনা তুঙ্গে

  দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর সম্প্রতি দেশের শীর্ষ আদালত অযোধ্যা মামলার রায় দিয়েছে। যেখানে অযোধ্যা মন্দির করার ব্যাপারে সবুজ সংকেত দিয়ে দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ব্যাপারটিকেই মান্যতা দিতে দেখা গেছে সুপ্রিম কোর্টকে। তবে রায়ের আগে এবং পরে প্রায় বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের মধ্যেই আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল যে, এই রায়দানের পর হয়ত বা পরিস্থিতি ঘোরালো

শিবসেনার দাবি নিয়ে এবার মুখ খুললেন অমিত শাহ

সরকার গঠনের নাটকে নয়া মোড় মহারাষ্ট্রে। ইতিমধ্যে শিবসেনা এবং এনসিপিও যথাক্রমে সরকার গঠনের জন্য দাবি পেশ না করতে পারায় মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশ করেন এবং মোদির মন্ত্রিসভা তা মেনে নিয়েই মহারাষ্ট্রে আগামী ছয় মাসের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করে দেওয়া হয়েছে। আর এর পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে শিবসেনা। তাঁদের

শেষ হইয়া ও হইল না শেষ, শবরীমালা মন্দির এখনও রইলো ঝুলে

আশা ছিল, সুপ্রিম কোর্ট এই ব্যাপারে রায়দান করবে। কিন্তু খুব বেশি আশা করলে যে ফল মেলে না, তা প্রমাণ হয়ে গেল। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছর দেশের শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, শবরীমালা মন্দিরে সব বয়সের মহিলাদের প্রবেশ করতে দিতে হবে। কিন্তু আদালতের এই রায়ের প্রবল বিরোধিতা করতে দেখা যায় পুরোহিত

Top
error: Content is protected !!