এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পুরোনো বিধায়কদের প্রার্থী করা হলে হারবে! তৃণমূলের দাপুটে নেতার পোস্টে তুলকালাম দলের মধ্যেই

পুরোনো বিধায়কদের প্রার্থী করা হলে হারবে! তৃণমূলের দাপুটে নেতার পোস্টে তুলকালাম দলের মধ্যেই

 

লোকসভায় তৃণমূলের ফলাফল খারাপ হয়েছে। আর দলের ফলাফল খারাপ হওয়ার পর দলের শৃংখলার প্রতি বেশি জোর দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু এবার যত দিন যাচ্ছে, ততই যেন দলীয় নেতা, বিধায়কদের মন্তব্য অস্বস্তিতে ফেলে দিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসকে।

সূত্রের খবর, পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সদস্য নুরুল হাসানের বিতর্কিত পোস্ট এবার প্রবল অস্বস্তিতে ফেলল ঘাসফুল শিবিরকে। জানা গেছে, অবিভক্ত সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দীর্ঘদিনের সভাপতির দায়িত্ব সামলে এসেছেন এই নুরুল হাসান। জেলা রাজনীতিতে মন্ত্রী মলয় ঘটকের অনুগামী হিসেবে তিনি দীর্ঘদিনের পরিচিত। আর এদিন যখন মলয় ঘটক পূর্ব বর্ধমান জেলার পর্যবেক্ষক দায়িত্ব পেলেন, সেদিনই সোশ্যাল মিডিয়ায় নুরুল হাসানের বিস্ফোরক পোস্ট ঘিরে শুরু হয়েছে জল্পনা।

সূত্রের খবর, শুক্রবার দুপুরে একটি পোস্টে নুরুল হাসান লেখেন, “পূর্ব বর্ধমান জেলার 16 টি আসনের মধ্যে ছয়টি আসনে বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বে প্রার্থীদের আবার যদি প্রার্থী করা হয়, তাহলে দল হারবে।” তবে সেই 6 টি আসনের মধ্যে কোন কোন আসন রয়েছে, তা অবশ্য এদিন নিজের পোস্টে উল্লেখ করেননি নুরুল হাসান।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্ধমান দক্ষিণ, বর্ধমান উত্তর, ভাতার এবং মেমারি বিধানসভা এই নুরুল হাসানের পোষ্টের মধ্যে রয়েছে। আর দলের বিড়ম্বনা বাড়িয়ে নুরুলবাবুর এই পোস্ট এখন প্রবল অস্বস্থিতে ফেলেছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। কেন তিনি এরকম পোস্ট করলেন! এদিন এই প্রসঙ্গে নুরুলবাবুর ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিত্বদের দাবি, দলের একাংশের সঙ্গে জনগণের গুরুত্ব তৈরি হয়েছে, সেটা নুরুলদা বুঝতে পেরেছেন। আর তাই তিনি আগে থেকেই সতর্ক করতে এই ধরনের পোস্ট করেছেন। কিন্তু তিনি কেন এই ধরনের পোস্ট করলেন! এতে কি দল অস্বস্তিতে পড়ল না! এদিন এই প্রসঙ্গে নুরুল হাসানকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “যা বলার, দলকে বলব।”

এদিকে নুরুলবাবুর এই পোস্ট নিয়ে জেলা তৃণমূলের সভাপতি স্বপন দেবনাথ বলেন, “ভিত্তিহীন কথার কি জবাব দেব!” আর এইসব দেখে ইতিমধ্যেই তৃণমূলকে খোঁচা দিতে শুরু করেছে বিরোধী রাজনৈতিক দলেরা। এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির সাংগঠনিক জেলা সভাপতি সন্দীপ নন্দী বলেন, “হাওয়া বদলাচ্ছে, সেটা তৃণমূল নেতারা টের পেয়ে গিয়েছেন। সেই জন্যই এই পোস্ট।” এদিকে এই ব্যাপারে সিপিএমের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য উদয় সরকার বলেন, “বিধানসভায় বাছাবাছির প্রয়োজন নেই। সব কটাতেই তৃণমূল হারবে।”

সব মিলিয়ে তৃণমূলের নুরুল হাসানের প্রার্থী নিয়ে বিস্ফোরক পোস্ট তৃণমূলের অস্বস্তিকে দ্বিগুণ বাড়িয়ে দিল বলেই মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!