এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > প্রার্থী বাছাই নিয়ে তীব্র ডামাডোল গেরুয়া শিবিরে? ভোটের আগে বাড়ছে জল্পনা

প্রার্থী বাছাই নিয়ে তীব্র ডামাডোল গেরুয়া শিবিরে? ভোটের আগে বাড়ছে জল্পনা

১৯’এর লোকসভা ভোটের আগেই পাঁচটি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। এর মধ্যে বেশিরভাগই বর্তমানে বিজেপি শাসিত। মধ্যপ্রদেশ এই সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলোর মধ্যে অন্যতম। আগামী ২৮ নভেম্বর নির্বাচন রয়েছে সেখানে। প্রচার পর্বে কোনো খামতি রাখছে না বিজেপি। তবুও প্রতিষ্ঠান বিরোধী হওয়া ভালোই প্রবল সেখানে। তার উপর প্রার্থী বাছাই নিয়ে নতুন সমস্যা তৈরি হয়েছে গেরুয়া শিবিরের অন্দরে।সকলেই প্রার্থী হতে ইচ্ছুক।

এমতাবস্থায় কাকে প্রার্থীর তালিকায় রাখবে আর কাকে বাদ দেবে তা নিয়ে বেজায় হিমসিম খাচ্ছে দলীয় শীর্ষ নেতারা। প্রার্থী হওয়ার জন্য মারাত্মক ইঁদুর দৌড় শুরু হয়েছে দলীয় অন্দরে। আর সকলেই চায় ‘নিশ্চিত’ কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হতে। ইতিমধ্যে অনেকেই দলের সদর দফতরে সমর্থকদের পাঠিয়ে শ্লোগানও দিতে শুরু করেছেন প্রার্থী হওয়ার দাবীকে আরো জোড়দার করতে।

এদিন যেমন হুজুর,মধ্য ভোপাল,দক্ষিণ ভোপাল কেন্দ্রেী সমর্থকরা পার্টি অফিসের সামনে এসে ধর্না দেন। দাবী,উমা ভারতী সহ একাধিক বিজেপি প্রভাবশালী নেতাদের ভোটে প্রার্থী হওয়ার পক্ষে সওয়াল তোলেন। এর সঙ্গে প্রতিযোগিতা রয়েছে নতুন প্রার্থীদের। যারা কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধী দল থেকে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তাঁদের প্রার্থী করার চাপ রয়েছে।

তাঁরা বিরোধী দল ছেড়ে বিজেপিতে আসার পরও যদি ভোট দাঁড়াতে না পারেন তাহলে ক্ষোভের একটা কারণ তৈরি হবে। যা আগামী লোকসভা ভোটের জন্য হানিকারক নয়। আপাতত সাঁড়াশী চাপে মধ্যপ্রদেশের বিজেপি নেতৃত্বরা। কাকে প্রার্থী করা হবে আর কাকে তালিকা থেকে ছাঁটাই করা হবে তা নিয়ে চিন্তায় রাতের ঘুম উড়েছে তাঁদের।

মধ্যপ্রদেশে বিধানসভায় মোট ২৩০ টি আসন রয়েছে। গতকাল প্রাথমিক পর্যায়ের বৈঠকে ১২৫ জন প্রার্থীর নাম চূড়ান্ত করতে পেরেছে বিজেপি। এই ১২৫ জনের নাম রাজ্য বিজেপির তরফ থেকে জাতীয় কর্মসমিতির কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাকি ১০৫ জনের নাম চূড়ান্ত করে শীঘ্রই পাঠিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত বৈঠকে বসবে বিজেপির জাতীয় কর্মসমিতি। সেখান থেকে অনুমোদন পেলেই ঘোষিত হবে বিধানসভা ভোটের প্রার্থীদের নাম। উল্লেখ্য, মধ্যপ্রদেশে তিন দফায় ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি। অনেক দলীয় বিধায়কদের বিরুদ্ধেই নানান ধরনের দূর্নীতিমূলক অভিযোগ উঠেছে। সেসব বিধায়কদের এবার প্রার্থীর তালিকা থেকে বাদ দিতে চয় বিজেপি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কারণ,একেই তো বিজেপি বিরোধী হাওয়া চলছে রাজ্য তথা গোটা দেশে। তাই বিধানসভা এবং লোকসভা ভোটের আগে বিজেপির ভাবমূর্তি স্বচ্ছ রাখতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে গেরুয়া শিবির নেতৃত্বরা। ঠিক করা হয়েছে এরকম ৬০ জন বিধায়ককে এবার ভোটের টিকিট দেওয়া হবে না। বাতিল হওয়া প্রার্থী তালিকায় ৫ জন হেভিওয়েট মন্ত্রীদের নাম থাকারও সম্ভাবনা প্রবল,এমন টাই দলীয় সূত্রের খবর থেকে জানা গিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!