এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সামনেই উপনির্বাচন – বিজেপির দাপটে প্রার্থী পাওয়া নিয়ে ঘুম উড়ছে বামফ্রন্টের

সামনেই উপনির্বাচন – বিজেপির দাপটে প্রার্থী পাওয়া নিয়ে ঘুম উড়ছে বামফ্রন্টের

এরাজ্যে বামদের সংগঠনের প্রায় করুন দশা। সদ্যসমাপ্ত পঞ্চায়েত ভোটে  34% বা তার বেশি আসনে প্রার্থীই দিতে পারেনি বাম দলগুলি। এবার বাংলায় বামেদের এই নাস্তানাবুদ অবস্থা কি পাশের রাজ্য ত্রিপুরাতেও দেখা যাবে?

সূত্রের খবর, গত 1 সেপ্টেম্বর ত্রিপুরার নির্বাচন কমিশন সেই রাজ্যে পঞ্চায়েতের উপনির্বাচনের দিনক্ষন ঘোষনা করেন। জানা গেছে, আগামী 30 তারিখে এখানে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন আগামী 11 সেপ্টেম্বর। ভোট গননা হবে 3 অক্টোবর। আর আজ এই নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি হতে না হতেই সেই ত্রিপুরার রাজনৈতিক মহলে একটাই প্রশ্ন ঘনীভূত হয়েছে যে, সদ্য ক্ষমতা থেকে বিদায় নেওয়া মানিক সরকারের দল আদৌ কি এই পঞ্চায়েতে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়ে নিজেদের আসন ধরে রাখতে পারবে। কেননা রাজ্যে পালাবদলের পর বামেদের পঞ্চায়েত সদস্যরা নানা কারনে তাদের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন, কেউ আবার মারাও গেছেন। তাই সেই জায়গায় এই পুননির্বাচন হচ্ছে।

জানা গেছে, এই ত্রিপুরার গ্রাম পঞ্চায়েতের 6 হাজার 111 টি আসনের মধ্যে উপনির্বাচন হবে 3 হাজার 207 টি আসনে। ইতিমধ্যেই রাজ্যে বিধানসভায় সিপিএমকে সরিয়ে বিজেপি ক্ষমতায় বসার পর থেকেই বিরোধী দলগুলি সেই বিজেপির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলেছে। তবে এই পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রার্থী দিতে সব আসনেই তারা লড়বে বলে মৌখিক ভাবে জানিয়ে রেখেছে বাম, কংগ্রেস এবং তৃনমূলের মত বিরোধী দলগুলো।

এদিন এই পঞ্চায়েত নির্বাচন সম্পর্কে বিজেপির বিরুদ্ধেই অভিযোগ তুলে ত্রিপুরা সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর বলেন, “বিজেপির ভয়ে জনপ্রতিনিধিরা ইস্তফা দিয়েছে। তাই এখন উপনির্বাচন হচ্ছে।” অন্যদিকে বামেদের এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে ত্রিপুরার বিজেপি নেতা তাপস ভট্টাচার্য বলেন, “মানুষের কাছ থেকে দল বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়াতেই নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা ইস্তফা দিয়েছে। এতে সন্ত্রাসের প্রশ্নই নেই।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক মহলের মতে, বাংলায় এবারের পঞ্চায়েত ভোটে শাসকদল তৃনমূলকে ঠেকাতে একাধিক জায়গায় হাতে হাত রেখে বোর্ড গঠন করেছে বাম-কংগ্রেস এবং বিজেপি। এবারে বাংলার সেই মডেলকে হাতিয়ার করে ত্রিপুরার শাসকদল বিজেপিকে ঠেকাতে পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনে হাতে হাত রেখে বাম-কংগ্রেস এবং তৃনমূল লড়াই করে কি না সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!