এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > এক বিরল গণেশ মূর্তি উদ্ধার বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস থেকে

এক বিরল গণেশ মূর্তি উদ্ধার বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস থেকে

আট হাত বিশিষ্ট এক প্রাচীন গনেশ মূর্তির হদিশ মিললো বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ ক্যাম্পাস থেকে। কলেজ চত্বর থেকে এটি উদ্ধার করার পরই কলেজ কর্তৃপক্ষ তথা পড়ুয়াদের মধ্যেও তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছিলো। কষ্টিপাথরের তৈরি আড়াই ফুটের মূর্তি ওটি। এদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের তারাবাগ ক্যাম্পাসের মাঠে মাটি ফেলার কাজ চলছিল। দুপুরে ওই মাঠেই মূর্তিটি পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় এক যুবক। সে সেটি বাড়ি নিয়ে চলে গিয়েছিলো এবং রীতিমতো ঠাকুরের আসনে বসিয়ে পুজোও শুরু করে দিয়েছিলো।

প্রিয় বন্ধু বাংলার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ – Priyo Bandhu Bengali

—————————————————————————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

খবর পেয়েই,ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌছেছিলো বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে,প্রাচীন মূর্তিটির হদিশ না পেয়ে তাঁদের ছুটতে হয়েছিলো পুলিশের কাছে। এরপর পুলিশি তৎপরতাতেই ওই যুবকের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয় আড়াই ফুটের মূর্তিটিকে। শতাব্দী প্রাচীন মূর্তি হাতে আসায় খুশির হাওয়া আপাতত বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মূর্তিটিকে মিউজিয়ামের রাখার জন্য বিশেষভাবে আগ্রহী।

এ ইচ্ছার বাস্তবায়ন নিয়ে সক্রিয়তাও দেখা গেছে কর্তৃপক্ষের মধ্যে। এর জন্য,বিশ্ববিদ্যালয়ের কিউরেটর রঙ্গণকান্তি জানাকে দেখা যায় বর্ধমান থানা। তিনি পুলিশ প্রশাসনের কাছে আর্জি জানান মূর্তিটিকে মিউজিয়ামে রাখার ব্যবস্থা করে দিতে। তবে এ প্রসঙ্গে একরকম নেতিবাচক উত্তরই এসেছে পূর্ব বর্ধমানের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর) প্রিয়ব্রত রায়ের তরফ থেকে। তবে তিনি আশ্বাস দিয়ে জানিয়েছেন যে, মূর্তিটিকে পরীক্ষার জন্য ইতিমধ্যেই পুরাতত্ত্ব বিভাগকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। তাঁরা যা বললেন সেই অনুযায়ীই কাজ করতে হবে পুলিশ প্রশাসনকে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!