এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বুদ্ধ-জামানকে পিছনে ফেলে নেতৃত্ত্বে নতুন রক্তসঞ্চার করে নতুন পথের সন্ধানে বামফ্রন্ট

বুদ্ধ-জামানকে পিছনে ফেলে নেতৃত্ত্বে নতুন রক্তসঞ্চার করে নতুন পথের সন্ধানে বামফ্রন্ট

বুদ্ধ-জামানকে পিছনে ফেলে নেতৃত্ত্বে নতুন রক্তসঞ্চার করে নতুন পথের সন্ধানে বামফ্রন্ট। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, শ্যামল চক্রবর্তী, মদন ঘোষ, দীপক সরকারের মতো প্রবীণ নেতাদের সরিয়ে এবার সিপিএমের রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীতে জায়গা পেলেন মানব মুখোপাধ্যায়, আভাস রায়চৌধুরী, অনাদি সাহু ও সুমিত দে- এর মতো তরুণ মুখ। জানা গেছে শিলিগুড়়ির অশোক ভট্টাচার্য ও বীরভূমের রামচন্দ্র ডোম এই দুজন সম্পাদকমন্ডলীর আমন্ত্রিত সদস্যকে  এ বার পূর্ণ সদস্য করা হয়েছে। তবে প্রবীণ নেতাদের মতো এই তরুণ দল কতখানি সক্রিয় হবে সে বিষয় নিয়ে বিস্তর জল্পনা শুরু হয়েছে দলিলের অন্দরে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

আলিমুদ্দিনে সংঘটিত রাজ্য কমিটির বৈঠকের শেষ দিনে উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। এদিন রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, “মনোনয়নে সন্ত্রাস, ভোটের দিনে লুট এবং গণনায় কারচুপির মধ্যে এ বারের পঞ্চায়েত নির্বাচন হয়েছে। তার মধ্যেও বহু জায়গায় মানুষ প্রতিরোধে নেমেছেন। এটা যেমন এই ভোটে উঠে আসা নতুন প্রবণতা, তেমনই দলের রাজ্য কমিটি চেষ্টা করেও বাম নেতা-কর্মীদের কিছু অংশের তৃণমূলকে রুখতে বিজেপিকে সাহায্য করার মতো ‘মিথ্যা মোহজাল’ কাটাতে পারেনি। সাম্প্রদায়িক মেরুকরণের রাজনীতির মোকাবিলা ঠিক মতো হয়নি। আবার ভোট কবে হবে, তা নিয়ে অনিশ্চয়তার কারণ দেখিয়ে অনেক জায়গায় সাংগঠনিক প্রস্তুতিও ঠিক মতো হয়নি।” এদিন সীতারাম ইয়েচুরি মোদীসরকারের পেট্রল-ডিজেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রসঙ্গ টেনে এনে নিজেদের সর্বশক্তি দিয়ে লড়াই করার কথা ঘোষণা করেন। সম্প্রতি কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে বেঙ্গালুরুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে উপস্থিত থাকার প্রসঙ্গে তিনি স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, একসাথে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা মানেই যে বাংলায় বাম-তৃণমূল সমঝোতা হবে তা সম্পূর্ণভাবে ভুল।

Top
error: Content is protected !!