এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > এবারের ব্রিগেড ভেঙে দেবে অতীতের সব রেকর্ড! মহাসমাবেশের মহামঞ্চের খুঁটিপুজো করে কাজ শুরু শাসকদলের

এবারের ব্রিগেড ভেঙে দেবে অতীতের সব রেকর্ড! মহাসমাবেশের মহামঞ্চের খুঁটিপুজো করে কাজ শুরু শাসকদলের

এক সময় এই ব্রিগেডের মঞ্চে সমাবেশ করে তৎকালীন রাজ্যের শাসক দল বাম সরকারের মৃত্যু ঘন্টা বাজিয়ে ছিলেন রাজ্যের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপর গত 2011 সালে সেই বাম সরকারকে হটিয়েই ক্ষমতায় বসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস। 2011 সালে ফের রাজ্যের সমস্ত মানুষকে পরিবর্তনের সরকার প্রতিষ্ঠিত করার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে একটি ব্রিগেড সমাবেশ করে তৃণমূল কংগ্রেস।

তারপর থেকে তেমন ভাবে ব্রিগেডের মাঠে আর কোন জনসভা করেনি রাজ্যের শাসক দল তবে এবারে লোকসভা নির্বাচনের আগে আগামী 19 শে জানুয়ারি সেই ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডকে বেছে নিয়েই এক ঐতিহাসিক জনসমাবেশের ডাক দিয়েছে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞদের মতে, অতীতে তৃনমূলের ব্রিগেডের জনসভা বামেদের বিরুদ্ধে হলেও এবারে তার প্রেক্ষাপট অনেকটাই আলাদা। বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে উৎখাত করতে দেশে নির্ণায়ক ভূমিকায় রয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই সেই বিজেপিকে উৎখাত করতে এবং রাজনৈতিকভাবে সেই বিরোধী মহাজোটে শান দিতে সমস্ত বিজেপি বিরোধী দলগুলিকে নিয়ে ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে আগামী 19 শে জানুয়ারি ঐতিহাসিক জনসভার ডাক দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী।

আর এই ব্রিগেড সমাবেশকে সফল করতে ইতিমধ্যেই জেলায় জেলায় জোর প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছেন শাসকদলের নেতাকর্মীরা। যেহেতু এবারের ব্রিগেড অন্যান্য সব ব্রিগেডকে ছাপিয়ে যাবে বলে আশাবাদী রাজ্যের শাসকদলের নেতৃত্ব, সেহেতু গতকাল সেই ব্রিগেডের মাঠেই খুঁটি পুজো করে সভামঞ্চ নির্মাণের কাজের সূচনা করলেন তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতারা। শিক্ষা খবর এদিন শুভক্ষণ দেখে দূপুরে পুরোহিত ডেকে সেই খুঁটি পুজোর সূচনা করা হয়। যেখানে হাজির ছিলেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি, মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, তাপস রায়, কলকাতা পৌরসভার দুই মেয়র পারিষদ বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়, রতন দত্ত, তৃনমূল নেতা অলোক দাস, আশিস চক্রবর্ত্তী সহ অন্যান্যরা।

আর সেই খুঁটি পুজো করেই এবারের ব্রিগেড তাঁদের কাছে ঠিক কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা বুঝিয়ে দেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। তিনি বলেন, “এই জনসভার জাতীয় প্রেক্ষিতটা আলাদা। গোটা দেশের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে মানুষ সংগঠিত হচ্ছেন আগামী দিনে দেশ কোন দিকে যাবে তা স্থির করা হবে। প্রতি বুথ থেকে প্রায় দুই হাজারের মতো মানুষ আমাদের এই ব্রিগেড সমাবেশ আসবেন।”

অন্যদিকে এই খুঁটি পুজো থেকেই লোকসভা ভোটের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দিল্লির মসনদে বসবেন বলে জানান রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তবে অতীতের সমস্ত সমাবেশকে ছাপিয়ে আগামী 19 শে জানুয়ারির ব্রিগেডের এই সমাবেশ রেকর্ড করবে বলে আত্মবিশ্বাসী মন্ত্রী তাপস রায়। সব মিলিয়ে এবার ব্রিগেড সমাবেশের খুঁটিপুজো থেকেই লোকসভা ভোটের আগেই ফের আত্মপ্রত্যয়ের সুর শোনা গেল রাজ্যের শাসকদলের নেতা মন্ত্রীদের গলায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!