এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > এক সপ্তাহ না যেতেই বসে গেল মেরামতির জায়গা! সেতু নিয়ে ক্রমশ বাড়ছে আতঙ্ক

এক সপ্তাহ না যেতেই বসে গেল মেরামতির জায়গা! সেতু নিয়ে ক্রমশ বাড়ছে আতঙ্ক

কদিন আগেই রাজ্যের মাঝেরহাট ব্রীজ ভেঙে পড়েছেল। যেই আতঙ্ক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেননি অনেকেই। আর সাধারনের যাতে কোনো অসুবিধে না হয় সেই কারনে বিভিন্ন ব্রীজ পরিদর্শন করে মেরামতির সিদ্ধান্তও নিয়েছিল পূর্ত দপ্তর। সেইমত শহরের করুনাময়ী সেতু মেরামতও করা হয়। কিন্তু তাও শেষরক্ষা হল না। মেরামতির এক সপ্তাহের মাথায় ফের বসে বসে গেল এই করুনাময়ী সেতু।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 22 সেপ্টেম্বর এই করুনাময়ী ব্রিজের টালিগঞ্জ থেকে হরিদেবপুরমুখী অংশের ডিভাইডার লাগানো অংশ হঠাৎই ধসে পড়লে সেখানে বিটুমিন লাগিয়ে কিছুটা মেরামতি করা হয়। কিন্তু এই কাজের এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই গত বৃহস্পতিবার ফের সেই বিটুমিন খসে পড়ায় চরম আতঙ্ক ছড়াল এলাকায়। এদিকে এই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে যায় পুরসভা এবং পূর্ত দপ্তরের আধিকারিকেরা।  ফের বসানো হয় লোহার প্লেট।

পাশাপাশি ব্রিজের বসে যাওয়া অংশটিকে গার্ডরেল দিয়েও ঘিরে দেওয়া হয়। জানা যায়, ব্রিজের কাঠামোতে কোনো সমস্যা নেই। বসে যাওয়া অংশে যে পিচের আস্তরন দেওয়া হয়েছিল তা খুলে যাওয়াতেই এই ব্রিজ বসে গিয়েছে। তবে এর জেরে ব্রিজ ভেঙে পড়ার পড়ার আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন সেতু বিশেষজ্ঞরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিন এই প্রসঙ্গে 115 নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রত্না শূর বলেন, “আমি এগজিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ারের কাছ থেকেই জেনেছি যে আগে বসে যাওয়া অংশে বিটুমিন দেওয়া হয়েছিল। সেখানে জল পড়েই এই বিটুমিন উঠে গেছে। কিন্তু রাতেই এই মেরামতির কাজ শুরু করেছে।” তবে মেরামতির কাজ শুরু হলেও এইভাবে বার বার ব্রীজ বসে যাওয়ায় চরম আতঙ্কে শহরবাসী।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!