এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > সন্দেহজনক বস্তুকে ঘিরে বোমাতঙ্কে তুলকালাম কলকাতায়

সন্দেহজনক বস্তুকে ঘিরে বোমাতঙ্কে তুলকালাম কলকাতায়

কেউ বা কারা পাঠিয়েছে পার্সেল। আর এবারে সেই পার্সেলের মধ্যে থেকেই ধোঁয়া বেরোতে দেখে চরম চাঞ্চল্য তৈরি হল শহরে। গতকাল এই ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার বিধান সরণি এলাকার একটি বিয়ারিংয়ের গোডাউনে।

সূত্রের খবর, এই বিধান সরণি এলাকায় বিশাল জয়সওয়াল নামে এক ব্যক্তির বিয়ারিংয়ের গোডাউন রয়েছে। গতকাল প্রাত্যহিক কাজকর্ম সেরে গোডাউনটি খোলার সকাল 11 টা নাগাদ সেখানে হাজির হন অনলাইন শপিং সংস্থার এক কর্মী। জানা যায়, অনলাইন শপিং সংস্থার এই কর্মী একটি পার্সেল নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু গোডাউনের মালিক বিশাল জয়সওয়াল সেই সময় দোকানে না থাকায় সেই কর্মী দোকানেরই এক কর্মচারীকে সেই পার্সেলটি দিয়ে যান।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে ব্যাংক থেকে কাজ সেরে দোকানে আসতেই গোডাউনের সে কর্মচারী পার্সেলটি বিশালবাবুর হাতে তুলে দেন। আর তারপরই সেখান থেকে ধোঁয়া এবং আগুনের ফুলকি বেরোতে দেখা যায়। পার্সেলে কোনো টাইম বোমা জাতীয় বিস্ফোরক রয়েছে এই আতঙ্কে খবর দেওয়া হয় জোড়াসাঁকো থানা এবং বম্ব স্কোয়াডকে। আর এরপরই তদন্তকারী অফিসারেরা এসে গোটা ঘটনাটিকে খতিয়ে দেখে।

পুলিশ সূত্রের খবর, এই পার্সেলটির মধ্যে চকলেট বোমার মসলা ভরা ছিল। এর সঙ্গে টাইম বোমার কোনো সম্পর্কই নেই। ভয় দেখাতেই এই কাজ করা হয়েছে বলে অনুমান তাদের। অন্যদিকে যে সংস্থা থেকে বিশাল জয়সওয়ালের নামে এই পার্সেল এসেছে বাস্তবে সেই সংস্থার কোনো অস্তিত্বই খুঁজে পাননি তদন্তকারী আধিকারিকেরা। তাই সব মিলিয়ে এখন শুধুমাত্র ভয় দেখাতে নাকি পুরনো শত্রুতার জেরে বিশালবাবুর কাছে এই পার্সেল পাঠানো হলো সেই তথ্য উদঘাটনে নামল পুলিশ প্রশাসন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!