এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > বোর্ড-গঠনের আগের দিন বিস্ফোরক সব অভিযোগে বিজেপির জয়ী প্রার্থীদের গ্রেপ্তারি শুরু

বোর্ড-গঠনের আগের দিন বিস্ফোরক সব অভিযোগে বিজেপির জয়ী প্রার্থীদের গ্রেপ্তারি শুরু

রাজ্যে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন গড়া নিয়ে এবার বিভিন্ন ধরনের মুহুর্তের সাক্ষী হয়ে থাকছে বঙ্গবাসী। কোথাও বিরোধী দলের সদস্যদের শাসক দলে যোগদান, আবার কোথাও বা বিরোধীদের সম্মিলিত জোটে শাসককে পেছনে ফেলে পঞ্চায়েত দখল। এবার সেই সমস্ত ঘটনাকে পেছনে ফেলে বিরোধী পঞ্চায়েত দখল করতে ফের তৎপর হলো শাসকদল অভিযোগ এমনটাই ।

সূত্রের খবর, আমডাঙার 15 আসনবিশিষ্ট বেদাই গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃনমূল পাঁচটি, সিপিএম চারটি, নির্দল চারটি এবং বিজেপি দুটি আসন পায়। আগামী বুধবার এখানে বোর্ড গঠন হওয়ার কথা। আর তার আগে বেশ কিছুদিন ধরেই এই পঞ্চায়েতের বোর্ড কার দখলে থাকবে তা নিয়ে তীব্র জল্পনার সৃষ্টি হয়েছিল। আর এই জল্পনার মাঝেই চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে সল্টলেকের এক তরুনীর সাথে সহবাস করার অভিযোগে সেই বেদাই পঞ্চায়েতেরই এক বিজেপি সদস্য গ্রেপ্তার হওয়ায় চরম চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় এলাকায়।

যা নিয়ে শাসক-বিরোধী দুদলের মধ্যে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক কাজিয়াও। এদিন এ প্রসঙ্গে বিজেপির ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলা কমিটির সদস্য অরুন ব্রহ্ম বলেন, “শাসকদল এই পঞ্চায়েতে সংখ্যাগরিষ্ট না থাকায় বিরোধীরা এটি দখল করতে চেয়েছিল। আর বিরোধীদের পক্ষ থেকে আমাদের দলের অলোক রাহা এটির নেতৃত্ব দেওয়াতেই ওর বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা করল শাসকদল।”  

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রব্লেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাল্টা মাঠে নেমেছে তৃনমূলও। বিজেপির করা এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে এই আমডাঙার বিদায়ী পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ নবীন মাইতি বলেন, “বিজেপি নিজেদের কলঙ্ক মুছতেই আমাদের দলের নামে মিথ্যে অভিযোগ করছে। এর সাথে রাজনীতির কোনো যোগ নেই। আইন আইনের পথে চলবে।” সব মিলিয়ে বোর্ড গঠনের ঠিক আগেই বিজেপির জয়ী সদস্যদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরোক অভিযোগ ওঠায় তাদের গ্রেপ্তার শুরু করল পুলিশ প্রশাসন।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!