এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দেওয়াল লিখনেও নীল- সাদা উন্নয়নকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে জয়ের মার্জিন বাড়াতে চান শতাব্দী রায়

দেওয়াল লিখনেও নীল- সাদা উন্নয়নকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে জয়ের মার্জিন বাড়াতে চান শতাব্দী রায়

2009 এর পর 2014 সালের লোকসভা নির্বাচনে বীরভূমের তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে অভিনেত্রী শতাব্দী রায় জয়লাভ করলেও আসন্ন 2019 এর লোকসভা নির্বাচনে তিনি আদৌ বীরভূম লোকসভা আসন থেকে তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে দাঁড়াবেন কি না তা নিয়ে প্রথম থেকে নানা জল্পনা চললেও অবশেষে বীরভূমের তৃণমূল প্রার্থী শতাব্দী রায়ের ওপরই আস্থা রাখতে দেখা যায় তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

আর এবার প্রার্থী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করার পরই শুক্রবার সাঁইথিয়ায় এসে দলের হয়ে জোর প্রচার শুরু করে দিলেন শতাব্দী রায়। সূত্রের খবর, এদিন প্রথমে সাঁইথিয়ার মসোড্ডার ব্লক কার্যালয়ে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে এক আলোচনায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন বীরভূমের এই তৃণমূল প্রার্থী। আর তারপরই দলীয় কার্যালয় থেকে বেরিয়ে সোজা নন্দিকেশ্বরী মন্দিরে গিয়ে পুজো দিয়ে সাঁইথিয়ার 15 নম্বর ওয়ার্ডে নিজের নাম দেওয়ালে লিখে প্রচার শুরু করে দেন শতাব্দীদেবী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

নীল সাদা রং ও তুলি দিয়ে নিজের নাম লিখে প্রচার শুরু করে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বীরভূমের তৃণমূল প্রার্থী বলেন, “10 বছর আগে মানুষের আমাকে নিয়ে যেমন উচ্ছ্বাস ছিল, এখন তেমনই আছে। 2009 সালের থেকে এখন সংগঠন অনেক বেশি শক্তিশালী। আশা করি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়ন এবং দলীয় সংগঠনের জেরে এবার জয়ের মার্জিন অনেকটা বাড়বে।”

অন্যদিকে এদিন নন্দীকেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিয়ে সিউড়ি পুরসভায় দলের কাউন্সিলরদের নিয়ে একটি মিটিংও করেন শতাব্দী রায়। আর সেখানেই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে সিউড়ি শহর থেকে দলীয় প্রার্থীকে ব্যাপক ভোটে লিড দেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেন সিউড়ি পুরসভার চেয়ারম্যান উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়।

এদিকে শতাব্দী রায় আগেভাগে বীরভূমে জোর প্রচার চালালেও এখন পর্যন্ত বিরোধীরা তাদের প্রার্থী ঘোষণা করতে না পারায় তিনি কি প্রচারের দিক থেকে অনেকটা অ্যাডভান্টেজ পেয়ে যাচ্ছেন? এদিন এই প্রসঙ্গে বীরভূমের তৃণমূল প্রার্থী তথা অভিনেত্রী শতাব্দী রায় বলেন, “বিরোধীরা কখনই মানুষের সঙ্গে থাকে না। দশবছরে আমি যে কতবার বীরভূমে এসেছি তার কোনো হিসেব নেই। কে এগিয়ে এবং কে পিছিয়ে সেই প্রতিযোগিতায় আমরা নেই। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বীরভূমের মানুষ তৃণমূলকেই সমর্থন করবেন।”

সব মিলিয়ে এবার প্রার্থী ঘোষণার সাথে সাথেই হ্যাটট্রিকের লক্ষ্যে নির্বাচনী প্রচারের ময়দানে নেমে পড়লেন বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী শতাব্দী রায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!