এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপি কর্মী “বেশি প্রতিবাদ” করায় বাড়িতে বোমা রেখে পুলিশ দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ!

বিজেপি কর্মী “বেশি প্রতিবাদ” করায় বাড়িতে বোমা রেখে পুলিশ দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ!

রাজ্যে বিরোধীদের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে বলে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ তুলে সরব হতে দেখা যায় রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপিকে। এমনকি অন্যায়ের বিরুদ্ধে বিজেপি নেতা কর্মীরা প্রতিবাদ করলে তাদের মিথ্যে মামলা দিয়ে জেলে পোরা হচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলেন বিজেপির ছোটো, বড়, মেজো সমস্ত নেতারা। কিন্তু বিজেপির তরফে এই যাবি তোলা হলেও বারবারই তা অস্বীকার করতে দেখা গেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। কিন্তু এবার এক বিজেপি কর্মীর বাড়ির পেছন থেকে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় সেই শাসক দলের চক্রান্তই রয়েছে বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভাতারের ওড়গ্রাম দুই নম্বর কলোনির আমডাঙায় বিজেপি কর্মীর বাড়ি থেকে মাটির হাড়ির মধ্যে বোমা উদ্ধার হয়। পরবর্তীতে পুলিশ এসে সেটা উদ্ধার করে। যেখানে দেখতে পাওয়া যায়, ওই হাড়িতে ধানের তুষের মধ্যে প্রায় আটটা বোমা রাখা ছিল। আর বিজেপি কর্মীর বাড়ি থেকে এইভাবে বোমা উদ্ধার হওয়ায় রীতিমতো এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে চাঞ্চল্য। তবে এলাকাবাসীদের একাংশ বলেন, বিজেপি কর্মী মহানন্দ সরকারের বাড়ি থেকে এই বোমা পাওয়ার পেছনে তাকে ফাঁসানোর জন্য চক্রান্ত করা হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা মহানন্দ সরকারের স্ত্রী অসীমা সরকার বলেন, “পুলিশ এসে সোজা ঘরের পেছনে চলে যায়। আমাদের কিছু জিজ্ঞাসা করা হয়নি। কিভাবে সেখানে বোমা এল, তা আমাদের জানা নেই।” একইভাবে এই ঘটনায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি গোবিন্দ গোলদার। তবে বিজেপির তরফে তাদের কর্মীকে ফাঁসানোর অভিযোগ তোলা হলেও তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করতে দেখা গেছে তৃণমূল কংগ্রেসকে।

এদিন এই প্রসঙ্গে ভাতার ব্লক তৃণমূল নেতা নিখিলেশ্বর মাজি বলেন, “এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল যুক্ত নয়। আসলে এলাকায় বিজেপির পায়ের তলা থেকে মাটি সরে যাচ্ছে দেখে উৎসবের মরসুমে এলাকা অশান্ত করতে বোমা বারুদের আমদানি করা হচ্ছে।” সব মিলিয়ে বিজেপি কর্মীর বাড়ির পেছন থেকে বোমা উদ্ধার হলেও এলাকাবাসীর অভিযোগ তৃণমূলের দিকে ওঠায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!