এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দলীয় কর্মসূচিতে আটক কর্মীদের আদালতে পেশের সময় বিক্ষোভ বিজেপি কর্মীদের

দলীয় কর্মসূচিতে আটক কর্মীদের আদালতে পেশের সময় বিক্ষোভ বিজেপি কর্মীদের

সম্প্রতি দলের এক বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে বর্ধমানের এক পুলিশ আধিকারিককে মারধরের অভাযোগ ওঠে নয় বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে। সূত্রের খবর, শুক্রবার এই বিজেপি কর্মীদের আদালতে নিয়ে এলে পুলিশের গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখান বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্বরা। জানা যায়, পুলিশের বিরুদ্ধে এই বিক্ষোভে উপস্থিথ ছিলেন বিজেপির জেলা সভাপতি সন্দীপ নন্দী ও যুব নেতা শ্যামল রায়। আদালত সূত্রের খবর, ধৃত বিজেপি কর্মীদের হয়ে কোনো আইনজীবি না লড়ায় তাঁরা নিজেরাই নির্দোষ প্রমানের পক্ষে সওয়াল করলে বিচারবিভাগীয় হেফাজত শেষে আগামী মঙ্গলবার ফের তাদের আদালতে পেশের নির্দেশ ভারপ্রাপ্ত সিজেএম সোমনাথ দাসের। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ধৃতদের প্রত্যেকেই বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জানা গেছে, গত বুধবার কার্জন গেট এলাকায় বিজেপি নেতারা রাজ্য সরকার ও পুলিশের বিরুদ্ধে উত্তেজনামূলক কথা বলে জিটি রোড অবরোধ করেন। একটি অ্যাম্বুলেন্স এই অবরোধের জেরে আটকে পড়লে বর্ধমান থানার সেকেন্ড অফিসার সমীরকুমার ঘোষ এই অ্যাম্বুলেন্সটিকে পার করে দিতেই বিজেপির কর্মীরা তাউঅঁর পেটে লাথি মারে। এরপর পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসার পর মোট 20 জনের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধাদান, খুনের চেষ্টা, বেআইনি জমায়েত এইসব ধারায় মামলাও দায়ের করেন সেই অফিসার। আর এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই এদিন ধৃত বিজেপি কর্মীদের আদালতে তোলার সময় ফের বিক্ষোভ করোএ দেখা যায় বিজেপির নেতাদের। “তবে তারা কোনও বিক্ষোভ করেননি,শুধুই দলের কর্মীদের পিশে দাড়াতে এসেছিলেন” বলে জানিয়েছেন জেলার বিজেপি সভাপতি সন্দীপ নন্দী।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!