এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মদন-গড়ে বিজেপি-কর্মীকে রাস্তায় ফেলে মার, তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে এফআইআর

মদন-গড়ে বিজেপি-কর্মীকে রাস্তায় ফেলে মার, তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে এফআইআর

আবার বিতর্কের শিরোনামে রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী মদন মিত্রের খাসতালুক কামারহাটি। এলাকায় এক পূজা উপলক্ষে পতাকা লাগানো নিয়ে বিতর্কের সূত্রপাত। এরপরই কামারহাটি পুরসভার ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর সৌমিত্র পুততুন্ড (ওরফে রাজু) ও তৃণমূল কংগ্রেসের ওয়ার্ড সভাপতি অশোক মুখার্জির প্ররোচনায় তৃণমূল কর্মী ভীষ্ম মুখার্জি ও বীরু বিশ্বাস, বরানগর নর্থ ইস্ট মন্ডলের বিজেপি সভাপতি রঘুনাথ মন্ডল ও মন্ডলের সেক্রেটারি অরুনাংশু চক্রবর্তীকে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক পেটায় বলে বিজেপির তরফে অভিযোগ। গুরুতরভাবে আহত রাঘুনাথবাবুকে স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা উদ্ধার করে সাগর দত্ত হাসপাতালে নিয়ে গেলে, চিকিৎসকেরা তাঁকে সিটিস্ক্যান করার পরামর্শ দেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এব্যাপারে স্থানীয় বিজেপি নেতা মৃনাল মুখার্জী জানান, এলাকায় এক পূজা উপলক্ষ্যে রাঘুনাথবাবু কিছু পতাকা লাগাচ্ছিলেন। সেখানেই দুপুর দেড়টা নাগাদ হঠাৎ করে স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড সভাপতির নেতৃত্ত্বে ভীষ্ম মুখার্জি ও বীরু বিশ্বাস নামে দুই তৃণমূল কর্মী এসে রাঘুনাথবাবুকে বিনা প্ররোচনায় আক্রমন করে বসেন। রাঘুনাথবাবুকে রাস্তায় ফেলে স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড সভাপতির প্ররোচনায় মারতে শুরু করেন ওই দুই তৃণমূল কর্মী। রাঘুনাথবাবুকে বাঁচাতে গিয়ে গুরুতরভাবে জখম হন অরুনাংশুবাবুও। এরপর গুরুতর আহত রাঘুনাথবাবুকে চিকিৎসার জন্য সাগর দত্ত হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁর অবস্থা দেখে চিকিৎসকরা সিটিস্ক্যান করার পরামর্শ দেন। রাঘুনাথবাবুর মেডিকেল রিপোর্টের ভিত্তিতে তৃণমূল কাউন্সিলর সৌমিত্র পুততুন্ড সহ বাকি তিন তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে বেলঘরিয়া থানায় এফআইআর করা হয়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!