এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > গনি-ম্যাজিক ফিকে করে ঘাস নয় মালদা জুড়ে পদ্ম ফোটাতে মরিয়া গেরুয়া শিবির

গনি-ম্যাজিক ফিকে করে ঘাস নয় মালদা জুড়ে পদ্ম ফোটাতে মরিয়া গেরুয়া শিবির

মালদহ ও মুর্শিদাবাদ বরাবরই কংগ্রেসের শক্তিশিবির হিসাবেই পরিচিত। সেই কারণেই মালদা কংগ্রেস নেতা আবু বরকত আতাউল গনি খান চৌধুরীর নামেও প্রচলিত। জেলার উন্নয়নের মূলেই রয়েছে কংগ্রেস। প্রায়শই ১২ টি বিধানসভা কেন্দ্রেই কংগ্রেসের দখলে থাকে। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের সময় ১ টি কংগ্রেসের হাতছাড়া হয়ে চলে যায় বাম সমর্থিত নির্দলের দখলে।

এটি বর্তমানে তৃনমূলের করায়ত্বে রয়েছে। কিন্তু এবছরের পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর থেকেই ছবি পাল্টে গেছে কংগ্রেসের শক্তিশিবিরের। বিজেপি ঘাঁটি গাড়তে শুরু করেছে মালদহে। ফলত,বামনগোলা, গাজোল, হবিবপুর এলাকাই নয়, এবার মালদহ জেলার মানিকচক, হরিশ্চন্দ্রপুর, রতুয়া এলাকায় গেরুয়া ঝড় উঠবে বলেই মনে করছে জেলা বিজেপি।

নিজেদের শক্তিশিবিরে বিজেপির উত্থান স্বাভাবিকভাবেই রাতের ঘুম কেড়েছে কংগ্রেস নেতৃত্বের। আর এই চিন্তার সূত্র ধরে কংগ্রেস সংগঠনেও ফাটল স্পষ্ট হয়েছে ক্রমশ। জেলা কংগ্রেসের হেভিওয়েট ব্যক্তিত্বরা লোকসভা ভোটের আগেই দল বেঁধে কেউ তৃণমূল আবার কেউ বিজেপিতে যোগ দিয়েছে। এর জেরে এতোদিনের শক্তিশালী জেলা কংগ্রেস সংগঠন দূর্বল হতে শুরু করে। এরকম পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে কংগ্রেস আসন্ন লোকসভা ভোটে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে মালদহ জেলার শীর্ষ নেতৃত্ব জোটের পক্ষে সওয়াল করেছেন। কংগ্রেস নেতৃত্ব নিজেদের সংগঠন মজবুত করতে তৃণমূলের হাত ধরতে চাইছে নাকি এর পিছনে অন্য কোনো রাজনৈতিক অভিসন্ধি রয়েছে?

এই প্রশ্নকে ঘিরেই জল্পনা শুরু হয়েছে। কারণ এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে দুটি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে উত্তর মালদহ কেন্দ্রে কংগ্রেসের অবস্থা বেশ উদ্বেগজনক। এ প্রসঙ্গে উত্তর মালদহের সাংসদ মৌসম বেনজির নূর জানান, বিজেপিকে রুখতেই মূলত তৃণমূলের হাত ধরার পক্ষপাতী কংগ্রেস। কারণ বিজেপির বিভেদের রাজনীতির ইতি ঘটানো অত্যন্ত জরুরি।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর থেকেই কংগ্রেসের সংগঠন দূর্বল হয়ে পড়েছে, একথা স্বীকার করে নিলেন তিনি। সেজন্যে বসে যাওয়া কংগ্রেসীদের উৎসাহ দিতেই সংগঠনকে মজবুত করার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। মালদহের মানুষ যে কংগ্রেসের পাশে রয়েছেন সে ব্যাপারে আস্থা প্রকাশ করলেন তিনি।

অন্যদিকে,জেলায় কংগ্রেসের দাপট যে আগের মতো অতোটা নেই সেটাই নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে বোঝাতে চাইলেন মালদহ জেলা বিজেপি সভাপতি সনজিৎ মিশ্র। বললেন,জেলায় শাসক দল এবং কংগ্রেসের সন্ত্রাসের রাজনীতি অসহ্য হয়ে উঠেছে মানুষের কাছে। এই দুই রাজনৈতিক দলের ভাঁওতাবাজি রাজনীতি আর বেশিদিন চলবে না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাই মানুষ এখন পরিবর্তনের স্বার্থে বিজেপিকে ক্ষমতায় চাইছে। একমাত্র বিজেপিই পারে মানুষের হয়ে মানুষের জন্য সঠিকভাবে কাজ করতে। এটা বুঝেই মানুষ বিজেপিকে সমর্থন করছে। তাই আগামী লোকসভা ভোটেও তৃণমূল,কংগ্রেসকে টেক্কা দিয়ে বাজিমাত করবে বিজেপি। গোটা মালদায় ফুটে পদ্মফুল,আকাশ ছেয়ে যাবে গেরুয়া আবীরে। এমনটাই দাবী জেলা বিজেপি সভাপতির।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!