এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিধানসভা নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই রাজস্থানে ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিয়ে জয়ের সরণীতে বিজেপি

বিধানসভা নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই রাজস্থানে ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিয়ে জয়ের সরণীতে বিজেপি

সম্প্রতি হয়ে যাওয়া বিধানসভা নির্বাচনে গো-বলয়ে বড়সড় ধাক্কা খেয়েছে গেরুয়া শিবির। হাতে থাকা তিন রাজ্য মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান ও ছত্তিশগড় গেছে কংগ্রেসের দখলে। আর এর পরেই কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধীদের দাবি – বিজেপি তথা নরেন্দ্র মোদির ‘আচ্ছে দিন’ শেষ! তৃণমূল কংগ্রেস তো দাবিই করে বসে – ২০১৯, বিজেপি ফিনিশ!

কিন্তু, এই হারে ধাক্কা একটু লাগলেও তা ভেঙে পড়ার মত কিছু নয় বলে দাবি করতে থাকে গেরুয়া শিবির। বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ত্বের দাবি, প্রথমত এটি ছিল রাজ্যের ভোট – স্থানীয় ইস্যুতেই মানুষ ভোট দিয়েছেন। তাছাড়া, নির্বাচনের আগে বিভিন্ন সমীক্ষায় যেমন দেখানো হচ্ছিল এই সব রাজ্যে বিজেপির ভরাডুবি হবে – সেই তুলনায় কিন্তু ফলাফল অনেক ভালো হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

গেরুয়া শিবিরের আরও দাবি ছিল, লোকসভা নির্বাচনে অন্য ফলাফল হবে – বিধানসভা নির্বাচনের এই হার সেখানে প্রভাব ফেলবে না। আর গেরুয়া শিবিরের সেই দাবিকে মান্যতা দিয়ে বিধানসভা নির্বাচনের রেশ মিটতে না মিটতেই জয়ের সারিতে প্রত্যাবর্তন ঘটালো গেরুয়া শিবির। রাজস্থানে হয়ে যাওয়া পঞ্চায়েত উপনির্বাচনের ফলাফলে দেখা যাচ্ছে গেরুয়া শিবির রীতিমত ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিচ্ছে।

গত ২৮ শে ডিসেম্বর রাজস্থানে বেশ কিছু জেলা পরিষদ ও পঞ্চায়েত সমিতির আসনে উপনির্বাচন হয়। সেখানে আগেই একটি পঞ্চায়েত সমিতিতে নির্দল প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে নেয়। কিন্তু গতকাল, ভোটগণনার শেষে দেখা যায় জেলা পরিষদ ও পঞ্চায়েত সমিতি মিলে বিজেপির ঝুলিতে ৭ টি আসন। অন্যদিকে কংগ্রেস পেয়েছে ৫ টি আসন। আর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় যেটা আসন ধরে অন্যান্য ও নির্দলের ঝুলিতে গেছে ২ টি আসন। আর এই জয়ের পরেই বিজেপির প্রতিক্রিয়া, মাত্র দুসপ্তাহের মধ্যেই কংগ্রেস সরকারের উপর মানুষ আস্থা হারিয়েছে, তাই শাসক কংগ্রেসের বিপক্ষে গেল ভোট!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!