এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > ভোট-পরবর্তী হিংসা অব্যাহত, বিজেপি এজেন্টের বাড়িতে ও দোকানে হামলা, অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে

ভোট-পরবর্তী হিংসা অব্যাহত, বিজেপি এজেন্টের বাড়িতে ও দোকানে হামলা, অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে

এবারের লোকসভা নির্বাচনে সারা বাংলার মধ্যে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র অন্যতম নজরকাড়া কেন্দ্র হিসেবেই পরিচিত ছিল সকলের কাছে। তবে রাজনীতিতে নজরকাড়া কেন্দ্র হিসেবে সেখানে রাজনৈতিক লড়াই হলে তা উপভোগ করতে সহজ হয় সকলেরই, কিন্তু রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে যদি সেটা সংঘর্ষে পরিণত হয় তাহলে তা অত্যন্ত বেদনাবিদূর হয়ে ওঠে সকলের কাছে।

বস্তুত, এই ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে এবার তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদীর বিরুদ্ধে সদ্য তৃণমূল ত্যাগ করা বিজেপিতে যোগ দেওয়া অর্জুন সিংহকে প্রার্থী করেছিল গেরুয়া শিবির। আর দীনেশ বনাম অর্জুনের লড়াইয়ে সেখানে কি হবে তা নিয়ে টানটান উত্তেজনা ছিল নির্বাচনের দিন। আর নির্বাচনের দিন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে ঠিক কি হয়েছে তা সংবাদমাধ্যমের সাহায্যে প্রত্যক্ষ করেছে গোটা বঙ্গবাসী।

আর এবার ভোট-পরবর্তী হিংসায় ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল সেই উত্তর 24 পরগনার ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র। জানা গেছে, ভোটের দিন বিজেপির বুথ এজেন্ট হিসেবে কাজ করার জন্য উত্তর 24 পরগনার বীজপুর থানার অন্তর্গত হালিশহরের টিকটিকির বাজার এলাকার তাপস ঘোষ নামে এক ব্যবসায়ীর বাড়ি এবং দোকানে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

হাতের মুঠোয় আরও সহজে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে যোগ দিন –

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত রবিবার বীজপুরের 116 নম্বর বুথে পুনঃনির্বাচনে সেখানে বিজেপির বুথ এজেন্ট হিসেবে কাজ করেছিলেন এই তাপস ঘোষ। আর এরপরই সেদিন রাতে সেই তাপসবাবুর বাড়ি ও দোকানে হামলা চালিয়ে সেই দোকান থেকে কুড়ি হাজার টাকা লুট করা হয়। আর এইভাবে বিরোধীদলের কর্মীদের ওপর শাসকদলের এহেন হামলার বিরুদ্ধে এবার মুখ খুলে রাজ্যের শাসকদলকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংহ।

এদিন তিনি বলেন, “বিজেপি করার অপরাধে দিলীপ ঘোষ, মলয় ঘোষের দলবল আমাদের দলের সক্রিয় কর্মী তাপস ঘোষের পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা করেছে। অভিযোগ জানিয়েও পুলিশ কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এখানে গণতন্ত্র বিপন্ন। কিন্তু তৃনমূল যে ভাষায় কথা বলছে, এবার মানুষ ওদের সেই ভাষাতেই উত্তর দেবে।”

অন্যদিকে এই ঘটনায় তাদের জড়িত থাকার অভিযোগকে সম্পূর্ণরূপে উড়িয়ে দিয়েছে শাসক দল। সব মিলিয়ে এবার ভোটপর্ব মিটে গেলেও ভোট-পরবর্তী হিংসায় ও শাসকদলের হামলার পরিপ্রেক্ষিতে উত্তপ্ত হতে দেখা গেল ব্যারাকপুরকে।

Top
error: Content is protected !!