এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপি করার “অপরাধে” এবার ভাড়াটিয়াকে উচ্ছেদের নিদান তৃণমূলের, তীব্র চাঞ্চল্য হাওড়ায়

বিজেপি করার “অপরাধে” এবার ভাড়াটিয়াকে উচ্ছেদের নিদান তৃণমূলের, তীব্র চাঞ্চল্য হাওড়ায়

তৃণমূল করলেই সাতখুন মাপ, আর বিজেপি করলেই দোষে দুষ্ট! এখন এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজ্য রাজনীতিতে। বস্তুত, লোকসভা নির্বাচনের পর আরও বেশি করে যখন তৃণমূলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে শুরু করেছে বিজেপি, ঠিক তখনই প্রায় প্রতি ক্ষেত্রেই বেছে বেছে বিজেপির কর্মী সমর্থকদের প্রতি দুর্ব্যবহার এবং বঞ্চনা করা হচ্ছে বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।

আর এই পরিস্থিতিতে এবার বিজেপি সমর্থক এক ভাড়াটেকে নিজের বাড়িতে বাড়ি ভাড়া দেওয়ায় তৃণমূলের রোষের মুখে পড়তে হল অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মী বিশ্বজিৎ দেকে। জানা গেছে, বিশ্বজিৎবাবুর দানেশ শেখ লেন সরকারি আবাসনে একটি ঘর রয়েছে। তার স্ত্রী হাওড়া জেলা হাসপাতালের কর্মী এবং তাদের একটি 16 বছরের ছেলে রয়েছে।

কিন্তু স্ত্রীর আলাদা কোয়ার্টার থাকায় সেখানে গিয়ে থাকার দরুন এই দানেশ শেখ লেনের কোয়ার্টারটি ভাড়া দিয়েছেন বিশ্বজিৎ দে। যা এক ব্যক্তি ভাড়া নিয়েছেন। গত শুক্রবার রাতে হঠাৎ কিছু যুবক সেই কোয়ার্টারের নিচে রাখা বাইকে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ ওঠে। আর এরপরই অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মী বিশ্বজিৎ দের কাছে একটি হুমকি চিঠি আসে বলে জানা যায়।

যেখানে লেখা ছিল, “কোয়াটারের ভাড়াটিয়াকে এক মাসের মধ্যে না তুললে ছেলেকে খুন করা হবে।” আর একদম নিচে লেখা ছিল, “তৃণমূল।” স্বাভাবিকভাবেই এহেন হুমকি চিঠি আসায় প্রবল আতঙ্কিত হয়ে পড়েন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মী বিশ্বজিৎ দে। কিন্তু কেন তাকে এরুপ চিঠি দেওয়া হল, তা নিয়ে তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হলেও সেই ভাবে ঘটনাটির গুরুত্ব না দেওয়ায় বিষয়টি নিয়ে জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায়ের সঙ্গে রবিবার দেখা করেন বিশ্বজিৎবাবু।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অনেকে বলছেন, বিশ্বজিৎ দের বাড়িতে এক বিজেপি কর্মী ভাড়াটে হিসেবে থাকায় তৃণমূলের এই হুমকি চিঠি তাকে পেতে হয়েছে। কিন্তু যদি তৃণমূলের পক্ষ থেকে সেই ভাড়াটিয়াকে উঠে যেতে বলা হয় শুধুমাত্র বিজেপি করার জন্য, তাহলে এটা কি জোর করে গণতন্ত্রের কণ্ঠরোধ নয়! এদিন এই প্রসঙ্গে আতঙ্কগ্রস্ত কোয়াটারের মালিক তথা অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মী বিশ্বজিৎ দে বলেন, “এইরকম চিঠি পাব ভাবতে পারিনি। তাই আতঙ্কে রয়েছি। পুলিশ দ্রুত অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করবে বলে আশ্বাস দিয়েছে।”

কিন্তু কেন এমনটা করল তৃণমূল! তাহলে কি শুধুমাত্র তৃণমূল বলেই দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না! এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায়কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, “বিশ্বজিৎবাবু একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মী। তার সঙ্গে এরকম ব্যবহার আমরা কোনোভাবেই মেনে নেব না। পুলিশকে দ্রুত কঠোর ব্যবস্থা নিতে বলেছি। আমি আমার ফোন নম্বর বিশ্বজিৎবাবুকে দিয়ে এসেছি। কোনরকম সমস্যা হলে সঙ্গে সঙ্গে জানাতে বলেছি।”

তবে অরূপ বাবু যাই বলুন না কেন, যেভাবে অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মীর বাড়িতে থাকা ভাড়াটিয়া বিজেপি বলে তৃণমূলের হুমকি চিঠি সেই সেনাকর্মীর কাছে এল, তাতে রাজ্যের শাসকদলের প্রতিহিংসার রাজনীতি আরও তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে উঠল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!