এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এক সপ্তাহের ব্যবধানে তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিলেন বিজেপির হেভিওয়েট দুই নেতা, জল্পনা তুঙ্গে

এক সপ্তাহের ব্যবধানে তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিলেন বিজেপির হেভিওয়েট দুই নেতা, জল্পনা তুঙ্গে

তন্ত্রসাধনার অন্যতম পীঠ হিসেবে পরিচিত বীরভূমের তারাপীঠ মন্দির। আর সেই মন্দিরেই কদিন আগে মায়ের চরনে পুজো দিতে এসেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। আর সেই পুজোর এক সপ্তাহ পেরোতে না পেরোতেই সেই তারাপীঠে আসলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। আর এইখানেই তৈরি হয়েছে চরম জল্পনা।প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই বীরভূম জেলা তৃনমূলের শক্ত ঘাটি হিসেবে পরিচিত। বারেবারে এই জেলার তৃনমূল সভাপতি অনুব্রত মন্ডল নরমে গরমে বিজেপির বিরুদ্ধে বক্তব্য রেখে রাজনৈতিক ময়দান কাপিয়েছিলেন।

প্রিয় বন্ধু বাংলার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ – Priyo Bandhu Bengali

—————————————————————————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাহলে কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই “কেষ্ট” কে চাপে রাখতেই কোনো নয়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে বিজেপি আর সেই চাপ বাড়াতে মাঠে নেমে পড়েছেন মুকুল রায় আর সেই দ্বায়িত্ব দিয়েছেন খোদ অমিত শাহ। আর তাই প্রথমে অমিত শাহ এবং পরে মুকুল রায়ের এই বীরভূম সফর? তবে এ ঘঢনাকে মানতে রাজি নন অনেকেই। একাংশের ধারনা, সম্প্রতি বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের এক বৈঠকে ঠিক হয়েছে, আগামী লোকসভায় বাংলায় পদ্ম ফোটাতে মুকুল রায়কেই তাঁদের বিজয়রথের সারথী হিসেবে ব্যাবহার করতে চায় বিজেপি।আর তাই তৃনমূলের বিরুদ্ধে সুর চরাতে ও দলে নিজের একাধিপত্য জারি রাখতে তারা মায়ের চরনে পুজো দিয়ে গেলেন মুকুল রায়। অন্যদিকে আর একটি জল্পনা কাজ করছে তা হলো মুকুল রায়কে বড় কোনো পদ দেওয়া হচ্ছে আর তা ঘোষণা না হলেও সে বিষয়ে আগাম খবর রয়েছে মুকুলবাবুর কাছে। তবে যে জল্পনাই চলুক না কেন 2019 ই যে পাখির চোখ রাজ্য বিজেপির তা এই ঘন ঘন অমিত শাহ,মুকুল রায়ের মত প্রথম সারির নেতাদের মাতৃদর্শনেই পরিস্কার।

Top
error: Content is protected !!