এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > অনুব্রত-গড়ে বড় ধাক্কা তৃণমূলের, ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে গেরুয়া শিবির

অনুব্রত-গড়ে বড় ধাক্কা তৃণমূলের, ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে গেরুয়া শিবির

ইঙ্গিতটা লোকসভা ভোটেই পাওয়া গিয়েছিল – তৃণমূলের প্রবল প্রতাপশালী নেতা অনুব্রত মন্ডলের গড়ে তাঁর দল দুটি লোকসভা আসনই ধরে রাখতে পারলেও, বিজেপির ভোটবৃদ্ধি চোখ কপালে তুলে দিয়েছিল সকলেরই। এমনকি এরপরেই, কথায়-কথায় পুলিসজকে বোমা মারতে চাওয়া বা রাস্তায় উন্নয়ন দাঁড় করিয়ে নির্বাচন জিততে চাওয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘আদরের’ ভাই কেষ্টবাবু ছাড়তে চেয়েছিলেন জেলা সভাপতির পদ!

তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছিলেন তাঁর প্রিয় ভাই অনুব্রতর ‘মাথায় নাকি অক্সিজেন কম যায়’! তবে তা বোধহয় এখন ঠিকঠাক যাচ্ছে, কেননা তিনি রাজনৈতিক হাওয়া বুঝে গিয়ে বীরভূমের ময়দান থেকে ‘পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন’ – বলে দাবি করছেন বীরভূম জেলার বিজেপি নেতারা। আর করবেন নাই বা কেন? যে বীরভূমে এতদিন অনুব্রত মন্ডলের নির্দেশে বাঘে-গরুতে একঘাটে জল খেত – সেই বীরভূমেই যে এবার আস্ত একটি পঞ্চায়েত দখল করে নিল গেরুয়া শিবির!

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিজেপি সূত্রে জানা গেছে রামপুরহাট ১ নম্বর ব্লকের ডাবুক গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ও উপপ্রধান সহ তৃণমূলের ৫ জন সদস্য বিজেপিতে যোগ দেন আজ যোগ দিলেন। এই গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট ১৩ টি আসন আছে – যার মধ্যে তৃণমূলের দখলে ছিল ১০ টি আসন, বিজেপির দখলে ছিল ২ টি আসন ও বামফ্রন্টের হাতে ছিল ১ টি আসন। বামফ্রন্টের ওই জয়ী পঞ্চায়েত সদস্য আগেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন, আজ তৃণমূলের ৫ জন বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় – ওই পঞ্চায়েতে বিজেপির মোট সদস্য সংখ্যা হল ৮।

স্বাভাবিকভাবেই ১৩ আসনের ডাবুক গ্রাম পঞ্চায়েতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেল বিজেপি। তবে বিজেপি নেতাদের মতে এই শুরু – গোটা জেলা জুড়ে এতদিন তৃণমূলের জেলা সভাপতির নেতৃত্বে যেভাবে ‘উন্নয়ন বাহিনী’ তান্ডব চালিয়েছে – তাতে নাকি সাধারণ মানুষ সন্ত্রস্ত! পঞ্চায়েত নির্বাচনে গোটা জেলা জুড়েই প্রায় কোনো আসনে কোনো প্রার্থী দিতে দেওয়া হয় নি। হাতেগোনা যে কটি আসনে বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পেরেছিল, সেখানেই হেরে গেছে তৃণমূল। আর তাই, আগামী দিনে বীরভূম জেলায় ‘গণতন্ত্র ফেরাতে’ আরও বড় সংখ্যায় মানুষ বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন বলে গেরুয়া শিবিরের দাবি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!