এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপি সভাপতি বদল নিয়ে তীব্র জল্পনার মাঝেই সামনে এল রাজ্য সম্পাদকের বিস্ফোরক চিঠি

বিজেপি সভাপতি বদল নিয়ে তীব্র জল্পনার মাঝেই সামনে এল রাজ্য সম্পাদকের বিস্ফোরক চিঠি

বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি বদল নিয়ে জল্পনার অন্ত নেই। শেষ কয়েক সপ্তাহ ধরেই বিজেপির অন্দরমহলে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, বর্তমান রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে এবার কেন্দ্রীয় স্তরে কাজে লাগানোর জন্য লোকসভায় নিয়ে যেতে মরিয়া গেরুয়া শিবির, এমনকি তাঁর জন্য নাকি একটি সম্ভাবনাময় কেন্দ্রও বাছা হয়ে গেছে। বিজেপি শীর্ষনেতৃত্ত্ব নাকি চায় দিলীপবাবু এখন থেকেই সেই কেন্দ্রে গিয়ে সময় দিন – ফলে তাঁর কাছ থেকে রাজ্য সভাপতির ভার লাঘব করে অন্য কাউকে দায়িত্ত্ব দেওয়া হবে যিনি লোকসভা নির্বাচনে লড়বেন না। এই অবস্থায় কিছুদিন আগেই দল বদল করে বিজেপিতে আসা এক দাপুটে নেতা থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ অর্থনীতিবিদ হয়ে সঙ্ঘ ঘনিষ্ঠ এক কট্টর হিন্দুত্ত্ববাদী মুখ – নাম শোনা গেছে অনেক। কিন্তু বাস্তবে দিলীপবাবু আছেন স্বস্থানে।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রথমে শোনা গিয়েছিল, জুন মাসের প্রথম সপ্তাহেই হবে রাজ্য সভাপতি বদল, তারপরে শোনা গেল অমিত শাহ আসার কিছুদিন আগেই হবে রাজ্য সভাপতি বদল, বাকি সাংগঠনিক পদ তিনি বঙ্গ-সফরে এসে ঘোষণা করবেন। তারও পরে শোনা গেল, অমিত শাহ বাংলা থেকে ঘুরে গিয়ে, রাজ্য নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে এই পরিবর্তন করবেন। কিন্তু বাস্তবে কিছুই হয় নি – এই ব্যাপারে মুখে কুলুপ এঁটেছেন রাজ্য বিজেপির প্রায় সব নেতাই। যে কয়েকজন গুটি কয়েক নেতা এতদিন এই ব্যাপারে একটু-আধটু আকার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন ফোন ধরা বন্ধ করে দিয়েছেন তাঁরাও। হঠাৎ সামনে পরে গেলে পাশ কাটিয়ে চলে যাবার চেষ্টা – অনেক দিনের পরিচিতির ফলে একান্ত এড়িয়ে যেতে না পারলে, স্পষ্ট জানাচ্ছেন – আপনারাও যা জানেন আমরাও ততটাই জানি। এখনো কোনো ‘সঠিক’ জায়গা থেকে এই নিয়ে ‘সঠিক’ দিশা পাই নি, শুধুশুধু বিভ্রান্তিকর খবর ছড়াতে চাই না। কিন্তু এর মাঝেই আজ সকাল থেকে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর নাম নিয়ে এবং কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিংয়ের স্বাক্ষরিত একটি চিঠি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার গ্রূপে ছড়িয়ে পরে। যাতে লেখা আছে বিজেপির রাজ্য সভাপতি পদ থেকে সরে গেছেন দিলীপবাবু, তাঁর স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন এক প্রাক্তন বিধায়ক। ফলে, সেই চিঠি ঘিরে চূড়ান্ত জল্পনা শুরু হয়ে যায় গেরুয়া শিবিরে, তা এতটাই ‘ভাইরাল’ হয়ে যায় যে শেষ পর্যন্ত বিজেপির অন্যতম রাজ্য সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় একটি বিবৃতি জানিয়ে দেন, ওই খবর ভ্রান্ত এবং এর পিছনে যাঁরা আছেন তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বভারতীয় সভাপতি শ্রী অমিত শাহ'র নাম নিয়ে এবং কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শ্রী অরুণ সিং'র স্বাক্ষর করা একটি চিঠি প্রচার…

Publiée par BJP West Bengal sur Samedi 30 juin 2018

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!