এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পিঠে তেল মাখিয়ে রাখার পরামর্শ বিজেপির রাজ্য সভাপতির, বিতর্ক তুঙ্গে

পিঠে তেল মাখিয়ে রাখার পরামর্শ বিজেপির রাজ্য সভাপতির, বিতর্ক তুঙ্গে

Priyo Bandhu Media

লোকসভা ভোটের মুখে ফের তৃণমূলকে পাল্টা দিতে গিয়ে বিতর্কে জড়ালেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বহুবার বিজেপির বিরুদ্ধে দাঙ্গা এবং বিভেদের রাজনীতি করার অভিযোগ তুলেছেন।

সম্প্রতি পুলওয়ামা হামলার পর সেই অভিযোগের সুর আরো চড়া করে নেত্রী বলেছেন,পুলওয়ামা হামলার পর বিজেপি আরো বেশি সাম্প্রদায়িক রাজনীতির পথে এগিয়েছে। ছেলে ধরার গুজবেও দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা করছে বিজেপি,আরএসএস। এর পাল্টা দিতে গিয়েই দফায় দফায় সরব হচ্ছেন রাজ্য বিজেপি সুপ্রিমো। বললেন,”যাঁরা ভাবছেন দাঙ্গার রাজনীতি করবেন তাঁরা পিঠে তেল মাখিয়ে রাখুন।”

প্রসঙ্গত,এদিন শ্রীরামপুরে গিয়েছিলেন দিলীপ বাবু নরেন্দ্র মোদীর মন কী বাত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। সেখানেই পুলওয়ামা হামলার প্রসঙ্গে টেনে অভিযোগে জানান, এই হামলায় অভিযুক্ত পাকিস্তানকে সমর্থন করছে বিরোধী দলগুলো। গোটা দেশ যখন মর্মান্তিক হামলায় শোকস্তব্ধ এবং বদলার আগুনে ফুষছে তখন তাঁরা উল্টো দিকে হাঁটছেন।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

শুধুমাত্র এই বিরোধীদের জন্যেই দেশে উগ্রপন্থা এতো অক্সিজেন পায়। আর সেজন্যে উগ্রপন্থার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার স্বপক্ষে সওয়াল তোলেন তিনি। তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগের সুর চড়া করে তিনি আরো জানান,লোকসভা ভোটের মুখে শহীদ জওয়ানদের নিয়েও রাজনীতি করতে পিছপা হচ্ছে না বিরোধীরা।

আর নিজেদের ব্যর্থতাকে ধামাচাপা দিতেই মোদী সরকারের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলছে তাঁরা। বিজেপি সরকারের ভূমিকা নিয়ে বারবার প্রশ্ন তুলছেন তাঁরা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেনাকে তোলাবাজ বলে অথচ রাজ্যে মদ খেয়ে মারা গেলে তাঁর পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়।

আবার শহীদ জওয়ানদের পরিবারকেও ২ লাখ টাকা দেওয়া হল (প্রকৃতপক্ষে ৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে)। আসলে যাঁরা কখনো দেশের জন্যে কোনো স্বার্থত্যাগ করেনি তাঁরাই মোদীর ভূমিকার উপর প্রশ্নচিহ্ন লাগিয়েছেন বলে দাবী করলেন তিনি। যাঁদের পরিবারের সন্তান শহীদ হয়েছে তাঁদের মোদীর বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই বলেও বক্তব্যে জানালেন দিলীপ বাবু।

দিন কয়েক ধরে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে মারার গুজব ছড়িয়েছে। আর এজন্যেও মুখ্যমন্ত্রী বিজেপি এবল আরএসএসকেই দায়ী করেছেন। এ প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষকে প্রশ্ন করা হলে তিনি পাল্টা মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রশ্ন ছুঁড়ে বললেন,”কে গুজব ছড়াচ্ছে উনি কী করে জানলেন?”

পাশাপাশি কটাক্ষের সুরে এটাও দাবী করলেন,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো অযোগ্য মুখ্যমন্ত্রী বাংলায় আগে দেখা যায়নি। নিজের অযোগ্যতা ঢাকতেই তিনি অন্যকে দোষারোপ করেন। আর এ ব্যাপারে তাকে মদত দেয় রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন। রাজ্যসরকার এবং পুলিশ প্রশাসনের বিজেপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা ছাড়া আর কোনো কাজ নেই।

এ প্রসঙ্গে রাজ্যপুলিশকে তিনি খোঁচা মেরে বলেন,”পুলিশ তো শুধু BJP-র বিরুদ্ধে লাগতে লাগতেই নিষ্কর্মা হয়ে গেছে।” এরপর বামফ্রন্টেও একহাত দিতে ভোলেন না তিনি। বলেন,দেশদ্রোহিতা করার জন্যে আজ বামফ্রন্টের এরকম হীনবল দশা। বামেরাও পাকিস্তানের পক্ষে রয়েছে বলে দাবী করেন দিলীপ বাবু।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!